ঘূর্ণিঝড় মোখার তাণ্ডবের দৃশ্য দাবিতে একাত্তর টিভিতে সোমালিয়ার বন্যার ভিডিও প্রচার

সম্প্রতি,”ঘূর্ণিঝড়ের আসল রূপ দেখলো মিয়ানমার” শীর্ষক ক্যাপশনে একটি ভিডিও মূলধারার ইলেকট্রনিক গণমাধ্যম একাত্তর টিভির ফেসবুক পেজ এবং ইউটিউবে প্রচার করা হচ্ছে।

যা দাবি করা হচ্ছে

একাত্তর টিভির ইউটিউব চ্যানেল এবং ফেসবুক পেজে “মোকার আসল রূপ দেখলো মিয়ানমার” শীর্ষক থাম্বনেল টেক্সট এবং “আসল ঘূর্ণিঝড়ে তছনছ মিয়ানমার” শীর্ষক শিরোনামে মিয়ানমারে ঘূর্ণিঝড় মোখার অবস্থার তথ্য তুলে ধরতে গত ১৪ মে ৭ মিনিট ১৮ সেকেন্ডের একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।

একাত্তর টিভির ফেসবুক পেজে প্রচারিত ভিডিওটি দেখুন এখানে (আর্কাইভ)।

একাত্তর টিভির ইউটিউব চ্যানেলে প্রচারিত ভিডিওটি দেখুন এখানে (আর্কাইভ)।

পরবর্তীতে একই ভিডিওটি একই দাবিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বিভিন্ন অ্যাকাউন্ট ও পেজ থেকে প্রচার করা হয়। পোস্ট গুলো দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)।

একই দাবিতে টিকটকে প্রচারিত ভিডিও দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, একাত্তর টিভির ইউটিউব চ্যানেল ও ফেসবুক পেজে “ঘূর্ণিঝড়ের আসল রূপ দেখলো মিয়ানমার” শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত ভিডিও প্রতিবেদনের ১ থেকে ১৪ সেকেন্ড এর ভিডিও ফুটেজটি ঘূর্ণিঝড় মোখার তাণ্ডবের ঘটনার দৃশ্য নয় বরং এটি এটি গত এপ্রিল মাসে সোমালিয়াতে হওয়া বন্যার ভিডিও।

ভিডিওটির কিছু কি-ফ্রেম রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে সোমালিয়ার “Action for Women & Children Concern” এনজিও এর টুইটার অ্যাকাউন্টে গত ২৯ এপ্রিলে টুইটকৃত একটি ভিডিও পাওয়া যায়। যার সাথে মিয়ানমারে ঘূর্ণিঝড় মোখায় তাণ্ডবের দৃশ্য দাবিতে একাত্তর টিভির ফেসবুক পেজ এবং ইউটিউব চ্যানেলে প্রচারিত ভিডিওর ১ থেকে ১৪ সেকেন্ড পর্যন্ত কিছু দৃশ্যের হুবহু মিল খুঁজে পাওয়া যায়।

Video Comparison by Rumor Scanner

পরবর্তীতে, উক্ত তথ্যের সূত্র ধরে প্রাসঙ্গিক কি ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে ‘Meteored’ নামের একটি ইউটিউব চ্যানেলে  “Severe flooding in Somalia” শীর্ষক শিরোনামে গত ২৯ এপ্রিলে প্রচারিত ভিডিওর সাথে একাত্তর টিভির ফেসবুক পেজ এবং ইউটিউব চ্যানেলে প্রচারিত ভিডিওর মিল খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot from Youtube

এছাড়া, অনুসন্ধানের মাধ্যমে ‘Universal TV’ নামক ইউটিউব চ্যানেলে “Roob mahiigan ah oo burbur geestay oo ka da’ay Xamar” শীর্ষক শিরোনামে গত ২৮ এপ্রিল তারিখে প্রকাশিত একটি ভিডিও পাওয়া যায়। উক্ত ভিডিওতে থাকা স্থাপনার সাথে মিয়ানমারে মোখার তাণ্ডবের দৃশ্যদাবিতে প্রচারিত ভিডিওতে থাকা স্থাপনার মিল পাওয়া যায়।

এছাড়া, অনুসন্ধানের মাধ্যমে ‘Universal TV’ নামক ইউটিউব চ্যানেলে “Roob mahiigan ah oo burbur geestay oo ka da’ay Xamar” শীর্ষক শিরোনামে গত ২৮ এপ্রিল তারিখে প্রকাশিত একটি ভিডিও পাওয়া যায়। উক্ত ভিডিওতে থাকা স্থাপনার সাথে মিয়ানমারে মোখার তাণ্ডবের দৃশ্যদাবিতে প্রচারিত ভিডিওতে থাকা স্থাপনার মিল পাওয়া যায়।

VideoComparison by Rumor Scanner

এপ্রিল মাসে সোমালিয়ায় বন্যার বিষয়ে অধিকতর সত্যতা যাচাই অনুসন্ধান করে রিউমর স্ক্যানার টিম।

অনুসন্ধানের মাধ্যমে জাতিসংঘের ত্রাণ বিষয়ক ওয়েবসাইট ‘Reliefweb’ এ “Somalia: Gu rainy season 2023 Flash Floods Update No. 3 (13 April 2023)” শীর্ষক শিরোনামে গত ১৩ এপ্রিলে প্রকাশিত  প্রতিবেদনে সেই সময়ে সোমালিয়াতে বন্যা হওয়ার তথ্যের সত্যতা পাওয়া যায়।

Screenshot from Reliefweb

মূলত, গত এপ্রিল মাসে সোমালিয়াতে বন্যা হলে সেই সময়ের বন্যার কিছু ভিডিও ইন্টারনেটে প্রচারিত হয়। তবে, সম্প্রতি ঘূর্ণিঝড় মোখা মিয়ানমারে আঘাত হানলে একাত্তর টিভি সোমালিয়ার ঐ বন্যার ভিডিওকে মিয়ানমারে ঘূর্ণিঝড় মোখার তাণ্ডবের দৃশ্য দাবিতে তাদের ফেসবুক পেজ এবং ইউটিউব চ্যানেলে প্রচার করে।

প্রসঙ্গত, গত ১৪ মে ঘূর্ণিঝড় মোখা আঘাত হানে। 

এর প্রভাবে মিয়ানমারের বিভিন্ন জায়গায় বিশেষ করে অস্থায়ী আভাস ভেঙ্গে পড়ে এবং টিনের বাড়িঘরের চাল উড়ে যায়। এই আর্টিকেল লেখার আগ পর্যন্ত মিয়ানমারে ঘূর্ণিঝড় মোখায় প্রায় ১৪৫ জন ব্যক্তির মৃত্যুর সংবাদ পাওয়া যায়।

উল্লেখ্য, ইতঃপূর্বে ঘূর্ণিঝড় মোখা নিয়ে ইন্টারনেটে বি ছড়িয়ে পড়া একাধিক ভুল তথ্য শনাক্ত করে ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে রিউমর স্ক্যানার। এমন কিছু প্রতিবেদন দেখুন এখানে, এখানে এবং এখানে

সুতরাং, ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত সোমালিয়ার বন্যার ভিডিওকে মিয়ানমারে মোখার তাণ্ডবের দৃশ্য দাবিতে একাত্তর টিভিরফেসবুক পেজ এবং ইউটিউবে চ্যানেলে প্রচারিত হয়; যা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img