শনিবার, জুলাই 13, 2024
spot_img

সেনাবাহিনী কর্তৃক খালেদা জিয়াকে গ্রেফতারের গুজব

সম্প্রতি, “এইমাত্র খালেদা জিয়াকে গ্রেফতার করলো সেনাবাহিনী” শীর্ষক দাবিতে ভিডিও শেয়ারিং প্লাটফর্ম ইউটিউবে একটি ভিডিও প্রচার করা হয়েছে। 

সেনাবাহিনী কর্তৃক

ইউটিউবে প্রচারিত ভিডিওটি দেখুন এখানে (আর্কাইভ)। 

ফ্যাক্টচেক 

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া গ্রেফতার হয়নি বরং অধিক ভিউ পাওয়ার আশায় ভিন্ন কয়েকটি ভিডিও এবং ছবি যুক্ত করে চটকদার থাম্বনেইল ও শিরোনাম ব্যবহার করে কোনোরূপ তথ্যসূত্র ছাড়াই ভিত্তিহীনভাবে উক্ত তথ্য প্রচার করা হচ্ছে। 

অনুসন্ধানের শুরুতে প্রচারিত ভিডিওটি পর্যবেক্ষণ করে রিউমর স্ক্যানার টিম। উক্ত ভিডিওটি পর্যবেক্ষণ করে দেখা যায়, ভিডিওটি কয়েকটি ভিন্ন ইস্যুর খন্ডিত ভিডিও প্রযুক্তির সাহায্যে যুক্ত করে তৈরি করা হয়েছে। 

২০ মিনিট ৩৩ সেকেন্ডের এই ভিডিওটির শুরুতে কয়েকটি ভিন্ন ঘটনার ভিডিওর খন্ডাংশ দেখানো হয়। পরবর্তীতে ভিডিওটিতে চ্যানেলটির উপস্থাপক আলোচিত দাবিটির উদ্দেশ্যে তিনটি ভিডিও দেখান। 

প্রথম ভিডিওটি দেখানোর আগে আলোচিত ভিডিওটিতে চ্যানেলটির উপস্থাপক বলেন, ‘আজকের ভিডিওটি দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করা হয়েছে। চলুন আমরা ভিডিও স্ক্রিনে চলে যাই পরবর্তীতে বিস্তারিত আলোচনা হবে…।’

ভিডিও যাচাই 

আলোচিত দাবিতে প্রচারিত ভিডিওটিতে দেখানো প্রথম ভিডিওটির অনুসন্ধানে ‘Face The People’ নামক ইউটিউব চ্যানেলে গত ১৬ ডিসেম্বর “নির্বাচনে জনগনের ১৬০০ কোটি টাকা নষ্টের কী দরকার? বাহিনীকে কিছু দিবে, কিছু ভাগাভাগি : ফয়জুল হক” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়। এই ভিডিওটির শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত অংশটুকু আলোচিত দাবিতে যুক্ত করূ হয়েছে। 

Video Comparison : Rumor Scanner 

উক্ত ভিডিওটিতে আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন ব্যক্তিবর্গ তাদের নিজস্ব মতামত ব্যক্ত করেন। 

উক্ত ভিডিওর কোথাও খালেদা জিয়া গ্রেফতার বিষয়ক কোনো তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি। 

পরবর্তী ভিডিওটির অনুসন্ধানে ভিডিওতে থাকা ‘BANGLA NEWS’ এর লোগোর সূত্র ধরে অনুসন্ধানে BANGLA NEWS নামক ফেসবুক পেজে গত ১৮ ডিসেম্বর “সেনাবাহিনীর ভয়ে সরকার!চাঞ্চল্যকর তথ্য দিলেন ব্যারিস্টার ফুয়াদ” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়। এই ভিডিওটির সাথে আলোচিত দাবিতে যুক্ত ভিডিওটির হুবহু মিল খুঁজে পাওয়া যায়। 

Video Comparison : Rumor Scanner 

উক্ত ভিডিওতে ব্যারিস্টার ফুয়াদ সেনাবাহিনীর ভয়ে সরকার শীর্ষক মন্তব্য করেন এবং আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনাবাহিনীর অবস্থান নিয়ে আলোচনা করেন।

আলোচিত দাবিতে প্রচারিত ভিডিওটিতে দেখানো সর্বশেষ ভিডিওটির অনুসন্ধানে কিওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে ‘NAYEEM ELLI’ নামক একটি ইউটিউব চ্যানেলে গত ২০ ডিসেম্বর “বাংলাদেশকে চাপের আহ্বান আম্রিকার।। মার্কিন সংসদে একি প্রস্তাব” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়। এই ভিডিওটির একটি অংশের সাথে আলোচিত দাবিতে যুক্ত সর্বশেষ ভিডিওটির মিল খুঁজে পাওয়া যায়।

Video Comparison : Rumor Scanner 

উক্ত ভিডিওটিতে আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন কৌশল নিয়ে নিজের মনগড়া মতো কথা বলেছেন চ্যানেলটির উপস্থাপক। 

অর্থাৎ আলোচিত দাবিতে খালেদা জিয়াকে গ্রেফতারের কথা বলা হয়েও পুরো ভিডিওতে এ সংক্রান্ত কোনো তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি৷ আলোচিত দাবিতে যুক্ত ভিডিওগুলোও কোনোপ্রকার প্রাসঙ্গিকতা ছাড়াই যুক্ত করা হয়েছে। 

এছাড়া খালেদা জিয়ার গ্রেফতারের মতো কোনো ঘটনা ঘটলে তা নিয়ে দেশীয় মূলধারার গণমাধ্যমে তথ্য প্রকাশ হওয়া অনুমেয়। তবে দেশীয় কোনো গণমাধ্যমে এমন কোনো তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি।

মূলত, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি পাঁচ বছরের সাজা হয়। সেদিন থেকে তিনি কারাবন্দি হন। ২০২০ সালের মার্চে করোনার প্রাদুর্ভাব দেখা দিলে পরিবারের আবেদনের প্রেক্ষিতে সরকার খালেদা জিয়ার দণ্ড ছয় মাসের জন্য স্থগিত করে মুক্তি দেয়। এরপর দফায় দফায় তার মুক্তির মেয়াদ বাড়ানো হচ্ছে এবং তার বিরুদ্ধে মামলা চলমান রয়েছে। এরই প্রেক্ষিতে আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে “এইমাত্র খালেদা জিয়াকে গ্রেফতার করলো সেনাবাহিনী” শীর্ষক দাবিতে একটি ভিডিও প্রচার করা হয়। ভিডিওটি নিয়ে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে জানা যায়, খালেদা জিয়া গ্রেফতার হননি। প্রকৃতপক্ষে অধিক ভিউ পাবার আশায় ভিন্ন ভিন্ন ঘটনার কয়েকটি ভিডিও ক্লিপ এবং ছবি যুক্ত করে তাতে চটকদার থাম্বনেইল ও শিরোনাম ব্যবহার করে কোনোপ্রকার নির্ভরযোগ্য তথ্যসূত্র ছাড়াই আলোচিত দাবিটি প্রচার করা হয়েছে। এছাড়া, গণমাধ্যম কিংবা সংশ্লিষ্ট অন্যকোনো নির্ভরযোগ্য সূত্রে দাবিগুলোর সত্যতা খুঁজে পাওয়া যায়নি।

সুতরাং, সেনাবাহিনীর হাতে গ্রেফতার খালেদা জিয়া শীর্ষক দাবিতে ইন্টারনেটে প্রচারিত তথ্যটি মিথ্যা। 

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img