শনিবার, মে 18, 2024
spot_img

২০২২ সালের শিক্ষা ক্ষেত্রের সেরা গুজবসমূহ

নানাবিধ আলোচনা আর সমালোচনার বছর ছিল গত হওয়া ২০২২ সাল। করোনা পরবর্তী সময়ের ক্ষত কাটিয়ে উঠার বছরে ঘাড়ে নিশ্বাস হয়ে শুরু হয়েছিল ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ। এর প্রভাব পড়েছিল যাপিত জীবনের সকল ক্ষেত্রেই। বৈশ্বিকভাবে এই বিষয়গুলোর পাশাপাশি দেশীয় বিভিন্ন ইস্যুতেও সরব ছিল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। আলোচনা-সমালোচনার সহজ এই মাধ্যমটিতে তাই সবগুলো বিষয় নিয়েই ব্যবহারকারীরা আলোচনা করেছেন, মন্তব্য জানিয়েছেন। ফলে তথ্যের পাশাপাশি উদেশ্যহীনভাবে কিংবা উদ্দেশ্যমূলকভাবে প্রচার হয়েছে ভুল তথ্য কিংবা অপতথ্যের-ও। আজকের নিবন্ধে আমরা জানবো ২০২২ সালে শিক্ষাক্ষেত্রে সেরা গুজবসমূহ সম্পর্কে।

১। মির্জা গালিব হার্ভার্ডে সহযোগী অধ্যাপক পদে নিয়োগ পেয়েছেন এবং ঢাবি রসায়ন ডিপার্টমেন্ট থেকে তিনি-ই একমাত্র ৯৮% মার্ক নিয়ে গ্রাজুয়েশন শেষ করেছেন শীর্ষক গুজব

সেপ্টেম্বর এর শেষ দিকে সামাজিক যোগাযোগ ““মির্জা গালিব হার্ভার্ডে সহযোগী অধ্যাপক পদে নিয়োগ পেয়েছে এবং ঢাবি রসায়ন ডিপার্টমেন্ট থেকে ৯৮% মার্ক নিয়ে গ্রাজুয়েশন শেষ করেছে, যে মার্ক এখন পর্যন্ত কেউ পায় নাই” শীর্ষক দাবি ছড়িয়ে পড়েছিল।

তবে, রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে দেখা যায়, ড. মির্জা গালিব হার্ভার্ডে সহযোগী অধ্যাপক পদে নিয়োগ পাননি বরং তিনি হাওয়ার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে সহকারী অধ্যাপক পদে নিয়োগ পেয়েছেন। এছাড়া, ‘অনার্সে তিনি রেকর্ড মার্ক পেয়েছিলেন, যা এখনো কেউ পায়নি’ এরূপ দাবিটিও মিথ্যা।

বিষয়টি নিয়ে রিউমর স্ক্যানারের ফ্যাক্ট-চেক আর্টিকেলটি পড়ুন এই লিংকে

২। টাইমস হায়ার এডুকেশনের ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি র‍্যাংকিং ২০২৩-এ প্রথম স্থান অর্জন করেছে নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি শীর্ষক বিভ্রান্তিকর তথ্য

অক্টোবরের মাঝামাঝি সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে “যুক্তরাজ্যভিত্তিক শিক্ষা সাময়িকী টাইমস হায়ার এডুকেশনের ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি র‍্যাংকিং ২০২৩-এ বাংলাদেশের সব বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে প্রথম স্থান অর্জন করেছে নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি (এনএসইউ)।” শীর্ষক দাবি ছড়িয়ে পড়েছিল।

তবে, রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, টাইমস হায়ার এডুকেশনের ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি র‍্যাংকিং ২০২৩-এ বাংলাদেশের সব বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় এককভাবে প্রথম স্থান অর্জন করেনি বরং উক্ত র‍্যাংকিং অনুযায়ী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় যৌথভাবে বাংলাদেশে প্রথম স্থান অর্জন করেছে।

বিষয়টি নিয়ে রিউমর স্ক্যানারের ফ্যাক্ট-চেক আর্টিকেলটি পড়ুন এই লিংকে

৩। নতুন শিক্ষাক্রমের রূপরেখা থেকে ধর্মশিক্ষা বাদ শীর্ষক গুজব

জুন এর শেষ দিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে “নতুন শিক্ষাক্রমের রূপরেখা থেকে ধর্মশিক্ষা বাদ” শীর্ষক দাবি ছড়িয়ে পড়েছিল।

তবে, রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, প্রাক-প্রাথমিক থেকে উচ্চমাধ্যমিক স্তর পর্যন্ত নতুন শিক্ষাক্রম থেকে ধর্মশিক্ষা বাদ দেওয়া হয়নি বরং নতুন শিক্ষাক্রমে চারটি ধর্মের জন্য আলাদা চারটি পাঠ্যপুস্তক রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি)।

বিষয়টি নিয়ে রিউমর স্ক্যানারের ফ্যাক্ট-চেক আর্টিকেলটি পড়ুন এই লিংকে

৪। পাঠ্যসূচিতে ইসলাম ধর্ম সম্পর্কিত তথ্য বাদ দিয়ে হিন্দু ধর্ম সম্পর্কিত তথ্য যুক্ত করে পাঠ্যসূচীতে হিন্দুত্ববাদ আনা হয়েছে শীর্ষক গুজব

