ঈদে মাহিয়া মাহি চামড়া ব্যবসা করবেন দাবিতে সময় টিভি কোনো ফটোকার্ড প্রকাশ করেনি

আগামী ১৭ জুন বাংলাদেশে ঈদ উল আজহা পালিত হবে। এর প্রেক্ষিতে ঢালিউড অভিনেত্রী মাহিয়া মাহির ছবি ব্যবহার করে “ঈদে চা’ম’ড়া ব্যবসা করবেন মাহি।” শীর্ষক শিরোনামে মূলধারার গণমাধ্যম সময় টিভির লোগো সম্বলিত একটি ফটোকার্ড ইন্টারনেটে প্রচার করা হয়েছে।

মাহি

উক্ত দাবিতে ফেসবুকে প্রচারিত কিছু পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, অভিনেত্রী মাহিয়া মাহি আসন্ন ঈদ উল আজহায় চামড়া ব্যবসা করবেন দাবিতে সময় টিভি কোনো সংবাদ বা ফটোকার্ড প্রকাশ করেনি বরং ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় সময় টিভির ডিজাইনের আদলে এই ভুয়া ফটোকার্ডটি তৈরি করা হয়েছে। 

এ বিষয়ে অনুসন্ধানে শুরুতে দাবিটির সূত্রপাতের খোঁজে একাধিক ফেসবুক মনিটরিং টুল ব্যবহার করে সম্ভাব্য প্রথম পোস্টটি খুঁজে পায় রিউমর স্ক্যানার টিম।

Joni Singh নামের ফেসবুক পেজ থেকে প্রচারিত পোস্টটির ক্যাপশনে লেখা হয়েছে, “-নিজের নাকি গরুর চা’ম’ড়া.!”। কিন্তু, উক্ত পোস্টে এ সংক্রান্ত দাবির বিষয়ে কোনো সূত্র উল্লেখ করা হয়নি। আলোচিত ফটোকার্ডটি পর্যবেক্ষণ করে দেখা যায়, এতে সময় টিভির লোগো রয়েছে এবং এটি প্রকাশের তারিখ ১৪ জুন, ২০২৪ তারিখের কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

অতঃপর উক্ত সূত্র ধরে ১৪ জুন তারিখে সময় টিভির ফেসবুক পেজে এ সংক্রান্ত কোনো ফটোকার্ড প্রকাশ করা হয়েছে কিনা তা জানতে ফেসবুক পেজটি পর্যবেক্ষণ করে দেখেছে রিউমর স্ক্যানার। উক্ত দিনে পেজটিতে পোস্ট হওয়া প্রতিটি ফটোকার্ড পর্যবেক্ষণ করেও মাহিয়া মাহির বিষয়ে কোনো ফটোকার্ড প্রকাশের প্রমাণ মেলেনি। সময় টিভির ওয়েবসাইট পর্যবেক্ষণ করেও আসন্ন ঈদে মাহি চামড়া ব্যবসা করবেন দাবিতে কোনো সংবাদ প্রকাশ হওয়ার পক্ষে প্রমাণ মেলেনি।

তাছাড়া, সময় টিভির ফেসবুক পেজে প্রচারিত অন্য ফটোকার্ডগুলোর সাথে আলোচিত দাবিতে প্রচারিত ফটোকার্ডটির তিনটি অসংগতি লক্ষ্য করা যায়। প্রথমত, সময় টিভির ফেসবুক পেজে প্রচারিত অন্য ফটোকার্ডগুলোর ফন্ট ডিজাইনের সাথে আলোচিত দাবিতে প্রচারিত ফটোকার্ডটির ফন্ট ডিজাইনের পার্থক্য লক্ষ্য করা যায়। দ্বিতীয়ত, সময় টিভি সাধারণত তাদের ফটোকার্ডে ব্যবহৃত ছবির নিচে একটি লাল দাগ ব্যবহার করে যা আলোচিত দাবিতে প্রচারিত ফটোকার্ডটিতে অনুপস্থিত। তৃতীয়ত, প্রচারিত প্রসঙ্গের আসল ছবি না থাকলে কিংবা পুরনো অন্য কোনো ছবি ব্যবহার করলে সময় টিভি তাদের ফটোকার্ডে সাধারণত সংগৃহীত ছবি বা ফাইল ছবি উল্লেখ করে। মাহিয়া মাহির ব্যবহৃত ছবিটি পুরাতন হলেও ফটোকার্ডটিতে সংগৃহীত ছবি কিংবা ফাইল ছবি উল্লেখ করা হয়নি।

Comparison : Rumor Scanner

প্রাসঙ্গিক কি-ওয়ার্ড সার্চ করেও আলোচিত দাবির স্বপক্ষে বিশ্বস্ত সূত্রে কোনো তথ্যপ্রমাণ পাওয়া যায়নি।

আলোচিত ফটোকার্ড প্রচার করা পেজ সম্পর্কে যা জানা গেল

Joni Sing নামের পেজটি বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, ২০২৩ সালের ১৭ নভেম্বর পেজটি চালুর পর এখন পর্যন্ত একাধিকবার নাম পরিবর্তন করা হয়েছে। শুরুতে ‘৭১’ চেতনা – Ekattor Catona’ নাম দেওয়া হলেও চলতি বছরের জানুয়ারিতে নাম বদলে রাখা হয় ‘Binodon – বিনোদন’। পরবর্তীতে গত ২২ মার্চ পেজটির নাম বদলিয়ে করা হয় ‘Tanha’। সর্বশেষ আজ ১৫ জুন বর্তমান নাম রাখা হয়। পেজটি মালয়েশিয়া থেকে একজন ব্যক্তি পরিচালনা করছেন। সাম্প্রতিক সময়ে উক্ত পেজ থেকে প্রচারিত একাধিক ভুয়া খবর(, ২, ৩, )শনাক্ত করে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে রিউমর স্ক্যানার।

মূলত, সম্প্রতি অভিনেত্রী মাহিয়া মাহির ছবি ব্যবহার করে মূলধারার গণমাধ্যম সময় টিভির লোগো সম্বলিত একটি ফটোকার্ড পোস্ট করে দাবি করা হচ্ছে, ঈদে চামড়া ব্যবসা করবেন মাহিয়া মাহি। কিন্তু রিউমর স্ক্যানার টিম যাচাই করে দেখেছে, মাহিয়া মাহি আসন্ন ঈদে চামড়া ব্যবসা করবেন শীর্ষক দাবিতে সময় টিভি কোনো ফটোকার্ড বা খবর প্রকাশ করেনি। প্রকৃতপক্ষে, কোনো রকম তথ্য প্রমাণ ছাড়াই প্রযুক্তির সহায়তায় সময় টিভির ফটোকার্ডের ডিজাইন নকল করে তৈরি আলোচিত ভুয়া এই ফটোকার্ডটি প্রচার করা হয়েছে।

সুতরাং, অভিনেত্রী মাহিয়া মাহি আসন্ন ঈদে চামড়া ব্যবসা করবেন দাবিতে সময় টিভির লোগো ব্যবহার করে ইন্টারনেটে প্রচারিত ফটোকার্ডটি সম্পূর্ণ ভুয়া ও বানোয়াট।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img