বিশ্বের তথ্য-যাচাইকারীদের পক্ষ থেকে ইউটিউব (YouTube)-এর CEO-কে খোলা চিঠি

শ্রীমতি সুজান উচিস্কি,

কোভিড-১৯ অতিমারি শুরু হওয়ার পরে প্রায় দুই বছর হয়ে গেছে। সামাজিক সম্প্রীতি, গণতন্ত্র এবং জনস্বাস্থ্যের ক্ষেত্রে অপপ্রচার এবং ভুল তথ্য কতটা ধ্বংসাত্মক হতে পারে, তা বিশ্ব বারংবার দেখেছে। প্রচুর জীবন এবং জীবিকা নষ্ট হয়ে গেছে এবং তার থেকেও গুরুতর বিষয়টি হল, লোকজন অপপ্রচারের কারণে তাদের প্রিয়জনদের হারিয়েছে। তথ্য-যাচাইকারী  (ফ্যাক্ট-চেক) সংস্থাগুলো একটি আন্তর্জাতিক নেটওয়ার্ক হিসেবে, কীভাবে অনলাইনে মিথ্যা ছড়িয়ে পড়ে তা আমরা পর্যবেক্ষণ করিএবংপ্রতিদিন আমরা দেখতে পাই যে, অনলাইনে বিশ্বজুড়ে অপপ্রচার এবং ভুল তথ্য ছড়ানোর একটি অন্যতম প্রধান মাধ্যম হল ইউটিউব। এটি আমাদের বিশ্বব্যাপী তথ্য-যাচাইকারী সম্প্রদায়ের জন্য খুবই উদ্বেগের বিষয়।

সমস্যাটি সমাধানের জন্য নীতি বাস্তবায়ন করতে ইউটিউব-এর তরফে খুব একটা প্রচেষ্টা আমরা দেখতে পাই না। বরং এরপরিবর্তেকিছু বিবেকহীন ব্যক্তিদের ইউটিউব নিজের প্ল্যাটফর্মকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করতে দিচ্ছে, যাতে তাঁরা অন্য মানুষদের স্বকার্যে লাগাতে এবং শোষণ করতে পারে এবং নিজেরা সংগঠিত হতে ও অর্থ সংগ্রহ করতে পারে। বর্তমান ব্যবস্থাগুলো অপর্যাপ্ত বলে প্রমাণিত হয়েছে। এই কারণেই আমরা আপনাকে অপপ্রচার এবং ভুল তথ্য ছড়ানোর বিরুদ্ধে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়ার আহবানজানাচ্ছি এবং তথ্য বাস্তুতন্ত্রের উন্নতি ঘটাতে নীতি এবং পণ্যে হস্তক্ষেপের একটি রোডম্যাপ বিস্তারিতভাবে ব্যাখ্যা করতে অনুরোধ করছি – এবং সেটি যেন বিশ্বের স্বাধীন, নির্দলীয় তথ্য-যাচাইকারী  সংস্থাগুলোর মাধ্যমেই করা হয়।

গত বছরে আমরা দেখেছি যে যড়যন্ত্রকারী গোষ্ঠীগুলোবিভিন্ন সীমান্ত পেরিয়ে মাথা চাড়া দিয়ে উঠছে এবং একসাথে কাজ করছে। যার মধ্যে রয়েছে একটি আন্তর্জাতিক আন্দোলন যেটা জার্মানিতে শুরু হয়েছিল, সেখান থেকে স্পেনে স্থানান্তরিত হয় এবং লাতিন আমেরিকার মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে সবটাই ইউটিউব-এর মাধ্যমে। এদিকে, অন্যান্য লক্ষাধিক ব্যবহারহারী গ্রিক এবং আরবি ভাষায় ভিডিও দেখেছেন, যেগুলি তাদের টিকাকরণ বয়কট করতে বা ঘরোয়া নিরাময় পদ্ধতির মাধ্যমে নিজেদের কোভিডসংক্রমণের চিকিৎসা করতে উৎসাহিত করেছিল। কোভিড  ছাড়াও, ইউটিউব ভিডিওগুলো বছরের পর বছর ধরে ক্যান্সারের মিথ্যা নিরাময় পদ্ধতির প্রচার করে আসছে।

