শনিবার, মে 18, 2024
spot_img

২০২২: রাজনৈতিক নেতাদের বক্তব্যে ছিল যেসব ভুল তথ্য

সদ্যই শেষ হলো খ্রিস্টীয় বছর ২০২২। শেষ হওয়া এই বছরে দেশে চলমান বিভিন্ন মেগাপ্রকল্প যেমন পদ্মা সেতুর কাজ শেষে উদ্বোধন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফর, খেলাধুলা বিশেষ করে সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপে বাংলাদেশের মেয়েদের সেরা প্রাপ্তি সহ বিভিন্ন ঘটনা আলোচনায় ছিল দেশের রাজনৈতিক অঙ্গনে। 

এসব ঘটনার কৃতিত্ব নিতে সরকার দলের এমপি-মন্ত্রী বা বিরোধী দলের নেতাদের বক্তব্য উত্তাপ ছড়িয়েছে দেশের মূলধারার গণমাধ্যম সহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে৷ 

তবে এসব বক্তব্যের মধ্যেই রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ এমন সব তথ্য উপস্থাপন করেছেন, যা প্রকৃতপক্ষে সত্য নয়। বছর জুড়েই রাজনৈতিক নেতাদের প্রদত্ত সেসব বক্তব্যের ফ্যাক্টচেক করেছে রিউমর স্ক্যানার টিম।

নতুন বছরের শুরুতে চলুন এক নজরে দেখে নেওয়া যাক রাজনৈতিক নেতাদের সেসব বক্তব্য ও ফ্যাক্টচেকগুলো:

১. প্রধান নির্বাচন কমিশনার নুরুল হুদাকে যুক্তরাষ্ট্র নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে: বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অবসরপ্রাপ্ত) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ

২০২২ সালের শুরুতেই ৭ জানুয়ারি জাতীয় প্রেস ক্লাবে ‌‌’ফেলানী হত্যা দিবস’ উপলক্ষে বাংলাদেশ লেবার পার্টির উদ্যোগে আয়োজিত আগ্রাসীবিরোধী কনভেনশনে বক্তব্য দিতে গিয়ে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর হাফিজ উদ্দিন আহমদ (অবসরপ্রাপ্ত) নুরুল হুদাকে যুক্তরাষ্ট্র নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে দাবি করে গণমাধ্যমে বিবৃতি দেন।

তবে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর হাফিজ উদ্দিন আহমেদের এই বক্তব্যের কোনো সত্যতা খুঁজে পাওয়া যায়নি।

এ নিয়ে রিউমর স্ক্যানারের বিস্তারিত প্রতিবেদন পড়ুন এখানে। 

২. কেনিয়ার রাষ্ট্রপ্রধানকে বারাক ওবামার ‘ফলো বাংলাদেশ, ফলো শেখ হাসিনা’ বলার দাবি মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হকের

২০২২ সালের শুরুতেই ২৫ জানুয়ারি, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের ‘সুবর্ণজয়ন্তী ওয়েবসাইট’ ও ‘সুবর্ণজয়ন্তী অনলাইন কুইজ’ প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, “বাংলাদেশ বিশ্বের রোল মডেল।বাংলাদেশের উন্নতির জন্য বারাক ওবামা তার দাদার দেশ কেনিয়ার রাষ্ট্রপ্রধানকে বলেছেন- ফলো শেখ হাসিনা, ফলো বাংলাদেশ।”

তার এই বক্তব্য পরবর্তীতে একাধিক গণমাধ্যম সহ সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে। কিন্তু বারাক ওবামা আদৌ কখনো এমন কিছু বলেছিল?

এ বিষয়ে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধান নিয়ে বিস্তারিত প্রতিবেদন পড়ুন এখানে। 

৩. আমেরিকার সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা তার বাবার দেশ কেনিয়াতে গিয়ে বলেছিলেন, আফ্রিকার দেশগুলোর বাংলাদেশের কাছ থেকে শিক্ষা নেওয়া প্রয়োজন: হাসান মাহমুদ 

২০২২ সালের ১৪ মে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউস সম্মেলন কক্ষে ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দশ উদ্যোগে নারীর ক্ষমতায়ন’ বিষয়ক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। 

এ আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে হাছান মাহমুদ বলেন, “আমেরিকার সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা তো তার বাবার দেশ কেনিয়াতে গিয়ে বলেছিলেন, আফ্রিকার দেশগুলোর বাংলাদেশের কাছ থেকে শিক্ষা নেওয়া প্রয়োজন।” 

