শনিবার, জুলাই 20, 2024
spot_img

পরীমনির বাসা ভর্তি বিদেশি কনডম দাবিতে জুম বাংলার ফটোকার্ড বিকৃত করে প্রচার

সম্প্রতি বাংলাদেশের জনপ্রিয় অভিনেত্রী পরীমনির ছবি ব্যবহার করে “পরীমনির বাসা ভর্তি বিদেশি কনডম” শীর্ষক শিরোনামে বা তথ্যে অনলাইন সংবাদমাধ্যম জুম বাংলার লোগো সম্বলিত একটি ফটোকার্ড সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

উক্ত ফটোকার্ড যুক্ত ফেসবুকে প্রচারিত পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, “পরীমনির বাসা ভর্তি বিদেশি কনডম” শিরোনামে বা তথ্যে জুম বাংলা কোনো সংবাদ বা ফটোকার্ড প্রকাশ করেনি বরং ভিন্ন একটি ফটোকার্ড ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় সম্পাদনা করে আলোচিত ফটোকার্ডটি তৈরি করা হয়েছে। 

অনুসন্ধানের শুরুতে জুম বাংলার ফেসবুক পেজ এবং ওয়েবসাইট পর্যবেক্ষণ করে এমন দাবি সম্পর্কিত কোনো সংবাদ বা ফটোকার্ড পাওয়া যায়নি। তবে গত ০২ জুন জুম বাংলার ফেসবুক পেজে পরীমনির একই ছবিযুক্ত “পরীমনির ফ্রিজভর্তি কী, চমকে উঠলেন ভক্তরা” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি ফটোকার্ড পাওয়া যায়। ফটোকার্ড দুইটির তুলনামূলক পার্থক্য করে, এই ফটোকার্ডের সাথে দাবিকৃত ফটোকার্ডের শিরোনাম ব্যতীত সার্বিক বিষয়বস্তুর মিল পাওয়া যায়। 

Comparison : Rumor Scanner

অর্থাৎ, উক্ত ফটোকার্ডটির শিরোনাম এডিট করেই আলোচিত ফটোকার্ডটি তৈরি করা হয়েছে।

পরবর্তীতে, উক্ত পোস্টের মন্তব্যের ঘরে থাকা প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, গত ৩০ তারিখ  নিজের ফেসবুকে একটি ভিডিও প্রকাশ করেন নায়িকা পরীমনি। ভিডিওটিতে দেখা যায়, বাসায় নিজের ফ্রিজ খুলছেন পরীমনি। সেখানে থরে থরে সাজানো আছে মিষ্টির প্যাকেট। অর্থাৎ পুরো ফ্রিজ ভর্তি হয়ে আছে মিষ্টিতে। এমনকি ফ্রিজের উপরেও রাখা আছে মিষ্টির প্যাকেট এবং কেক। আছে দই, মিষ্টি, কেক, লাড্ডুসহ হরেকরকমের বাহারি মিষ্টি। 

অর্থাৎ, পরীমনির ফেসবুক পেজে প্রচারিত একটি ভিডিওকে কেন্দ্র করেই এই সংবাদটি প্রচার করেছে জুম বাংলা।

অতঃপর পরীমনির ফেসবুক পেজ ঘেঁটেও বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত হয়। 

মূলত, গত ৩০ মে “আমার ফ্রিজ এর আত্বকাহিনী!” শিরোনামে নিজের ফ্রিজের ভিডিও ফেসবুকে প্রকাশ করেন চিত্রনায়িকা পরীমনি৷ ভিডিওটিতে তার ফ্রিজে নানা রকমের মিষ্টিজাতীয় খাবার দেখা যায়। এরই প্রেক্ষিতে অনলাইন সংবাদ মাধ্যম জুম বাংলা “পরীমনির ফ্রিজভর্তি কী, চমকে উঠলেন ভক্তরা” শিরোনামে একটি ফটোকার্ড প্রকাশ করে। পরবর্তীতে সেই ফটোকার্ডটি ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় সম্পাদনা করে “পরীমনির বাসা ভর্তি বিদেশি কনডম” শীর্ষক তথ্যে বা শিরোনামে প্রচার করা হয়।

সুতরাং,“পরীমনির বাসা ভর্তি বিদেশি কনডম” শীর্ষক দাবিতে প্রচারিত জুম বাংলার ফটোকার্ডটি এডিটেড বা সম্পাদিত।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img