ব্রাজিলে, প্ল্যাটফর্মটিকে সংখ্যালঘু গোষ্ঠীদের প্রতি ঘৃণামূলক বক্তব্যকে বহুগুণে ছড়িয়ে দিতে ব্যবহার করা হয়েছে, যা কয়েক লক্ষ ব্যবহারকারীর কাছে পৌঁছেছে। নির্বাচনগুলোও নিরাপদ নয়। ফিলিপাইনে সেনা শাসনের বছরগুলোতে হওয়া মানবাধিকার লঙ্ঘন এবং দুর্নীতি সংক্রান্ত মিথ্যা বিষয়বস্তু যা দুই মিলিয়নেরও বেশি ব্যক্তি দেখেছে। যা প্রয়াত স্বৈরশাসকের ছেলের সুনাম বাড়াতে ব্যবহার করা হচ্ছে, যিনি ২০২২ সালের নির্বাচনের অন্যতম প্রার্থী।  তাইওয়ানে, গত নির্বাচনটিকে জালিয়াতির ভিত্তিহীন অভিযোগের মাধ্যমে বিপর্যস্ত করে দেওয়া হয়েছিল। সারা বিশ্ব অপপ্রচারের পরিণাম দেখেছিল, যখন একদল হিংস্র জনতা গত বছরের শুরুতে ইউএস. ক্যাপটলকে আক্রমণ করে। যুক্তরাষ্টের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের সন্ধ্যা থেকে পরের দিন পর্যন্ত, “জাল” কাহিনী সমর্থনকারী ইউটিউব ভিডিওগুলো ৩৩ মিলিয়নেরও বেশি বার দেখা হয়েছিল

এত উদাহরণ রয়েছে যে গুণে শেষ করা যাবে না। ওই ভিডিও এবং চ্যানেলগুলোর অনেকগুলোই বর্তমানেও চালু রয়েছে এবং সেগুলোর সবকয়টিই ইউটিউবের নীতিমালার রাডার/র‍্যাডারআওতায় চলে এসেছে, বিশেষ করে ইংরেজি ছাড়া অন্য ভাষা-ভাষী দেশগুলোতে এবং গ্লোবাল সাউথে। আমরা আনন্দিত যে সংস্থাটি ইদানিং এই সমস্যাটি সমাধান করার চেষ্টা করতে কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে, কিন্তু প্ল্যাটফর্মে আমরা প্রতিদিন যা দেখি তার উপর ভিত্তি করে, আমরা মনে করি যে এই প্রচেষ্টাগুলোতে কাজ হয়নি – বা ইউটিউব তাদের কার্যকারিতা প্রমাণ করার জন্য কোনো গুণমানযুক্ত ডেটা তৈরি করেনি।

আপনার কোম্পানির প্ল্যাটফর্ম এখনও পর্যন্ত বিষয়বস্তু মুছে ফেলার বা মুছে না ফেলার মিথ্যা দ্বৈততা হিসেবে অপপ্রচার নিয়ে আলোচনা চালিয়ে গেছে। এটি করার মাধ্যমে, ইউটিউব যা কাজ করবে বলে প্রমাণিত সেটা করার সম্ভাবনা এড়িয়ে যাচ্ছে: একাডেমিক প্রমাণ এবং তার সাথে তথ্য-যাচাইকারী হিসেবে আমাদের অভিজ্ঞতা আমাদের বলে যে, সত্যতা-পরীক্ষিত তথ্য সামনে নিয়ে আসা বিষয়বস্তু মুছে দেওয়ার চেয়ে বেশি কার্যকর। এটি মত প্রকাশের স্বাধীনতাও রক্ষা করে, পাশাপাশি এটি জীবন, স্বাস্থ্য, নিরাপত্তা এবং গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াগুলোর ক্ষতি হওয়ার ঝুঁকি দূর করতে অতিরিক্ত তথ্যের প্রয়োজনীয়তাও স্বীকার করে এবং যেহেতু ইউটিউবে ভিউগুলোর একটি বড় অনুপাত এটির নিজের সুপারিশের অ্যালগোরিদম থেকে আসে, তাই ইউটিউবের এটাও নিশ্চিত করা উচিত যে, এটি নিজের ব্যবহারকারীদের কাছে সক্রিয়ভাবে অপপ্রচারের প্রচার করবে না বা অনির্ভরযোগ্য চ্যানেল থেকে আসা বিষয়বস্তু সুপারিশ করবে না। 