গত ৩০শে জুন জাতীয় সংসদ অধিবেশনে জাতীয় পার্টি’র সংসদ সদস্য জনাব ফখরুল ইমাম “পাঠ্যসূচিতে ইসলাম ধর্ম সম্পর্কিত তথ্য বাদ দিয়ে হিন্দু ধর্ম সম্পর্কিত তথ্য যুক্ত করে পাঠ্যসূচীতে হিন্দুত্ববাদ আনা হয়েছে” শীর্ষক অভিযোগ তুলে একটি বক্তব্য দিয়েছিলেন। যা পরবর্তীতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে-ও ব্যপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছিল।

তবে, রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা গেছে জাতীয় সংসদে সাংসদ ফখরুল ইমামের পাঠ্যক্রমের বিভিন্ন শ্রেণির বাংলা বই হতে ইসলামিক গল্প/প্রবন্ধ/কবিতা বাদ দিয়ে হিন্দুধর্ম সম্পর্কিত গল্প/প্রবন্ধ/কবিতা যুক্ত করা হয়েছে দাবিতে যে বক্তব্য দিয়েছেন তা সঠিক নয় বরং তিনি যেসকল ইসলামি গল্প/প্রবন্ধ/কবিতা বাদ দেওয়া হয়েছে বলে উল্লেখ করেছেন সেগুলো বাদ দেওয়া হয়নি এবং হিন্দুত্ববাদী যেসকল গল্প/প্রবন্ধ/কবিতা যুক্ত করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন তা বর্তমান পাঠ্যক্রমেই নেই।

বিষয়টি নিয়ে রিউমর স্ক্যানারের ফ্যাক্ট-চেক আর্টিকেলটি পড়ুন এই লিংকে

৫। ইসকন কর্তৃক প্রকাশিত বইকে বাংলাদেশের শিক্ষাব্যবস্থার বই দাবিতে গুজব

জুলাই এর শুরুর দিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে “হিন্দুত্ববাদী শিক্ষামন্ত্রী দিপুমনির বরখাস্ত করার আহবান জানাই” কিংবা “ভারতীয়রা কি সুকৌশলে তাদের লক্ষ্যকে বাস্তবায়ন

করছে” শীর্ষক শিরোনামে ইসকন কর্তৃক প্রকাশিত বইকে “বাংলাদেশের শিক্ষাব্যবস্থার বই” শীর্ষক দাবি ছড়িয়ে পড়েছিল।

তবে, রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, বাংলাদেশের শিক্ষামন্ত্রীর পদত্যাগের দাবিতে ছড়িয়ে পড়া বইয়ের ছবিটি বাংলাদেশের মূলধারার কোনো শিক্ষাব্যবস্থার নয় বরং এটি আন্তর্জাতিক কৃষ্ণভাবনামৃত সংঘ (ইসকন) পরিচালিত জাগ্রত ছাত্র সমাজের উদ্যোগে প্রকাশিত একটি শিশুপাঠমূলক বইয়ের ছবি। 

বিষয়টি নিয়ে রিউমর স্ক্যানারের ফ্যাক্ট-চেক আর্টিকেলটি পড়ুন এই লিংকে

শিক্ষাক্ষেত্রের বিভিন্ন বিষয়ে গণমাধ্যমে ভুল ও বিভ্রান্তিকর সংবাদ

বিদেশের বিশ্ববিদ্যালয় কিংবা শিক্ষাক্ষেত্রের বিষয়ে দেশে প্রচারিত ভুল ও বিভ্রান্তিকর তথ্য

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে সম্পৃক্ত বিষয় নিয়ে ভুল, বিভ্রান্তিকর ও কাল্পনিক প্রচার

পুরোনো সাফল্যকে বারবার বিভ্রান্তিকরভাবে প্রচার

শিক্ষাক্ষেত্রের লোকমুখে প্রচলিত মিথ ও বিতর্ক

এছাড়াও, বিভিন্ন সময়ে শিক্ষাক্ষেত্রে কিংবা শিক্ষাঙ্গনের সাথে সম্পৃক্ত বিভিন বিষয়ে আরো বেশকিছু ভুল তথ্য ছড়িয়ে পড়েছিল। যেমনঃ

সুতরাং, শিক্ষাক্ষেত্রের গুজবের ফলে প্রধানত ক্ষতিগ্রস্ত হয় শিক্ষার্থী এবং শিক্ষা সংশ্লিষ্ট খাতসমূহ। শিক্ষাক্ষেত্রের গুজবের ক্ষেত্রে নিজ প্রতিষ্ঠানকে কিংবা পছন্দের প্রতিষ্ঠানকে নিয়ে র‍্যাংকিং সংক্রান্ত ভুল বা বিভ্রান্তিকর প্রচার, পাঠ্যক্রম নিয়ে ভুল তথ্য প্রচার, প্রতিষ্ঠান বন্ধ কিংবা খোলার এবং পাবলিক পরীক্ষা নিয়ে ভুলতথ্য প্রচার করা হয়। এছাড়াও, বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কিত আবেগ তৈরি করা ছবির সাথে কল্পিত গল্প জুড়ে দেওয়া কিংবা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পুরোনো সাফল্য প্রতিবছর সাম্প্রতিক দাবিতে বিভ্রান্তিকরভাবে প্রচার করা হয়। এই ধরণের ভুল থেকে বাঁচতে তথ্যটি সম্পর্কে ইন্টারনেটে সার্চ করে গণমাধ্যমে সে বিষয়ের তথ্যের সাথে মিলিয়ে নিতে হবে। নিজে নিজে ডিজিটাল মাধ্যমের ভুলতথ্য যাচাই প্রক্রিয়া শিখতে পড়তে পারেন যাচাই সম্পর্কিত আমাদের আর্টিকেলটি

RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img