শনিবার, এপ্রিল 13, 2024
spot_img

চটকদার থাম্বনেইল ব্যবহার করে সেতুমন্ত্রীর পদত্যাগের ভুয়া সংবাদ প্রচার

সম্প্রতি “সেতু মন্ত্রীর পদত্যাগ এবং সশস্ত্র বাহিনীকে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ-প্রধানমন্ত্রী” শীর্ষক থাম্বনেইল ব্যবহার করে ৯ মিনিট ২৩ সেকেন্ডের একটি ভিডিও ফেসবুক এবং ইউটিউবে প্রচার করা হয়েছে।

সম্প্রতি “সেতু মন্ত্রীর পদত্যাগ এবং সশস্ত্র বাহিনীকে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ-প্রধানমন্ত্রী” শীর্ষক থাম্বনেইল ব্যবহার করে ৯ মিনিট ২৩ সেকেন্ডের একটি ভিডিও ফেসবুক এবং ইউটিউবে প্রচার করা হয়েছে। 

Screenshot from Facebook.

ফেসবুকে প্রচারিত ভিডিওটি দেখুন এখানে। আর্কাইভ দেখুন এখানে। 

ইউটিউবে প্রচারিত ভিডিওটি দেখুন এখানে। আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, বাংলাদেশের সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের পদত্যাগ করেননি বরং অধিক ভিউ পাওয়ার আশায় ভিডিওর থাম্বনেইলে উক্ত শিরোনাম ব্যবহার করেছে।

গত ২১ মার্চ Padma TV নামের একটি ইউটিউব চ্যানেলে ‘এইমাত্র পাওয়া খবর’ শিরোনামে “সেতু মন্ত্রীর পদত্যাগ এবং সশস্ত্র বাহিনীকে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ-প্রধানমন্ত্রী” শীর্ষক থাম্বনেইল ব্যবহার করে আলোচিত ভিডিওটি প্রকাশ করা হয়। একই ভিডিও ‘Padma TV’ এর ফেসবুক পেজেও প্রচার করা হয়। 

ভিডিওটি পর্যবেক্ষণ করলে দেখা যায়, এটি কয়েকটি প্রতিবেদন নিয়ে তৈরি একটি নিউজ বুলেটিন ভিডিও। 
৯ মিনিট ২৩ সেকেন্ড ভিডিওর ৩ মিনিট ৩৮ সেকেন্ড সময়ে সেতুমন্ত্রীর বিষয়ে বলা হয়। সেখানে বলা হয়, “সেতুমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি বিএনপির। গত রোববার ভোরে পদ্মাসেতুর শিবচর প্রান্তে বাসের ফিটনেস সার্টিফিকেট না থাকা সত্ত্বেও বাসটির রুট পারমিট হওয়ার পরেও মহাসড়কে যাত্রী পরিবহন করায় ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটে। ফলে ২১টি প্রাণ ঝড়ে যায়। এতে গভীর শোক ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছে বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটি। গতকাল সোমবার রাতে দলের নীতিনির্ধারণী ফোরামের সভায় নিহতের আত্মার মাগফেরাত কামনা করা হয় এবং পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানানো হয়। সভা মনে করে এই দুর্ঘটনার জন্য সরকারের সড়ক বিভাগ দায়ী। এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনার সব দায় নিয়ে সেতুমন্ত্রীর অবিলম্বে পদত্যাগ করা উচিত। আজ মঙ্গলবার বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।”

এছাড়া, সম্পূর্ণ ভিডিও প্রতিবেদনে কোথাও সেতুমন্ত্রী পদত্যাগ করেছেন এমন তথ্য দেওয়া হয়নি। সেখানে কেবল ‘বাস দুর্ঘটনার দায়ভার নিয়ে সেতুমন্ত্রীর পদত্যাগ করা উচিত’ বিএনপির এমন দাবি সম্পর্কে জানানো হয়।

উক্ত সূত্র ধরে প্রাসঙ্গিক কি ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে, মূলধারার সংবাদ মাধ্যম দৈনিক কালের কণ্ঠের অনলাইন সংস্করণে গত ২১ মার্চ  “ওবায়দুল কাদেরের পদত্যাগ দাবি বিএনপির” শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়। 

Screenshot: Kaler Kantho.

প্রতিবেদনটিতে বলা হয়, “সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের পদত্যাগ দাবি করেছে বিএনপি। পদ্মা সেতুর শিবচর প্রান্তে বাস দুর্ঘটনার জন্য সরকারের সড়ক বিভাগকে দায়ী করে সেতুমন্ত্রীর পদত্যাগ করা উচিত বলেও মনে করে দলটি। মঙ্গলবার (২১ মার্চ) দুপুরে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ দাবি তোলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। দলের স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।”

পাশাপাশি, দেশীয় ও আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সম্পর্কিত সর্বশেষ সংবাদ অনুসন্ধান করে সেখানে তার পদত্যাগ করার কোনো সংবাদ পাওয়া যায়নি।

এছাড়া, সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটেও এখন অবধি ওবায়দুল কাদেরকে মাননীয় মন্ত্রী হিসেবে দেখানো রয়েছে।  

Screenshot: BRTA

অর্থাৎ, প্রচারিত ভিডিও’র বিস্তারিত প্রতিবেদন এবং এবিষয়ে গণমাধ্যমের প্রতিবেদন পর্যালোচনা এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটের তথ্যের ভিত্তিতে এটা স্পষ্ট যে, সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের পদত্যাগ করেননি বরং বাস দুর্ঘটনার জন্য বিএনপি সেতুমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি করেছে। 

মূলত, ‘Padma TV’ নামের একটি ইউটিউব এবং ফেসবুক পেজে কয়েকটি প্রতিবেদন নিয়ে তৈরি একটি সংবাদ বুলেটিন ভিডিও প্রচার করা হয়। মূল ভিডিও প্রতিবেদনে বিএনপি সেতুমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি করেছে বলা হলেও অধিক ভিউর আশায় থাম্বনেইলে ‘সেতুমন্ত্রীর পদত্যাগ’ শীর্ষক শিরোনাম ব্যবহার করে বিভ্রান্তিকর তথ্য প্রচার করা হয়। 

উল্লেখ্য, ক্যাপশন এবং থাম্বনেইলে চটকদার শিরোনাম ব্যবহার করে বিভিন্নসময়ে বিভ্রান্তিকর তথ্য প্রচার করা হচ্ছে। উক্ত ঘটনায় পূর্বেও ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে রিউমর স্ক্যানার। 

সুতরাং, বাস দুর্ঘটনায় বিএনপি কর্তৃক সেতুমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি সম্পর্কিত একটি ভিডিওতে চটকদার থাম্বনেইল ব্যবহার করে ‘সেতুমন্ত্রীর পদত্যাগ’ শীর্ষক দাবি প্রচার করা হচ্ছে; যা মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img