এই সমস্ত কিছু মাথায় রেখে, আমরা কিছু সমাধান প্রস্তাব করছি, যেগুলো ইউটিউবে অপপ্রচার এবং ভুল তথ্যের প্রচার কমানোর ক্ষেত্রে একটা বিরাট পার্থক্য তৈরি করবে। 

  1. প্ল্যাটফর্মে অপপ্রচার সম্পর্কে অর্থপূর্ণ স্বচ্ছতার প্রতিশ্রুতি: ইউটিউবের উচিৎ বিভিন্ন ভুল তথ্যের প্রচারণার উৎস, তাদের নাগাল ও প্রভাব এবং মিথ্যা তথ্যকে বাতিল করার সবচেয়ে কার্যকর উপায়গুলো সম্পর্কে স্বাধীন গবেষণাকে সমর্থন করা। এটিকে অপপ্রচার এবং ভুল তথ্য সম্পর্কে নিজের পূর্ণ মডারেশন নীতিও প্রকাশ করতে হবে, যার মধ্যে থাকবে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ব্যবহার এবং কোন ডেটা এটিকে চালনা করে, সে সংক্রান্ত তথ্য।
  2. আইনী প্রতিপালনের জন্য বিষয়বস্তু অপসারণ ছাড়াও, ইউটিউবকে ভিডিওগুলোতে স্পষ্টভাবে আরোপিত বা অতিরিক্ত ভিডিও সামগ্রী হিসেবে থাকা প্রসঙ্গটি জানানো এবং মিথ্যা উন্মোচন করার উপর গুরুত্ব আরোপ করতে হবে। এটা শুধুমাত্র দায়িত্ব নিয়ে একটা অর্থপূর্ণ এবং সুকাঠামোযুক্ত সহযোগিতায় প্রবেশ করার মাধ্যমে এবং বিশ্বব্যাপী সেইসব স্বাধীন তথ্য-যাচাইকারী প্রচেষ্টাগুলোতে পদ্ধতিগতভাবে বিনিয়োগ করার মাধ্যমে হতে পারে, যে প্রচেষ্টাগুলি এই সমস্যাগুলি সমাধান করার জন্য কাজ করছে।
  3. সেইসব বারংবার অপরাধ করা অপরাধকারীদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে, যারা এমন বিষয়বস্তু বানায়, যেটি ক্রমাগতভাবে অপপ্রচার এবং ভুল তথ্য হিসেবে নিশানাঙ্কিত হয়, বিশেষ করে যারা সেই বিষয়বস্তু থেকে প্ল্যাটফর্মের মধ্যে ও বাইরে উল্লেখযোগ্য পরিমাণের অর্থ উপার্জন করে এবং সেটা ভুল তথ্যের এই ধরনের উৎসের বিষয়বস্তু প্রচার করা থেকে ইউটিউবের সুপারিশ অ্যালগোরিদমকে বিরত রেখে করে।
  4. ইংরেজি ছাড়াও অন্যান্য ভাষায় অপপ্রচার ও ভুল তথ্যের বিরুদ্ধে বর্তমান ও ভবিষ্যত প্রচেষ্টা প্রসারিত করতে হবে এবং দেশ- এবং ভাষা-নির্দিষ্ট ডেটা, সেইসাথে যেকোনো ভাষায় কার্যকর ট্রান্সক্রিপশন পরিষেবা প্রদান করতে হবে।