পরবর্তীতে তার এই বক্তব্যটি বিভিন্ন গণমাধ্যম সূত্রে সামাজিক মাধ্যমেও ছড়িয়ে পড়ে। 

তবে রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা কেনিয়ায় গিয়ে কখনও আফ্রিকার দেশগুলোকে বাংলাদেশ থেকে শিক্ষা নেওয়ার কথা বলেননি।

এ বিষয়ে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধান নিয়ে বিস্তারিত প্রতিবেদন পড়ুন এখানে

৪. পদ্মা সেতুর প্রথম ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছিলেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া: মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর 

২০২২ সাল বাংলাদেশিদের কাছে যেসব কারণে স্মরণীয় হয়ে থাকবে তার মধ্যে অন্যতম বহুল প্রত্যাশিত মেগাপ্রকল্প পদ্মা সেতুর উদ্বোধন। সে বছরের ২৫ জুন এই সেতুর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

 তবে সেতু উদ্বোধনের আগে ৫ জুন  ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাবে সাংবাদিকদের সঙ্গে মত বিনিময়কালে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর দাবি করেন, পদ্মা সেতুর প্রথম ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছিলেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া।

তবে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে দেখা যায়, পদ্মা সেতুর প্রথম ভিত্তিপ্রস্তর সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া স্থাপন করেননি। 

এই সম্পর্কিত রিউমর স্ক্যানারের বিস্তারিত প্রতিবেদন পড়ুন এখানে

৫. পঁচাত্তরের হাতিয়ার গর্জে উঠুক আরেকবার’ শীর্ষক কোনো স্লোগান বিএনপি সংশ্লিষ্ট কেউ দেননি: বিএনপি নেত্রী ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা

২০২২ সালের জুন মাসে বিএনপি নেত্রী রুমিন ফারহানা দেশীয় মূলধারার বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল যমুনার টিভির একটি টকশোতে উপস্থাপিকার এক প্রশ্নের জবাবে দাবি করেন, বিএনপি সংশ্লিষ্ট কেউ ‘পঁচাত্তরের হাতিয়ার গর্জে উঠুক আরেকবার’ এ ধরণের কোনো বক্তব্য দেয়নি বরং এটি বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যের নিজস্ব দাবিকৃত বক্তব্য।

তার এই দাবির পরে এটির সত্যতা অনুসন্ধানে নামে রিউমর স্ক্যানার টিম। রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, ‘পঁচাত্তরের হাতিয়ার গর্জে উঠুক আরেকবার’ এ ধরণের মন্তব্য বিএনপি সংশ্লিষ্ট কেউ করেননি বিএনপি নেত্রী রুমিন ফারহানার এই মন্তব্যটি সত্য নয়।

এ নিয়ে রিউমর স্ক্যানারের বিস্তারিত প্রতিবেদন পড়ুন এখানে। 

৬. পাঠ্যসূচিতে ইসলাম ধর্ম সম্পর্কিত তথ্য বাদ দিয়ে হিন্দু ধর্ম সম্পর্কিত তথ্য যুক্ত করে পাঠ্যসূচীতে হিন্দুত্ববাদ আনা হয়েছে: জাতীয় পার্টি’র সংসদ সদস্য ফখরুল ইমাম

২০২২ সালের জুলাই মাসের শুরুতেই জাতীয় সংসদ অধিবেশনে জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য ফখরুল ইমাম পাঠ্যসূচিতে ইসলাম ধর্ম সম্পর্কিত তথ্য বাদ দিয়ে হিন্দু ধর্ম সম্পর্কিত তথ্য যুক্ত করে পাঠ্যসূচীতে হিন্দুত্ববাদ আনার অভিযোগ তুলেন।

 তার এই অভিযোগে তিনি দ্বিতীয় শ্রেণি থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত বিভিন্ন শ্রেনির পাঠ্যপুস্তকে ইসলাম ধর্ম সম্পর্কিত তথ্য বাদ দিয়ে হিন্দু ধর্ম সম্পর্কিত তথ্য অন্তর্ভুক্ত করার অভিযোগ আনেন।

