রবিবার, জুন 23, 2024
spot_img

অভিনয়ের দৃশ্য সত্য ঘটনা হিসেবে ছড়িয়ে পড়া নিয়ে যত কান্ড

সারা পৃথিবীতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারকারীর সংখ্যা বৃদ্ধির সাথে সাথে মানুষ বিভিন্ন ক্ষেত্রে পূর্বের তুলনায় এর উপর বেশি নির্ভরশীল হয়ে পড়ছে। তথ্য জানার আগ্রহ, চলমান ঘটনা কিংবা বিনোদনের জন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের উপর নির্ভরশীলতা এখন অন্য যে কোনো মাধ্যমের চেয়ে বেশি। তুলনামূলক সহজ ও বৃহৎ পরিসরে কন্টেন্ট প্রচার প্রক্রিয়া এবং হাল আমলের মনিটাইজেশন (সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কন্টেন্ট থেকে আয় করার পদ্ধতি) এর কারণে বিনোদনের জন্য এই মাধ্যমের প্রতি কন্টেন্ট প্রকাশকারীদের আগ্রহ দিনদিন আরো বৃদ্ধি পাচ্ছে। পাশাপাশি, মাধ্যমটিতে বিনামূল্যে এবং সহজলভ্য উপায়ে পছন্দের নানাবিধ কন্টেন্ট প্রাপ্তির কারণে দর্শকেরও আগ্রহ নিয়মিত বাড়ছে। ফলে বিনোদনের উদ্দেশ্যে ব্যতিক্রমী বিভিন্ন দৃশ্যপটের উপর কন্টেন্ট (ভিডিও) তৈরি করা হলে সেই ভিডিওর ক্ষুদ্র অংশ প্রেক্ষাপটবিহীন ভাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করা অনেক ক্ষেত্রেই ভুল বার্তা বহন করে।

১। কুরআন অবমাননা করায় এক মহিলা মানুষ থেকে শিয়ালে পরিণত হয়ে গেছে শীর্ষক দাবির (ভিডিও) ক্ষেত্রে

মার্চ এর শেষদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে “এই মহিলাটা, কোরআনকে অপমান করেছিল আল্লাহ তাআলা তাকে শাস্তি দিয়েছে (ভিডিওতে দেখুন)” শীর্ষক দাবিতে একটি ভিডিও প্রচার করা হয়েছিল।

তবে, রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, ভিডিওটি কোরআন অবমাননা করায় মানুষ থেকে শিয়ালে পরিণত হওয়ার ঘটনার নয় বরং এটি পাকিস্তানের করাচি চিড়িয়াখানায় মুরাদ আলী নামের এক ব্যক্তির মহিলা ছদ্মবেশে অর্ধ নারী ও অর্ধ শেয়াল পৌরাণিক প্রাণীর চরিত্রে অভিনয়ের একটি দৃশ্য।

ভিডিওটির সত্যতা যাচাই করে প্রকাশিত রিউমর স্ক্যানারের ফ্যাক্ট-চেক আর্টিকেলটি পড়া যাবে এই লিংকে

২। খুতবারত অবস্থায় খতিবের মৃত্যু শীর্ষক দাবির (ভিডিও) ক্ষেত্রে

মার্চ এর শেষদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে “খতীব খুতবা দিতে দিতেই কালিমা পড়া অবস্থায় মারা গেলেন। আল্লাহ তাকে মাফ করুন।” শীর্ষক দাবিতে একটি ভিডিও প্রচার করা হয়েছিল।

তবে, রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, ভিডিওটিতে থাকা ব্যাক্তি খুতবা দেওয়ার সময় মৃত্যুবরণ করেন নি বরং সেই ব্যাক্তি তার দেখা মিম্বরে খুতবা তিলওয়াতকালীন সময়ে মারা যাওয়া এক ব্যাক্তির ঘটনাকে অভিনয়ের মাধ্যমে চিত্রায়ণ করে ভিডিওটি তৈরি করেছেন। 

ভিডিওটির সত্যতা যাচাই করে প্রকাশিত রিউমর স্ক্যানারের ফ্যাক্ট-চেক আর্টিকেলটি পড়া যাবে এই লিংকে। 

৩। নিজের অভিনয় দেখে নিজেই রেগে গেলেন চিত্রনায়ক রিয়াজ শীর্ষক দাবির (ভিডিও) ক্ষেত্রে

