বুধবার, জুলাই 24, 2024
spot_img

সারাদেশ থেকে জাতীয় পার্টির প্রার্থী প্রত্যাহার ও দলটির বিএনপিতে যোগদানের বিভ্রান্তিকর দাবি

সম্প্রতি, ‘সারাদেশ থেকে জাতীয় পার্টির প্রার্থী প্রত্যাহার হঠাৎ বিএনপিতে যোগ দিল জাতীয় পার্টি’ শীর্ষক থাম্বনেইল ও একই তথ্য সম্বলিত শিরোনামে একটি ভিডিও ইউটিউবে প্রচার করা হয়েছে।

জাতীয় পার্টির প্রার্থী প্রত্যাহার

ইউটিউবে প্রচারিত এমন ভিডিও দেখুন এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, সারাদেশ থেকে জাতীয় পার্টির প্রার্থী প্রত্যাহার করা এবং জাতীয় পার্টির বিএনপিতে যোগ দেওয়ার মত কোনো ঘটনা ঘটেনি। প্রকৃতপক্ষে, বেশ কয়েকটি আসনে জাতীয় পার্টির প্রার্থীদের নির্বাচন থেকে সরে যাওয়ার ঘোষণার সংবাদকে কেন্দ্র করে অধিক ভিউ পাবার আশায় চটকদার থাম্বনেইল এবং শিরোনাম ব্যবহার করে ভিন্ন ভিন্ন ঘটনার ভিডিওকে ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় যুক্ত করে ভিত্তিহীনভাবে উক্ত দাবিটি প্রচার করা হচ্ছে। 

অনুসন্ধানের শুরুতে আলোচিত ভিডিওটি পর্যবেক্ষণ করে রিউমর স্ক্যানার টিম। এতে দেখা যায়, ভিডিওটির উপস্থাপক, ‘অবশেষে নির্বাচন থেকে প্রার্থী প্রত্যাহার করা শুরু করে দিয়েছে জাতীয় পার্টি। আপনাদেরকে বিস্তারিত দেখানো এই নির্বাচন আসলেই হচ্ছে না বিরোধী দল না থাকার কারণে। জাতিসংঘে বিএনপির চিঠি পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে এবং সেই চিঠির উত্তরে জাতিসংঘ কিভাবে নির্বাচন বানচাল করছে। এছাড়াও যুক্তরাষ্ট্র্য বিএনপিকে দিয়েই সরকার গঠন করবে’ শীর্ষক কথা বলে দর্শকদের উদ্দেশ্যে গণমাধ্যমের একটি প্রতিবেদন ও একজন অনলাইন অ্যাক্টিভিস্টের দুটি ভিডিও দেখান যার সাথে ভিডিওটির থাম্বনেইলে থাকা দাবির কোনো সম্পর্ক নেই।

ভিডিও যাচাই ১

আলোচিত ভিডিওর শুরুতে দেখানো গণমাধ্যমের প্রতিবেদনটির সূত্র অনুসন্ধানে ভিডিওতে দেখানো ‘জাতিসংঘের কাছে বিএনপির চিঠি’ শীর্ষক লেখাটির সূত্র ধরে কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে Kalbela News এর ইউটিউব চ্যানেলে গত ৩১ ডিসেম্বর জাতিসংঘে পাঠানো বিএনপির চিঠিতে কী আছে | UN | BNP | BD Election | Kalbela শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি ভিডিও প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

Video Comparison by Rumor শ্চান্নের

প্রতিবেদনটি পর্যালোচনা করে দেখা যায়, এটি মূলত আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাতিসংঘের হস্তক্ষেপ চেয়ে বিএনপির দেওয়া চিঠিতে কি রয়েছে তা নিয়ে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন। এর সাথে আলোচিত দাবির কোনো সম্পর্ক নেই।

ভিডিও যাচাই ২

পরবর্তীতে মোস্তফা ফিরোজ নামের অনলাইন অ্যাক্টিভিস্টের দেখানো ভিডিওটির সূত্র অনুসন্ধানে ভিডিওর শুরুতে দেখানো অংশে থাকা ‘নির্বাচন ঠেকাতে জাতিসংঘ ও বিদেশিদের হস্তক্ষেপ চেয়ে বিএনপির চিঠি’ শীর্ষক লেখা এবং ভিডিওটির ডান পাশে উপরে থাকা VOICE BANGLA লেখা লোগোটির  সূত্র ধরে কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে Voice Bangla নামক ইউটিউব চ্যানেলে গত ৩১ ডিসেম্বর নির্বাচন ঠেকাতে জাতিসংঘ ও বিদেশিদের হস্তক্ষেপ চেয়ে বিএনপির চিঠি I Mostofa Feroz I Voice Bangla শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়।