আমরা আশা রাখি যে জনসাধারণের ভালোর জন্য এবং ইউটিউবকে সেইরকম একটি প্ল্যাটফর্ম বানানোর জন্য আপনি এই ধারণাগুলোকে রূপায়িত করার কথা বিবেচনা করবেন, যাতে প্ল্যাটফর্মটি অপপ্রচার এবং ভুল তথ্যকে এটির ব্যবহারকারী এবং বৃহত্তর সমাজের বিরুদ্ধে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করা প্রতিরোধ করতে সর্বোত্তম কাজ করে। আমরা প্রস্তুত এবং ইউটিউবকে সাহায্য করতে সক্ষম। এই বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করতে এবং সহযোগিতার জন্য এগিয়ে যাওয়ার উপায় খুঁজতে আমরা আপনার সাথে দেখা করতে চাই এবং এই প্রস্তাবের ক্ষেত্রে আপনার প্রতিক্রিয়ার অপেক্ষায় রইলাম।

Africa Check (Senegal, Nigeria, Kenya, South Africa) / Animal Político – El Sabueso (Mexico)  / Aos Fatos (Brazil) / Bolivia Verifica (Bolivia) / BOOM (India, Myanmar and Bangladesh) / Check Your Fact (USA) / Code for Africa – PesaCheck (Burkina Faso, Burundi, Cameroon, Central African Republic, Côte d’Ivoire, Ethiopia, Ghana, Guinea, Kenya, Mali, Niger, Nigeria Senegal, South Africa, Sudan, Tanzania, Uganda and Zimbabwe) / Colombiacheck (Colombia) / CORRECTIV (Germany) / Cotejo.info (Venezuela) / Chequeado (Argentina) / Delfi Lithuania (Lithuania) / Demagog Association (Poland) / Doğruluk Payı (Turkey) / Dubawa (Nigeria, Ghana, Sierra Leone, Liberia and The Gambia) / Ecuador Chequea (Ecuador) / Ellinika Hoaxes (Greece) / Fact Crescendo (India) / Fact-Check Ghana / FactCheck.org (USA) / FactSpace West Africa / Facta (Italy) / FactcheckNI (UK) / Factly (India) / Factual.ro (Romania) /FactWatch (Bangladesh) / Fakenews.pl (Poland) / Faktist.no (Norway) / Faktograf.hr (Croatia) / Faktoje (Albania) / Fast Check CL (Chile) / Fatabyyano (Middle East and North Africa) / Full Fact (UK) / GRASS – FactCheck Georgia / India Today Group (India) / Istinomer (Serbia) / Istinomjer (Bosnia i Herzegovina) / Hibrid.info (Kosovo) / Knack Magazine (Belgium) / La Silla Vacía (Colombia) / Lead Stories (USA) / Les Surligneurs (France) / Logically (UK) / Lupa (Brazil) / Maldita.es (Spain) / MediaWise (USA) / Mongolian Fact-checking Center (Mongolia) / MyGoPen (Taiwan) / Myth Detector (Georgia) / NewsMobile (India) / Newschecker (India and South Asia) / Newtral (Spain) / Observador – Fact Check (Portugal) / Open Fact-checking (Italy) / OŠTRO (Slovenia) / Pagella Politica (Italy) Poligrafo (Portugal) / PolitiFact (USA) / Pravda (Poland) / Rappler (Philippines) / Raskrinkavanje (Bosnia i Herzegovina) / Re:Check/Re:Baltica (Latvia) / RMIT ABC Fact Check (Australia) Rumor Scanner (Bangladesh) / Science Feedback (France) / StopFake (Ukraine) / Stopfals.md (Moldova) / Taiwan FactCheck Center (Taiwan) / Tempo (Indonesia) / Teyit (Turkey) / The Healthy Indian Project/THIP Media (India) / The Journal FactCheck (Ireland) / The Logical Indian (India) / The Quint (India) / The Washington Post Fact-checker (USA) / The Whistle (Israel) / Univision – elDetector (USA) / VERA Files (Philippines) / Verificat (Spain) / Vishvas News (India) / Vistinomer (North Macedonia) / VoxCheck (Ukraine) / Youturn.in (India) / 15min (Lithuania)

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img