এক মাস বয়সী একজন ভারতীয় শিশুকে বাংলাদেশি শিশু আতিক দাবি করে আর্থিক প্রতারণা

সম্প্রতি “আপনারা জীবনে তো অনেক কিছুই শেয়ার করলেন পারলে এই ছোট্ট বাচ্চাটির পাশে দাড়ান (আতিক বয়স ৭ মাস) নাভির ভেতরে টিউমার।” শীর্ষক শিরোনামে এক শিশুর কয়েকটি ছবি সংযুক্ত করে একটি মানবিক সাহায্যের আবেদন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে । আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, আতিক নামে প্রচারিত ছবিগুলো বাংলাদেশি কোনো রোগাক্রান্ত শিশুর নয় বরং এগুলো ভারতীয় নাগরিক দেবিকা ও প্রমোদ দম্পতির ১ মাস বয়সী শিশুর ছবি।

রিভার্স ইমেজ সার্চ পদ্ধতির মাধ্যমে, “A rare condition is threatening to take away my only child. Help us!” শীর্ষক শিরোনামে ভারতের গণ-অর্থায়ন প্লাটফর্ম ‘Ketto’ এর ওয়েবসাইটে প্রকাশিত মূল ছবিগুলো খুঁজে পাওয়া যায়।

আতিক
Screenshot from Ketto

পাশাপাশি, ‘Ketto’ এর অফিশিয়াল ফেসবুক পেজটুইটার একাউন্টে শিশুটির জন্য ফান্ডরাইজিং নিয়ে চলতি বছরের ২৬ মার্চে প্রকাশিত পোস্টে একই ছবিগুলো খুঁজে পাওয়া যায়।

এছাড়াও, ‘Ketto’ এর অফিশিয়াল ইউটিউব চ্যানেল থেকে গত ১৭ মার্চে “Born with a terrible deformity on his stomach, he needs surgery to survive” শীর্ষক শিরোনামে গণ-অর্থায়নের জন্য প্রকাশিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়।

মূলত, ছবিগুলো ভারতীয় নাগরিক দেবিকা ও প্রমোদ দম্পতির ১ মাস বয়সী শিশুর। শিশুটি এক্সোম্ফালোস মেজর সংক্রান্ত জটিলতায় আক্রান্ত হয়ে হায়দ্রাবাদের “Ankura Hospital for Women & Children” এ চিকিৎসাধীন আছে। ফান্ডরাইজিং ঐ ওয়েবসাইটের প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, আক্রান্ত শিশুটির চিকিৎসার জন্য ১২ লাখ ইন্ডিয়ান রুপির প্রয়োজন এবং তার চিকিৎসার জন্য ফান্ডরাইজিং কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

এছাড়া, সাম্প্রতিক সময়ে আতিক নামে আর্থিক সাহায্যের জন্য আবেদনকৃত ফেসবুক পোস্টগুলোয় উল্লিখিত ব্যক্তিগত বিকাশ ও নগদ নাম্বার যথাক্রমে (01611944975 ও 01628600429) একাধিক বার যোগাযোগ করার চেষ্টা করে তা বন্ধ পাওয়া যায়।

প্রসঙ্গত, রিউমর স্ক্যানার টিম পূর্বেও বিভিন্ন নাম ব্যবহার করে প্রতারণার উদ্দেশ্যে আর্থিক সাহায্য চেয়ে করা পোস্টগুলোকে শনাক্ত করে একাধিক ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

সুতরাং, আর্থিক সহায়তার নামে প্রতারণার উদ্দেশ্যে এক ভারতীয় শিশুকে বর্তমানে বাংলাদেশের রোগাক্রান্ত শিশু আতিক দাবি করে সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে; যা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

[su_box title=”True or False” box_color=”#f30404″ radius=”0″]

  • Claim Review: আপনারা জীবনে তো অনেক কিছুই শেয়ার করলেন পারলে এই ছোট্ট বাচ্চাটির পাশে দাড়ান (আতিক বয়স ৭ মাস) নাভির ভেতরে টিউমার
  • Claimed By: Facebook Posts
  • Fact Check: False

[/su_box]

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img