শনিবার, জুলাই 20, 2024
spot_img

এসএসসি পরীক্ষা পেছানোর গুজব টিকটকে

সম্প্রতি, ‘ফেব্রুয়ারিতে রোজা হওয়ায় মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) পরীক্ষা পিছিয়ে এপ্রিলের ১ তারিখ থেকে শুরু হবে’ শীর্ষক দাবিতে একটি তথ্য শর্ট ভিডিও শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম টিকটকে প্রচার করা হয়েছে।

এসএসসি পরীক্ষা পেছানোর

উক্ত দাবিতে টিকটকে প্রচারিত কিছু পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, রোজার কারণে এসএসসি পরীক্ষা পিছিয়ে এপ্রিলের ১ তারিখ থেকে শুরু হওয়ার দাবিটি সঠিক নয় বরং এসএসসি পরীক্ষা পূর্বনির্ধারিত সময়সূচি অনুযায়ী চলতি বছরের ১৫ ফেব্রুয়ারি থেকেই শুরু হবে।

অনুসন্ধানের শুরুতে কি ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে মূলধারার গণমাধ্যম প্রথম আলো’র অনলাইন সংস্করণে ২০২৩ সালের ২১ ডিসেম্বর ‘এসএসসি ২০২৪ পরীক্ষার রুটিন’ শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

উক্ত প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ২০২৪ সালে এসএসসি পরীক্ষা আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হবে।

পরবর্তীতে ‘মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড, ঢাকা’র ওয়েবসাইটে গত ২১ ডিসেম্বর প্রকাশিত ২০২৪ সালের এসএসসি পরীক্ষার সময়সূচি খুঁজে পাওয়া যায়।

Routine Collage by Rumor Scanner

উক্ত সময়সূচি অনুযায়ী এ বছরের এসএসসি পরীক্ষা আগামী ফেব্রুয়ারি মাসের ১৫ তারিখ শুরু হবে। আর পরীক্ষা শেষ হবে আগামী ১২ মার্চ। ব্যবহারিক পরীক্ষা আগামী ১৩ মার্চ থেকে ২০ মার্চের মধ্যে অনুষ্ঠিত হবে।

এছাড়াও, গণমাধ্যম, শিক্ষা মন্ত্রনালয় কিংবা সংশ্লিষ্ট অন্য কোনো নির্ভরযোগ্য সূত্রে এখন পর্যন্ত রোজার কারণে চলতি বছরের এসএসসি পরীক্ষার সময়সূচি পরিবর্তন সম্পর্কিত কোনো তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি।

মূলত, সম্প্রতি ‘ফেব্রুয়ারিতে রোজা হওয়ায় মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) পরীক্ষা পিছিয়ে এপ্রিলের ১ তারিখ থেকে শুরু হবে’ শীর্ষক দাবিতে একটি তথ্য টিকটকে প্রচার করা হয়েছে। তবে অনুসন্ধানে উক্ত দাবিটি’র সত্যতা খুঁজে পাওয়া যায়নি। প্রকৃতপক্ষে, এসএসসি পরীক্ষা পূর্বনির্ধারিত সময়সূচি অনুযায়ী চলতি বছরের ১৫ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হবে।

উল্লেখ্য, পূর্বে ২০২৪ সালের এসএসসি পরীক্ষার ভুয়া রুটিন প্রচার করা হলে তা শনাক্ত করে ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে রিউমর স্ক্যানার।

সুতরাং, ফেব্রুয়ারিতে রোজা হওয়ায় চলতি বছরের এসএসসি পরীক্ষা পিছিয়ে এপ্রিলের ১ তারিখ থেকে শুরু হওয়ার তথ্যটি সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img