বুধবার, ফেব্রুয়ারি 28, 2024
spot_img

ঘূর্ণিঝড় মোখার কবলে সমুদ্রে আটকে পড়া পর্যটক উদ্ধারের দৃশ্য দাবিতে ভারতের পুরোনো ভিডিও প্রচার

সম্প্রতি, সমুদ্রের উত্তাল স্রোতে আটকে পড়া এক পর্যটককে উদ্ধারের একটি ভিডিওকে ঘূর্ণিঝড় মোখার তাণ্ডব চলাকালীন সময়ের ভিডিও দাবিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হয়েছে। 

ফেসবুকে প্রচারিত এমনকিছু ভিডিও দেখুন এখানে(আর্কাইভ), এখানে(আর্কাইভ), এখানে(আর্কাইভ) এবং এখানে(আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, প্রচারিত ভিডিওটি ঘূর্ণিঝড় মোখার তাণ্ডব চলাকালীন সময়ের নয় বরং  এটি ২০২২ সালে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের দিঘায় উত্তাল সমুদ্রে নেমে স্রোতে তলিয়ে যাওয়া থেকে এক পর্যটককে উদ্ধারের ভিডিও।

যেভাবে ভিডিওটি ঘূর্ণিঝড় মোখার দাবিতে ছড়ালো

অনুসন্ধানের শুরুতে উক্ত দাবিতে ছড়িয়ে পড়া একাধিক ভিডিও পর্যবেক্ষণ করে রিউমর স্ক্যানার টিম। সেখানে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল একাত্তর টিভি’র লোগো দেখতে পাওয়া যায়। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, এক পর্যটককে সমুদ্রের উত্তাল স্রোতে তলিয়ে যাওয়া থেকে উদ্ধার করা হচ্ছে।

Screenshot: Facebook

পরবর্তীতে, অনুসন্ধানের মাধ্যমে একাত্তর টিভি’র ইউটিউব চ্যানেলে ঘূর্ণিঝড় মোখা আঘাত হানার প্রায় ১ সপ্তাহ পূর্বে গত ০৬ মে “আসছে ঘূর্ণিঝড় মোখা, সাবধান না হলেই পড়তে পারেন এমন বিপদে” শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত অনুরুপ ভিডিওটি খুঁজে পাওয়া যায়। 

Screenshot: Ekattor TV Youtube 
Video Comparison by Rumor Scanner
Screenshot: DIGHA LIVE(Subhash Mishra) Youtube
Video Comparison by Rumor Scanner

এছাড়াও ভিডিওটির স্ক্রিনে একটি লেখা প্রদর্শিত হতে দেখা যায়, যেখানে লেখা আছে ‘প্রবল জলোচ্ছ্বাসে গার্ড ওয়াল থেকে ছিটকে ভয়ংকর উত্তাল সমুদ্রে পড়ে তলিয়ে যাওয়ার সময় পর্যটককে উদ্ধার করেন দিঘার স্থানীয় যুবক ও নুনিয়ারা।

তাছাড়া, ভিডিওটিতে কমলারঙের পোশাক পরিহিত উদ্ধারকর্মীদের পোশাকে ‘ওয়েস্ট বেঙ্গল সিভিল ডিফেন্স’ লেখা দেখতে পাওয়া যায়।

Screenshot: DIGHA LIVE(Subhash Mishra) Youtube

উক্ত ভিডিওর সূত্র ধরে অনুসন্ধানের মাধ্যমে ভারতীয় গণমাধ্যম News18 Bangla এর ইউটিউব চ্যানেলে ২০২২ সালের ১৪ আগস্ট  “Digha: দিঘায় উত্তাল সমুদ্র, পর্যটককে তলিয়ে যাওয়ার থেকে বাঁচালেন নুলিয়া” শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত একটি ভিডিও প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়। 

Screenshot: News 18 Bangla Youtube

উক্ত ভিডিওর ঘটনার সাথে উপরে উল্লিখিত একাত্তর টিভি এবং DIGHA LIVE(Subhash Mishra) ইউটিউব চ্যানেলে প্রচারিত ঘটনার হবহু মিল পাওয়া যায়। এবং ভিডিওটি বিশ্লেষণ করে জানা যায়, এটি একই ঘটনায় ভিন্ন কোন থেকে ধারণকৃত একটি ভিডিও।

অর্থাৎ, উপরোক্ত তথ্য উপাত্ত পর্যালোচনা করলে এটা স্পষ্ট যে, উক্ত দাবিতে প্রচারিত ভিডিওটি সাম্প্রতিক সময়ে আঘাত হানা ঘূর্ণিঝড় মোখার নয়।

মূলত, গত ০৬ মে মূলধারার ইলেকট্রনিক গণমাধ্যম একাত্তর টিভি’র ইউটিউব চ্যানেলে “আসছে ঘূর্ণিঝড় মোখা, সাবধান না হলেই পড়তে পারেন এমন বিপদে” শিরোনামে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের দিঘা সমুদ্র সৈকত এলাকায় উত্তাল সমুদ্রের স্রোত থেকে এক পর্যটককে উদ্ধারের একটি পুরোনো ভিডিও প্রচার করা হয়। তবে ঘূর্ণিঝড় মোখাকে কেন্দ্র করে প্রচারিত সচেতনতামূলক ভিডিওকেই ঘূর্ণিঝড় মোখার কবলে সমুদ্রে আটকে পড়া পর্যটক উদ্ধারের ভিডিও দাবিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, ইতঃপূর্বে যুক্তরাষ্ট্রের পুরোনো ভিডিও ঘূর্ণিঝড় মোখার ভিডিও দাবিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে বিষয়টি নিয়ে ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে রিউমর স্ক্যানার। 

সুতরাং, ভারতের পশ্চিমবঙ্গের দিঘা সমুদ্র সৈকতের পুরোনো একটি ভিডিওকে সাম্প্রতিক সময়ে মিয়ানমার ও বাংলাদেশের উপকূলে আঘাত হানা ঘূর্ণিঝড় মোখার কবলে সমুদ্র আটকে পড়া পর্যটক উদ্ধারের ভিডিও দাবিতে প্রচার করা হচ্ছে; যা সম্পূর্ণ মিথ্যা। 

তথ্যসূত্র

RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img