শনিবার, এপ্রিল 13, 2024
spot_img

বর-কনের মারামারির ভিডিওটি প্রকৃতপক্ষে একটি কমেডি ভিডিওর অংশ

সম্প্রতি, “বর কনের মারামারি” শীর্ষক শিরোনামে একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

ফেসবুকে প্রচারিত কিছু ভিডিওপোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে এখানে
পোস্টগুলোর আর্কাইভ দেখুন এখানে, এখানে, এখানেএখানে

যা দাবি করা হচ্ছে

ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে বিয়ের অনুষ্ঠানে প্রথমে বর কনেকে মিষ্টি খাইয়ে দিতে যায়, কিন্তু কনে মুখ খুলতে দেরি করায় বর রেগে গিয়ে ধমক কনেকে ধমক দিয়ে মিষ্টি মুখে গুঁজে দেয়। পরবর্তীতে যখন কনে বরকে মষ্টি খাওয়াতে যায় তখন বর মুখ খুলতে দেরি করায় কনে বরের মুখে মিষ্টিটা মেখে দেয়। যা থেকে শুরু হয় বর-কনের মারামারি। বর্তমানে এই ভিডিওটি একটি বিয়ে বাড়ির বাস্তব ঘটনা দাবিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচারিত হচ্ছে।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে জানা যায়, বর-কনের মারামারির ভিডিওটি কোনো প্রকৃত বিয়েবাড়ির ঘটনা নয় বরং এটি একটি ইউটিউব চ্যানেলের বিনোদনমূলক নাটকের জন্য পূর্ব পরিকল্পিত গল্পের চিত্রায়িত ভিডিওর অংশ।

ভিডিওটির কিছু স্থিরচিত্র রিভার্স ইমেজ সার্চে, ৫ এপ্রিল ২০২২ তারিখে “AVI Music” নামে একটি ইউটিউব চ্যানেলে “स्वयम्बर मे दुल्हा दुल्हिन के भेलै झगडा // maithili comedy 2022 //” শীর্ষক শিরোনামে ভিডিওটি খুঁজে পাওয়া যায়।

শিরোনামটি মৈথালি ভাষায় লেখা। সেটিকে বাংলায় অনুবাদ করলে দাঁড়ায় “স্বয়ম্বরে বর-কনের ঝগড়া”। শিরোনামের “Maithali comedy 2022” অংশটি থেকে সহজেই বোঝা যায় এটি একটি কমেডি ভিডিও। বর-কনের মারামারি দাবিতে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওটি ইউটিউবের মূল ভিডিওর ২.৫০ মিনিট থেকে খন্ডিত অংশ প্রচার করা হচ্ছে।

চ্যানেলটি পর্যবেক্ষণ করে এই ধরণের একাধিক কমেডি ভিডিও দেখতে পাওয়া যায়।

পরবর্তীতে, ৮ অক্টোবর ২০২২ তারিখে “Telegupost.com”- এ “Fact Check: Comic drama of a wedding going viral with a FALSE claim” শীর্ষক শিরোনামে একটি ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন পাওয়া যায়।

প্রতিবেদনটিতে বলা হয়েছে, “The claim is false, as the video is part of a drama series.”, অর্থাৎ, আলোচিত ভিডিওটি একটি নাটকের অংশ।

মূলত, AVI Music নামে মৈথালি ভাষার একটি ইউটিউব চ্যানেল নানা ধরণের কমেডি ভিডিও বানিয়ে তাদের ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড করে। তেমনই একটি ভিডিও ছিলো বর-কনের মারামারির আলোচিত ভিডিওটি। উক্ত বিনোদনমূলক ভিডিওটির খণ্ডিত অংশ একটি বাস্তব বিয়েবাড়ির ঘটনার ভিডিও দাবিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, পূর্বেও এক প্রেক্ষাপটের ভিডিওকে অন্য কোনো প্রেক্ষাপটের ভিডিও দাবিতে ছড়ানো গুজবকে শনাক্ত করে ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে রিউমর স্ক্যানার টিম।

সুতরাং, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইউটিউবে প্রকাশিত বর-কনের মারামারির বিনোদনমূলক পুরোনো একটি ভিডিওকে বর্তমানে বাস্তব একটি বিয়ে বাড়ির আসল বর-কনের মারামারির ভিডিও দাবিতে প্রচার করা হচ্ছ, যা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img