জুন এর শুরু দিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে “নিজের অভিনয় দেখে নিজেই রেগে গেলেন চিত্রনায়ক রিয়াজ” শীর্ষক দাবিতে একটি ভিডিও প্রচার করা হয়েছিল।

তবে, রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, উক্ত ভিডিও দেখে রিয়াজ সত্যি সত্যি রেগে যাননি বরং এটি ছিলো মেরিল প্রথম আলো পুরস্কার অনুষ্ঠানের রিহার্সেল চলাকালীন রিয়াজ ও ফেরদৌসের মধ্যকার অভিনয়ের অংশ। 

ভিডিওটির সত্যতা যাচাই করে প্রকাশিত রিউমর স্ক্যানারের ফ্যাক্ট-চেক আর্টিকেলটি পড়া যাবে এই লিংকে

৪। উগান্ডার এক মহিলা গরুর মতো হয়ে গেছে শীর্ষক দাবির (ভিডিও) ক্ষেত্রে

জুন এর মাঝামাঝি সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে “উগান্ডার এক মহিলা গরুর মতন হয়ে গেছে। আল্লাহ চাইলে সবকিছু করতে পারে যেমন তার উদাহরণ (বিস্তারিত ভিডিওতে)” শীর্ষক দাবিতে একটি ভিডিও প্রচার করা হয়েছিল।

তবে, রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, ভিডিওর মহিলাটি গরুর মত হয়ে যায়নি বরং অভিনয়ের মাধ্যমে মঞ্চস্থ করার উদ্দেশ্যে সে গরুর পা ও লেজ লাগিয়েছে এবং সে উগান্ডার নয় বরং সে তানজানিয়ার।

ভিডিওটির সত্যতা যাচাই করে প্রকাশিত রিউমর স্ক্যানারের ফ্যাক্ট-চেক আর্টিকেলটি পড়া যাবে এই লিংকে। 

৫। এক স্কুল ছাত্র একসাথে দুই প্রেমিকার সাথে অন্তরঙ্গ হয়েছেন শীর্ষক দাবির (ভিডিও) ক্ষেত্রে

আগস্ট এর শুরুর দিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে “এক মোবাইলে দুই সিম কার্ড” শীর্ষক শিরোনামে  (এক স্কুল ছাত্র একসাথে দুই প্রেমিকার সাথে অন্তরঙ্গ হয়েছেন) দাবিতে একটি ভিডিও প্রচার করা হয়েছিল।

তবে, রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, আলোচিত ভিডিওটি কোনো বাস্তব ঘটনা নয় বরং এটি চিত্রনাট্য অনুযায়ী অভিনয় করা একটি ভিডিও।

ভিডিওটির সত্যতা যাচাই করে প্রকাশিত রিউমর স্ক্যানারের ফ্যাক্ট-চেক আর্টিকেলটি পড়া যাবে এই লিংকে। 

৬। একজন নারী এক অসহায় রিকশাওয়ালাকে থাপ্পর দিয়েছেন শীর্ষক দাবির (ভিডিও) ক্ষেত্রে

আগস্ট এর মাঝামাঝি সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে “মহিলা পুরুষকে তাপ্পড় দিলে কিছু হয় না, পুরুষ মহিলাকে মারলে জরিমানা, গরিবের কেউ নেই” শীর্ষক দাবিতে একটি ভিডিও প্রচার করা হয়েছিল।

তবে, রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, রিকশাচালক ও নারী যাত্রীর বাকবিতন্ডার ভাইরাল ভিডিওটি বাস্তব কোন ঘটনার নয় বরং এটি অভিনয়ের মাধ্যমে মঞ্চায়ন করা একটি ভিডিও।

ভিডিওটির সত্যতা যাচাই করে প্রকাশিত রিউমর স্ক্যানারের ফ্যাক্ট-চেক আর্টিকেলটি পড়া যাবে এই লিংকে। 

৭। রংপুরে আপন ভাই বোনের বিয়ে শীর্ষক দাবির (ভিডিও) ক্ষেত্রে

আগস্ট এর শেষদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে “রংপুরে আপন ভাই বোনের বিয়ে” শীর্ষক দাবিতে একটি ভিডিও প্রচার করা হয়েছিল।