তবে রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা গেছে তিনি যে সকল ইসলাম ধর্ম সম্পর্কিত গল্প/কবিতা/প্রবন্ধ বাদ দেয়া হয়েছে বলে দাবি করেছেন সেগুলো বাদ দেয়া হয়নি বরং যেগুলো যুক্ত করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন তা বর্তমান পাঠ্যক্রমে নেই এবং সেগুলো ২০১৭ সালেই বাদ দেয়া হয়েছে।

এই সম্পর্কিত রিউমর স্ক্যানারের বিস্তারিত প্রতিবেদন পড়ুন এখানে

৭. সাফ গেমসে নারী ফুটবল চালু করেন প্রেসিডেন্ট জিয়া: ফখরুল ইসলাম আলমগীর 

২০২২ সালে ক্রীড়া জগতে বাংলাদেশের অন্যতম সাফল্য ছিল সাফ গেমসে মেয়েদের প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়নশিপ অর্জন। মেয়েদের এই অর্জনের পর বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এক বক্তব্যে দাবি করেন, সাফ গেমসে প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান নারী ফুটবল চালু করেছেন। তার এই বক্তব্য সূত্রে গণমাধ্যমে সংবাদও প্রচার হয়। 

তবে রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, সাফ গেমসে প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের নারী ফুটবল চালুর দাবিটি সঠিক নয়। 

এই নিয়ে রিউমর স্ক্যানারের বিস্তারিত প্রতিবেদন পড়ুন এখানে। 

৮. বেগম খালেদা জিয়া প্রধানমন্ত্রী না, বিরোধী দলের নেত্রী হিসেবে  যখন সর্বশেষ ভারতে গিয়েছিলেন, তখন ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং এয়ারপোর্টে গিয়ে তাকে রিসিভ করেছিলেন: বিএনপি যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল

২০২২ সালের সেপ্টেম্বরের শুরুতে ভারত সফরে যান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেসময় দিল্লি বিমানবন্দরে তাকে অভ্যর্থনা জানান ভারতীয় রেল ও বস্ত্র প্রতিমন্ত্রী। এই ঘটনার সমালোচনা করতে গিয়ে বিএনপির এক সমাবেশে বক্তৃতা দানকালে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল দাবি করেন- ‘বিরোধীদলীয় নেত্রী হিসেবে ভারত সফরে খালেদা জিয়াকে ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং এয়ারপোর্টে গিয়ে রিসিভ করেছিলেন।’

তবে রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলালের দাবিকৃত তথ্যটি সঠিক নয়। 

বরং খালেদা জিয়ার সবশেষ ভারতে সফরে দিল্লি বিমানবন্দরে তাকে স্বাগত জানান ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের শীর্ষ কর্মকর্তাবৃন্দ, বাংলাদেশের ডেপুটি হাইকমিশনার মাহবুব হাসান সালেহ এবং হাইকমিশনের অন্যান্য কর্মকর্তারা।

এ সম্পর্কিত রিউমর স্ক্যানারের বিস্তারিত প্রতিবেদন পড়ুন এখানে। 

৯. এশিয়ার মধ্যে প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া: নুরুল হক নুরু

২০২২ সালের ৩১ আগস্ট গণঅধিকার পরিষদের সদস্য সচিব মো: নুরুল হক নুরু রাজধানীতে  একটি অনুষ্ঠানে বক্তব্য প্রদানকালে বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়াকে এশিয়ার প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে উল্লেখ করেন। 

তবে রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, এশিয়ার প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া নন বরং এশিয়া ও পৃথিবীর প্রথম নারী সরকার প্রধান শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী শ্রীমাভো বন্দরনায়েকে।

এ নিয়ে রিউমর স্ক্যানারের বিস্তারিত প্রতিবেদন পড়ুন এখানে। 

১০. মাশরাফির আয় সম্পর্কে বিএনপি নেত্রী নিলুফার চৌধুরীর বক্তব্য

২০২২ সালের পহেলা নভেম্বর বাংলাদেশ ওয়ানডে দলের সাবেক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজার আয় নিয়ে ক্রিকট্যাকার নামে একটি অনলাইন পোর্টালের বরাতে একটি সংবাদ মূলধারার গণমাধ্যমে প্রচারিত হওয়ার মাধ্যমে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। 

সংবাদটিতে দাবি করা হয়, ‘বাংলাদেশের শীর্ষ ধনী ক্রিকেটার সাবেক অধিনায়ক মাশরাফী বিন মোর্ত্তাজা। বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তিতে না থাকলেও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের অ্যাম্বাসেডর হিসেবে আছেন এই ‘ক্যাপ্টেন ফ্যান্টাসটিক’। তার মোট সম্পত্তি ৫১০ কোটি টাকা।’