Video Comparison by Rumor Scanner

ভিডিওটি পর্যালোচনা করে দেখা যায়, উক্ত ভিডিওটিও বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)-র জাতিসংঘে চিঠি দেওয়াকে নিয়ে তৈরি করা। যাতে ভিডিওতে থাকা ব্যক্তি একাধিক পত্রিকার ওয়েবসাইটে উক্ত বিষয়ে প্রকাশিত প্রতিবেদন পাঠ করে শোনান। তবে ভিডিওটির কোথাও তিনি সারাদেশে থেকে জাতীয় পার্টির প্রার্থী প্রত্যাহার করে নেওয়া বা তাদের বিএনপিতে যোগ দেওয়ার বিষয়ে কিছু বলেননি।

ভিডিও যাচাই ৩ 

আলোচিত ভিডিওতে দেখানো সর্বশেষ ভিডিওটি অনুসন্ধানে পূর্বের ভিডিওর মত শুরুতে দেখানো অংশে থাকা ‘ভোটের মাঠ থেকে সরে দাড়াতে শুরু করেছে জাতীয় পার্টি’ শীর্ষক লেখা এবং VOICE BANGLA এর লোগোর সূত্র ধরে কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে একই নামের ইউটিউব চ্যানেলে গত ৩১ ডিসেম্বর ভোটের মাঠ থেকে সরে দাঁড়াতে শুরু করেছে জাতীয় পার্টিI Mostofa Feroz I Voice Bangla শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়।

Video Comparison by Rumor Scanner

ভিডিওটি পর্যালোচনা করে দেখা যায়, উক্ত ভিডিওতে মূলত সম্প্রতি একাধিক আসন থেকে বিভিন্ন কারণে জাতীয় পার্টির প্রার্থীদের নির্বাচন থেকে সরে দাড়ানোর বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। ভিডিওটিতে তিনি দৈনিক প্রথম আলো এবং ঢাকা পোস্ট এর ওয়েবসাইটে সরে দাঁড়ালেন জাতীয় পার্টির প্রার্থী, বললেন ‘আমি আর পারছি না’  এবং নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন জাপার তিন আসনের প্রার্থী  শিরোনামে প্রকাশিত দুটি প্রতিবেদন পাঠ করে শোনান। যাতে জাতীয় পার্টির একাধিক প্রার্থীর নির্বাচন থেকে সরে যাওয়ার কথা বলা বলেও সারাদেশ থেকে প্রার্থী প্রত্যাহার করার বিষয়ে কিছু বলা হয়নি। এছাড়াও জাতীয় পার্টির বিএনপিতে যোগদান করার বিষয়েও কিছু বলা হয়নি।

পরবর্তীতে সারা দেশে থেকে জাতীয় পার্টির প্রার্থী প্রত্যাহার ও দলটির বিএনপিতে যোগদান করার দাবিটির সত্যতা যাচাইয়ে প্রাসঙ্গিক বিভিন্ন কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমেও কোনো গণমাধ্যম কিংবা কোনো নির্ভরযোগ্য সূত্রে উক্ত দাবির পক্ষে কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

উল্লেখ্য, গত ১৭ ডিসেম্বর ছিল দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থীদের মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন। সেসময়ের মধ্যে জাতীয় পার্টির ১১ জন প্রার্থী দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেন।

মূলত, সম্প্রতি গাজীপুর-১ ও ৫ আসনের জাতীয় পার্টির প্রার্থী এম এম নিয়াজ উদ্দিন নির্বাচন থেকে সরে দাড়ানোর ঘোষণা দেন। এছাড়াও গত ৩১ ডিসেম্বর বরিশাল-২ এবং বরিশাল-৫ আসন ও  বরগুনা-১ আসনের জাতীয় পার্টির প্রার্থীরাও নিজের নির্বাচন থেকে সরে দাড়ানোর ঘোষণা দেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে সম্প্রতি, ‘সারাদেশ থেকে জাতীয় পার্টির প্রার্থী প্রত্যাহার হঠাৎ বিএনপিতে যোগ দিল জাতীয় পার্টি’ শীর্ষক দাবিতে একটি ভিডিও ইন্টারনেটে প্রচার করা হচ্ছে। তবে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে দেখা যায়, তফসিল অনুযায়ী বর্তমানে নির্বাচনে প্রার্থীতা প্রত্যাহারের কোনো সুযোগ নেই  প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ছিল ১৭ ডিসেম্বর। অধিকতর ভিউ পাবার আশায় আলোচিত দাবির থেকে ভিন্ন দুটি ঘটনার ভিডিও সমন্বয় করে তাতে চটকদার থাম্বনেইল ও শিরোনাম ব্যবহার করে কোনোপ্রকার নির্ভরযোগ্য তথ্যসূত্র ছাড়াই আলোচিত দাবিটি প্রচার করা হচ্ছে। পাশাপাশি দেশের নির্ভরযোগ্য কোনো গণমাধ্যম সূত্রেও এমন কোনো তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি।

সুতরাং, সারাদেশ থেকে জাতীয় পার্টির প্রার্থী প্রত্যাহার করে বিএনপিতে যোগ দিয়েছে দাবিতে ইন্টারনেটে প্রচারিত  তথ্যটি মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img