বৃহস্পতিবার, জুলাই 25, 2024
spot_img

রাস্তায় বানর আসার ভিডিওটি ভারতের অযোধ্যার নয়, থাইল্যান্ডের 

গত ২২ জানুয়ারি অযোধ্যায়র রামমন্দির উদ্বোধন করা হয়। এরই প্রেক্ষিতে অযোধ্যায় বিপুল সংখ্যক বানর এসেছে দাবিতে একটি ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়েছে। 

ভিডিওটি ফেসবুকে পোস্ট করে ক্যাপশনে বলা  হয়েছে, রাম লালার ভব্য মূর্তি অযোধ্যায় পৌছানোর খবর ছড়িয়ে পড়তেই প্রভু শ্রী রামচন্দ্রের বানরসেনা বিপুল সংখ্যক অযোধ্যায় যেতে দেখা যাচ্ছে।

বাংলাদেশী ফেসবুক ব্যবহারকারীদের অ্যাকাউন্ট থেকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)।

ভারতীয় ফেসবুক ব্যবহারকারীদের অ্যাকাউন্ট থেকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, রাস্তায় বানর আসার এই ভিডিওটি ভারতের অযোধ্যার নয় বরং এটি থাইল্যান্ডের লপবুরি শহরের পুরোনো ভিডিও। 

অনুসন্ধানের শুরুতে রিভার্স ইমেজ সার্চ করে থাইল্যান্ড ভিত্তিক গণমাধ্যম Sanook.com এর ওয়েবসাইটে ২০২০ সালের ১১ মার্চ “Battle for sour milk Open a clip of hundreds of Lopburi monkeys fighting in front of Phra Kan Shrine” (ইংরেজি অনূদিত) শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত ভিডিওযুক্ত একটি প্রতিবেদন পাওয়া যায়। 

উক্ত প্রতিবেদনটি থেকে জানা যায়, থাইল্যান্ডের লপবুরি শহরে ফর কান শেরিনের (Phra Kan Shrine) সামনে মারপিটে জড়িয়ে পড়েছিল বানরের দুটো দল। মূলত খাবারের জন্য কয়েক শো বানর এই মারপিটে জড়িয়ে পড়েছিল। তারা রাস্তা আটকে মারপিট করায় সাধারণ মানুষ এবং পর্যটকদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছিল।

উক্ত প্রতিবেদনটিতে থাকা ভিডিওটির সাথে আলোচিত ভিডিওটির মিল খুঁজে পাওয়া যায়।

Video Comparison: Rumor Scanner 

এছাড়া, উক্ত প্রতিবেদনটিতে Sasaluk Rattanachai নামক ফেসবুক অ্যাকাউন্টের একটি পোস্ট পাওয়া যায়। 

Screenshot: Facebook

২০২০ সালের ১১ মার্চ করা পোস্টটির ক্যাপশন থেকে জানা যায়, এটি লপবুরি শহরের বানরের লড়াইয়ের দৃশ্য। এছাড়া, পোস্টটিতে থাকা ভিডিও এবং ছবির সাথেও আলোচিত ভিডিওটির মিল রয়েছে। 

পাশাপাশি, সেসময় একই তথ্যে বেশ কয়েকটি থাই গণমাধ্যম সংবাদ প্রকাশ করে। এমন দুইটি প্রতিবেদন দেখুন- Nation Tv এবং New Tv.

একই তথ্যে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমেও প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদন দেখুন- The Sun, Marca এবং Daily Mail। 

অর্থাৎ, রাস্তায় বানর আসার ভিডিওটি ভারতের অযোধ্যার নয়। 

মূলত, গত ২২ জানুয়ারি ভারতের অযোধ্যায় বহুল আলোচিত রামমন্দির উদ্বোধন করেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ১৯৯২ সালের ৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত এই স্থানেই দাঁড়িয়ে ছিল বাবরি মসজিদ। ২০১৯ সালে সুপ্রিম রায়ের পর শুরু হয়েছিল রামমন্দির নির্মাণের কাজ। সম্প্রতি রাম মন্দির উদ্বোধন প্রেক্ষিতে রাস্তায় শত-শত বানর আসার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করে দাবি করা হয়, রাম লালার ভব্য মূর্তি অযোধ্যায় পৌঁছানোর খবর ছড়িয়ে পড়ায় অযোধ্যায় রাস্তায় বিপুল সংখ্যক বানর দেখা যাচ্ছে। তবে রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, আলোচিত দাবিটি মিথ্যা। প্রচারিত ভিডিওটি ভারতের অযোধ্যার নয়। প্রকৃতপক্ষে, ২০২০ সালের থাইল্যান্ডের লপবুরি শহরের ফর কান শেরিনের (Phra Kan Shrine) সামনে খাবারের জন্য মারপিটে জড়িয়ে পড়েছিল বানরের দুটো দল। এটি সেই ঘটনারই একটি ভিডিও।

সুতরাং, থাইল্যান্ডের লপবুরি শহরে বানরের মারামারির ভিডিওকে রাম মন্দির উদ্বোধনের প্রেক্ষিতে অযোধ্যার রাস্তায় বানরের উপস্থিতি দাবিতে ইন্টারনেটে প্রচার করা হয়েছে; যা সম্পূর্ণ মিথ্যা। 

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img