এই তথ্যটি ছড়িয়ে পড়ার পর মাশরাফির ২০১৮ সালের সংসদ নির্বাচনের সময় নির্বাচনের হলফনামায় প্রায় ৯ কোটি টাকা দেখানোর বিষয়টির সাথে মিলিয়ে আরো একটি তথ্য ছড়িয়ে পড়ে। যেখানে দাবি করা হয় “নির্বাচনী হলফ নামায় উল্লেখ করা মাশরাফির সম্পদ ৯ কোটি টাকা থেকে মাত্র সাড়ে ৪ বছরে ৫১০ কোটি টাকায় পৌঁছেছে।”

ক্রিক ট্র‍্যাকারের এই প্রতিবেদন সূত্রে ২০২২ সালের ২০ ডিসেম্বর বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল বাংলা ভিশনের একটি টকশোতে বিএনপি নেত্রী নিলুফার চৌধুরী দাবি করেন, মাশরাফি এমপি হওয়ার পর তাঁর সম্পত্তির পরিমাণ বেড়ে গেছে। 

এ প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, “প্রথম সারির একটা খেলোয়াড়কে এমপি বানিয়ে দিয়ে তার খেলাটার বারোটা বাজিয়ে দিয়েছেন, এখন আমি শুনি সে নাকি বাংলাদেশের কয়েকটা ধনীর একটা ধনী। এই যে তাকে খেলোয়াড় থেকে চোর বানাইলেন, এটা কোন ধরনের রাজনীতি? “

নিলুফার চৌধুরীর বক্তব্যটি শুনুন এখানে। 

নিলুফার চৌধুরীর বক্তব্য ঘিরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ও টিকটকে ছড়িয়ে পড়া কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে। আর্কাইভ দেখুন এখানে, এখানে

তবে বিষয়টি নিয়ে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে দেখা যায়, মাশরাফি বিন মুর্তজার সম্পদের পরিমাণ ৫১০ কোটি টাকা শীর্ষক তথ্যটি সঠিক নয় বরং কতিপয় অনির্ভরযোগ্য ওয়েবসাইটে দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে বিষয়টি প্রচার করা হয়েছিল। পাশাপাশি রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধান চলাকালীন সময়েই যমুনা টেলিভিশন এবং ক্রিকট্র্যাকার উভয়ই তাদের প্রতিবেদনগুলো সরিয়ে নেয়৷ 

এ বিষয়ে রিউমর স্ক্যানারের বিস্তারিত প্রতিবেদন দেখুন এখানে। 

২০২২ সালে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে রাজনৈতিক নেতাদের  বক্তব্যে যেসব ভুল তথ্য উঠে আসে তা এক নজরে দেখে নিন এখানে:

১. সিইসি নুরুল হুদার মার্কিন ভিসা বাতিলের তথ্যটি গুজব

২. কেনিয়ার রাষ্ট্রপ্রধানকে বারাক ওবামার ‘ফলো বাংলাদেশ, ফলো শেখ হাসিনা’ বলার দাবিটি মিথ্যা

৩. “আফ্রিকার দেশগুলোর বাংলাদেশের কাছ থেকে শিক্ষা নেওয়া প্রয়োজন” শীর্ষক কোনো মন্তব্য বারাক ওবামা করেননি

৪. পদ্মা সেতুর প্রথম ভিত্তিপ্রস্তর সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া স্থাপন করেননি

৫. ‘পঁচাত্তরের হাতিয়ার গর্জে উঠুক আরেকবার’ এ ধরণের মন্তব্য কি বিএনপি সংশ্লিষ্ট কোনো নেতা করেননি?

৬. পাঠ্যসূচির পরিবর্তন নিয়ে সাংসদ ফখরুল ইমামের বক্তব্যটি মিথ্যা

৭. সাফ গেমসে নারী ফুটবল কি জিয়াউর রহমান চালু করেছিলেন?

৮. বিরোধীদলীয় নেত্রী খালেদা জিয়াকে কি ভারতের প্রধানমন্ত্রী বিমানবন্দরে অভ্যর্থনা জানিয়েছিলেন?

৯. এশিয়ার প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া নন

১০. মাশরাফির ৫১০ কোটি টাকার সম্পদ শীর্ষক সংবাদটি মিথ্যা

RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img