ভারতীয় শিশু ফাইজানকে বাংলাদেশের শিশু দাবি করে আর্থিক সহায়তার নামে প্রতারণা

সম্পতি, ছোট্ট তাহমিদ কে বাচাতে এগিয়ে আসুন, চিকিৎসার জন্য ৬৫/৯০লক্ষ টাকার প্রয়োজন সম্বলিত একটি তথ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে।

ভাইরাল কিছু ফেসবুক পোস্টে দেখুন এখানেএখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, তাহমিদ নামে প্রচারিত ছবিগুলো কোনো বাংলাদেশি শিশুর নয় বরং ছবিগুলো ভারতের মোহাম্মদ ফাইজান নামের এক শিশুর।

রিভার্স ইমেজ সার্চ পদ্ধতির মাধ্যমে ”I’m Losing A Child For The Second Time. Help Me Save My Son’s Life” শিরোনামে ভারতের গণ-অর্থায়ন প্লাটফর্ম ‘Ketto’ এর ওয়েবসাইটে মূল ছবিগুলো খুঁজে পাওয়া যায়।

পাশাপাশি, Ketto এর অফিশিয়াল ফেসবুক পেজ এবং টুইটার একাউন্টে শিশুটির জন্য ফান্ডরাইজিং নিয়ে গত ১৭ নভেম্বরে প্রকাশিত পোস্ট খুঁজে পাওয়া যায়।

মূলত, ছবির শিশুটির নাম মোহাম্মদ ফাইজান, বয়স ০১ বছর। শিশুটি ORAI মিউটেশন নামে একটি রোগে আক্রান্ত এবং ফাইজানের অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপন করতে ৪৫ লাখ রুপি প্রয়োজন।

Image from Ketto

অন্যদিকে, তাহমিদ হাসানের আর্থিক সাহায্যের জন্য আবেদনকৃত ফেসবুক পোস্টগুলোয় উল্লেখিত নাম্বারে (01827680279) রিউমর স্ক্যানারের পক্ষ থেকে একাধিক বার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও প্রত্যেকবার ই নাম্বারটি বন্ধ পাওয়া গিয়েছে। তবে, তাহমিদ হাসান নামে বাস্তবিকভাবে বাংলাদেশের কোনো শিশু রোগাক্রান্ত কিনা কিংবা তার সাহায্যের প্রয়োজন কিনা তা নিশ্চিত করা যায় নি।

আরো পড়ুনঃ আর্থিক প্রতারণার উদ্দেশ্যে ভারতীয় শিশু মানাসবিকে বাংলাদেশের শিশু দাবি করে ভুয়া তথ্য প্রচার

এছাড়াও, তাহমিদ হাসানের সাহায্যের জন্য আবেদনকৃত ফেসবুক পোস্টগুলোয় দুটি মেডিকেল রিপোর্ট সংযুক্ত করা হয়েছে যা প্রকৃতপক্ষে ভুয়া। রিউমর স্ক্যানার টিম এই মেডিকেল রিপোর্টের আসল ফেসবুক পোস্ট খুঁজে পেয়েছে যেটি জুয়াইরিয়া বিনতে হামজা নামের এক শিশুর।

ফাইজান
এডিটেড রিপোর্ট (বায়ে) এবং আসল রিপোর্ট (ডানে)
এডিটেড রিপোর্ট (বায়ে) এবং আসল রিপোর্ট (ডানে)

অর্থাৎ, আর্থিক সহায়তার নামে প্রতারণার উদ্দেশ্যে ভারতীয় শিশুর ছবি সম্বলিত পোস্ট বাংলাদেশের শিশু দাবিতে সামাজিক মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে যা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

[su_box title=”True or False” box_color=”#f30404″ radius=”0″]

  • Claim Review: ছোট্ট তাহমিদ কে বাচাতে এগিয়ে আসুন
  • Claimed By: Facebook Posts
  • Fact Check: False

[/su_box]

তথ্যসূত্র

  1. Ketto FB: https://www.facebook.com/212515512134895/posts/4547130945339975
  2. Ketto Twitter: https://twitter.com/ketto/status/1460940785424027651
  3. Ketto: https://www.ketto.org/fundraiser/savemdfaizan
  4. Save Juairiya Die: https://www.facebook.com/SaveJuairiyaDie/posts/124717679819624
RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img