তবে, রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, রংপুরে আপন ভাই বোনের বিয়ের দৃশ্য দাবিতে প্রচারিত ভিডিওটি বাস্তব নয় বরং সামাজিক মাধ্যমে প্রচার পাওয়ার উদ্দেশ্যেই উক্ত ভুয়া ভিডিওটি তৈরি করা হয়েছে।

ভিডিওটির সত্যতা যাচাই করে প্রকাশিত রিউমর স্ক্যানারের ফ্যাক্ট-চেক আর্টিকেলটি পড়া যাবে এই লিংকে

৮। চার ভাইয়ের এক বউ শীর্ষক দাবির (ভিডিও) ক্ষেত্রে

সেপ্টেম্বর এর মাঝামাঝিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে “চার ভাইয়ের এক বউ” শীর্ষক দাবিতে একটি ভিডিও প্রচার করা হয়েছিল।

তবে, রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, চার ভাইয়ের এক বউ দাবিতে প্রচারিত ভিডিওটি বাস্তব কোনো ঘটনার নয় বরং ভিডিওটি ‘A Media’ নামক একটি ভিডিও প্রযোজনা সংস্থার কিছু অভিনয়শিল্পীর মাধ্যমে মঞ্চায়িত নাটকের ভিডিও।

ভিডিওটির সত্যতা যাচাই করে প্রকাশিত রিউমর স্ক্যানারের ফ্যাক্ট-চেক আর্টিকেলটি পড়া যাবে এই লিংকে

৯। আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ জেতার জন্য খাস দোয়া ও মিলাদ মাহফিল শীর্ষক দাবির (ভিডিও) ক্ষেত্রে

নভেম্বর এর মাঝামাঝি সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে “আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ জেতার জন্য খাস দোয়া ও মিলাদ মাহফিল” শীর্ষক দাবিতে একটি ভিডিও প্রচার করা হয়েছিল।

তবে, রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপ জেতার জন্য খাস দোয়া ও মিলাদ মাহফিল করার ঘটনাটি বাস্তব নয় বরং এটি একটি নাটকের শুটিংয়ের সময় অভিনয়ের দৃশ্য।

ভিডিওটির সত্যতা যাচাই করে প্রকাশিত রিউমর স্ক্যানারের ফ্যাক্ট-চেক আর্টিকেলটি পড়া যাবে এই লিংকে। 

বিয়ের আসরে বর-কনের অভিনয়ের দৃশ্য সত্য দাবিতে প্রচার

সাম্প্রতিক কালে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্ক্রিপ্টেড ভিডিওর মাধ্যমে আগ্রহোদ্দীপক ভিডিও ছড়িয়ে ভুল বার্তা (ভুল তথ্য) প্রচার করার বিষয়টির বেশ প্রবণতা লক্ষ করা যাচ্ছে। আরো সংক্ষেপে বলতে গেলে বিয়ে এবং বিয়ে সংক্রান্ত কিংবা নারী-পুরুষ সংক্রান্ত বিষয়ের স্ক্রিপ্টেড ভিডিওর বেশি ব্যবহার করা হচ্ছে। এক্ষেত্রে বাংলাদেশ এবং পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতে বিয়ের আসরে মঞ্চায়িত ঘটনা কিংবা বিয়ের আসরে বর-কনের দ্বারা অভিনীত দৃশ্যের ব্যবহার লক্ষ্য করা যায়।

১। বর কনের মারামারি শীর্ষক দাবির (ভিডিও) ক্ষেত্রে

বিভিন্ন সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে “বর কনের মারামারি” শীর্ষক দাবিতে একটি ভিডিও প্রচার করা হয়েছিল।

তবে, রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে জানা যায়, বর-কনের মারামারির ভিডিওটি কোনো প্রকৃত বিয়েবাড়ির ঘটনা নয় বরং এটি একটি ইউটিউব চ্যানেলের বিনোদনমূলক নাটকের জন্য পূর্ব পরিকল্পিত গল্পের চিত্রায়িত ভিডিওর অংশ।

ভিডিওটির সত্যতা যাচাই করে প্রকাশিত রিউমর স্ক্যানারের ফ্যাক্ট-চেক আর্টিকেলটি পড়া যাবে এই লিংকে

২। একজনের বউকে অন্যজন সিঁদুর পরিয়ে দিচ্ছে শীর্ষক দাবির (ভিডিও) ক্ষেত্রে

বিভিন্ন সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ““পিছে তো দেখো” শীর্ষক শিরোনামে “একজনের বউকে অন্যজনের সিঁদুর পরিয়ে দিচ্ছে ” দাবিতে একটি ভিডিও প্রচার করা হয়েছিল।

