পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে বিকাশ থেকে ১৪০০ টাকা উপহার দেওয়ার দাবিটি মিথ্যা

সম্প্রতি পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে বিকাশের পক্ষ থেকে ১৪০০ টাকা উপহার দেওয়ার একটি দাবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে। 

Screenshot: Facebook

ফেসবুকে প্রচারিত এমনকিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে
পোস্টগুলোর আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে। 

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে বিকাশের পক্ষ থেকে ১৪০০ টাকা উপহার দেওয়ার দাবিটি সত্য নয় বরং বিকাশের ওয়েবসাইট নকল করে তৈরি ভুয়া ওয়েবসাইট থেকে প্রতারণার উদ্দেশ্যে উপহার প্রদানের এই প্রলোভন দেখানো হচ্ছে। 

গুজবের সূত্রপাত

অনুসন্ধানে দেখা যায়, উপহার প্রদানের উক্ত দাবিটি বিকাশের ওয়েবসাইট নকল করে তৈরি ভুয়া ওয়েবসাইট থেকে ছড়িয়েছে। এমন কয়েকটি ভুয়া ওয়েবসাইট দেখুন এখানে এবং এখানে। আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে এবং এখানে। 

Screenshot: fake website

উপহার দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে উক্ত ভুয়া ওয়েবসাইটটিতে যা করতে বলা হচ্ছে-

Screenshot: fake website

এরপর প্রদর্শিত ফর্মটি পূরণ করতে বলা হয়।

Screenshot: fake website

এরপর অভিনন্দন জানিয়ে টাকা উপহার পাওয়ার জন্য যোগ্য বিবেচিত হওয়ার কথা বলা হয়।

Screenshot: fake website

পরের ধাপে বিকাশ নাম্বার, বিকাশের পিন এবং বিকাশের ব্যালেন্স জানতে চাওয়া হয়।

Screenshot: fake website

এরপর ভেরিফিকেশন কোড চাওয়া হয়।

Screenshot: fake website

এরপর অভিনন্দন জানিয়ে সফলভাবে বিকাশ নাম্বারটি সংযুক্ত হওয়ার কথা বলা হয়।

Screenshot: fake website

শেষ ধাপে একটি বক্স থেকে লেখা কপি করে ১০টি ফেসবুক পোস্টে কমেন্ট করতে বলা হচ্ছে।

Screenshot: fake website

এরপর অভিনন্দন জানিয়ে সফলভাবে আবেদনটি সম্পন্ন হওয়ার কথা বলা হয়। কিছুক্ষনের মধ্যে বিকাশ নাম্বারে টাকা যাওয়ার কথা বলা হয়েছে। ১০ টি পোস্টে কমেন্ট না করলে আবেদনটি বাতিল করার কথাও বলা হচ্ছে।

Screenshot: fake website
বিকাশ কি এমনকোনো অফার দিচ্ছে?

যে ওয়েবসাইট থেকে এই উপহার দেওয়ার প্রলোভন দেখানো হচ্ছে সেটি বিকাশের লোগো ব্যবহার করে তৈরি ভুয়া একটি ওয়েবসাইট। 

Screenshot: fake website

বিকাশের অফিশিয়াল ওয়েবসাইট কিংবা ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে এমন কোনো অফারের তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি।

এছাড়াও উপরের প্রদর্শিত সবগুলো প্রক্রিয়া সফলভাবে সম্পন্ন করে ক্যাম্পেইনটির সত্যতা যাচাই করে দেখেছে রিউমর স্ক্যানার টিম। সেখানে যেকোন ভুল নম্বর কিংবা ভুল তথ্য দিলেও সফলভাবে  রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন হওয়ার কথা বলা হয়। শেষ ধাপের পর আর টাকা পাওয়া যায়নি বিষয়টি নিশ্চিত হয় রিউমর স্ক্যানার টিম। 

অর্থাৎ, উপরোক্ত তথ্য উপাত্ত পর্যালোচনা করলে এটা স্পষ্ট যে, এটি একটি ভুয়া ক্যাম্পেইন। প্রকৃতপক্ষে বিকাশের পক্ষ থেকে এমন কোনো অফার দেওয়া হচ্ছে না।

বিষয়টি অধিকতর নিশ্চিতের জন্য রিউমর স্ক্যানারের পক্ষ থেকে বিকাশের কাস্টমার কেয়ারে যোগাযোগ করা হলে সেখান থেকে জানানো হয়, 

‘সম্প্রতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে, কিছু প্রতারক চক্র বিভিন্ন নকল ওয়েবসাইট তৈরি করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বা অন্য কোনো মাধ্যমে নানা ধরনের মিথ্যা অফার দেখিয়ে বিকাশ গ্রাহকদের টাকা এবং বিভিন্ন তথ্য হাতিয়ে নেয়ার চেষ্টা করছে। বর্তমানে বিকাশ এ ধরনের কোনো অফার ঘোষণা করেনি এবং উক্ত অফারগুলোর সাথে বিকাশ-এর কোনো সম্পর্ক নেই। তাই, এসব মিথ্যা অফারের লোভে পড়ে কিংবা প্রতারিত হয়ে এই ধরনের কোনো ওয়েবসাইট অথবা অন্য কোনো মাধ্যমে কোনো লেনদেন করবেন না এবং আপনার বিকাশ একাউন্ট নাম্বার, পিন, ভেরিফিকেশন কোড বা অন্য কোনো তথ্য দিবেন না। এছাড়া এ ধরনের ওয়েবসাইটের লিংক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করা থেকে বিরত থাকবেন। মনে রাখবেন, বিকাশ কখনোই আপনার বিকাশ একাউন্টের পিন ও ভেরিফিকেশন কোড জানতে চায় না।’

Screenshot: Statement from Bkash Customer Care

মূলত, পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে বিকাশের পক্ষ থেকে গ্রাহকদের ১৪০০ টাকা উপহার দেওয়ার দাবিতে একটি তথ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। তবে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে জানা যায়, বিকাশের পক্ষ থেকে এমন কোনো অফার ঘোষণা করা হয়নি। প্রকৃতপক্ষে বিকাশের লোগো ব্যবহার করে বিকাশের ওয়েবসাইটের আদলে তৈরি ভুয়া ওয়েবসাইটের মাধ্যমে প্রতারণার উদ্দেশ্যে উক্ত দাবিটি প্রচার করা হচ্ছে। 

উল্লেখ্য, ইতিপূর্বে একাধিকবার বিকাশের ওয়েবসাইট নকল করে প্রতারণার উদ্দেশ্যে উপহারের প্রলোভন দেখানো হয়। সেসময় উক্ত বিষয়গুলোকে মিথ্যা হিসেবে শনাক্ত করে ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে রিউমর স্ক্যানার।

সুতরাং, পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে বিকাশের পক্ষ থেকে ১৪০০ টাকা উপহার দেওয়ার দাবিটি সম্পূর্ণ মিথ্যা। 

তথ্যসূত্র

RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img