তবে, রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে জানা যায়, বিয়ের আসরে বরের অগোচরে কনের প্রেমিক দ্বারা কনের মাথায় সিঁদুর পরানোর দাবিতে প্রচারিত ভিডিওটি বাস্তব কোনো বিয়ে বাড়ির ঘটনা নয় বরং এটি কিছু অভিনয়শিল্পীর মাধ্যমে মঞ্চায়িত বিনোদনমূলক একটি ভিডিও।

ভিডিওটির সত্যতা যাচাই করে প্রকাশিত রিউমর স্ক্যানারের ফ্যাক্ট-চেক আর্টিকেলটি পড়া যাবে এই লিংকে। (প্রকাশিত এই বছরের জানুয়ারিতে)

পুরোনো সিনেমার দৃশ্যকে সত্য ফুটেজ দাবিতে প্রচার

বেশ পুরোনো সময়ের সিনেমার দৃশ্য এবং সে সময়ের সাধারণ কোনো ঘটনা কিংবা অবস্থার ভিডিও ধারণের ভিডিও প্রায় একই রেজুলেশনের মত মনে হয়। এ কারণে পুরনো সিনেমার কোনো দৃশ্য যদি কাকতালীয়ভাবে কোনো বিখ্যাত কোনো ব্যক্তি, বস্তু বা অবস্থার সাথে মিলে যায়, তাহলে সেই সিনেমার খন্ডিত দৃশ্যকে বাস্তবে ধারণ করা দৃশ্য দাবিতে প্রচার হতে দেখা যায়।

১। ১৯৫০ সালের ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের বাস্তব ভিডিও শীর্ষক দাবির ক্ষেত্রে

বিভিন্ন সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে “১৯৫০ সালের ভিডিও, ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসগর” শীর্ষক দাবিতে একটি ভিডিও প্রচার করা হয়েছিল।

তবে, রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, ভিডিওটি কোন বাস্তব দৃশ্যের নয় বরং এটি “বিদ্যাসাগর” নামের একটি চলচ্চিত্রের অংশ।

ভিডিওটির সত্যতা যাচাই করে প্রকাশিত রিউমর স্ক্যানারের ফ্যাক্ট-চেক আর্টিকেলটি পড়া যাবে এই লিংকে। এছাড়াও, সামরিক অপারেশনের প্রশিক্ষণের ভিডিওকে ইউক্রেনের সেনা কর্তৃক মুসলিম ছেলেকে রক্ষা করার ভিডিও দাবিতে প্রচার করা হয়েছিল

সুতরাং, বর্তমান সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্ক্রিপ্টেড ভিডিও ব্যবহার করে ভুল বার্তা বা ভুল তথ্য প্রচারের মাত্রা বেড়ে গেছে। অনেক ক্ষেত্রে এসকল বিষয় যাচাই করা বেশ কঠিন হয়ে পড়ে। তবে ব্যতিক্রমী বিভিন্ন দৃশ্যপটের উপর আগ্রহোদ্দীপক এসব কন্টেন্টের ঘটনা সত্যি হলে তা গণমাধ্যমে প্রকাশ হয়। সে অনুযায়ী বিষয়টি নিয়ে গণমাধ্যমে কোনো সংবাদ রয়েছে কিনা তা যাচাই করতে হবে। ভিডিও একদম শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত লক্ষ্য করে কোনো ডিসক্লেইমার দেওয়া আছে কিনা তা দেখতে হবে। যে পেজ বা প্রোফাইল থেকে ভিডিওটি প্রথম প্রকাশ করা হয়েছে অর্থাৎ কন্টেন্টটি যারা তৈরি করেছেন তাদের নিজেদের পেজ এর মাধ্যমে পেলে পেজটির অন্যান্য ভিডিও দেখেও সিদ্ধান্তে আসা যায়। এছাড়াও, ভিডিও থেকে স্থিরচিত্র নিয়ে রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমেও অনুসন্ধান করা যায়। ভিডিও কিভাবে যাচাই করতে হয় সে বিষয়ে প্রকাশিত আমাদের প্রতিবেদন থেকে সাহায্য নেওয়া যেতে পারে।

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img