শাড়ির দাম নিয়ে রুমিন ফারহানার নামে এডিটেড বক্তব্য প্রচার

সম্প্রতি, বিএনপি নেত্রী রুমিন ফারহানার শাড়ি আড়াই লাখ টাকা- শীর্ষক দাবিতে রুমিন ফারহানার বক্তব্য দেওয়ার একটি ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়েছে। 

ভিডিওটিতে দেখা যায়, রুমিন ফারহানাকে একজন প্রশ্ন করেন- কত টাকার সর্বোচ্চ শাড়ি কিনেছেন? 

উত্তরে রুমি ফারহানাকো বলতে শোনা যায়, আমার সর্বোচ্চ শাড়ি কিনেছি আমি আড়াই লাখ, তিন লাখ টাকা এবং সেই শাড়িটা না সত্যি বলছি আমি যে শাড়িটা দেখেছিলাম আড়াই লাখ টাকার সেটা অন্যান্য অনেক দোকানেই আছে এবং ১২/১৪ হাজার টাকার বেশি না ওই শাড়ি। কিন্তু ওইযে একটা লোগো, একটা প্যাকেট, একটা ব্র্যান্ড এই আরকি।

শাড়ির দাম

ফেসবুক প্রচারিত ভিডিও দেখুন এখানে (আর্কাইভ)। 

টিকটকে প্রচারিত ভিডিও দেখুন এখানে (আর্কাইভ)।

ইউটিউবে প্রচারিত ভিডিও দেখুন এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, বিএনপি নেত্রী রুমিন ফারহানা আড়াই লাখ টাকা দিয়ে শাড়ি কিনেছেন বলে কোনো মন্তব্য করেননি বরং ডিবিসি নিউজের টকশোতে করা টকশোর উপস্থাপিকার প্রশ্ন ও আলোচক রুমিন ফারহানার জবাবের দুইটি ভিন্ন মুহূর্তের ক্লিপ ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় জোড়া লাগিয়ে আলোচিত ভিডিওটি তৈরি করা হয়েছে। 

আলোচিত ভিডিওটিতে রুমিন ফারহানার দেওয়া বক্তব্যের সূত্র ধরে প্রাসঙ্গিক কি-ওয়ার্ড সার্চ করে ডিবিসি নিউজ এর ফেসবুক পেজে গত ১১ এপ্রিল “পাঞ্জাবি ও শাড়ির দাম শুনেই বোকা হলেন রুমিন ফারহানা” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি ভিডিও পাওয়া যায়। 

উক্ত ভিডিওটিতে থাকা রুমিন ফারহানার ড্রেস এবং ব্যাকগ্রাউন্ডের সাথে আলোচিত ভিডিওটির হুবহু মিল রয়েছে। 

Video Comparison: Rumor Scanner 

৩ মিনিট ২৭ সেকেন্ডের ভিডিওটির ২ মিনিট ৪ সেকেন্ড উপস্থাপিকা নাজনীন মুন্নী প্রশ্ন করেন, এখন নাকি মেয়েদের শাড়ির দাম ছয় লাখ, সাত লাখ, দশ লাখ টাকা দিয়ে পাওয়া যায়? 
উত্তরে রুমিন ফারহানা বলেন, হ্যাঁ। 

উপস্থাপিকা ফারজানা আবার প্রশ্ন করেন, কত টাকা দিয়ে সর্বোচ্চ শাড়ি কিনেছেন?

উত্তরে রুমিন ফারহানা বলেন, আমার সর্বোচ্চ শাড়ি কিনেছি আমি আট হাজার টাকা দিয়ে। জামদানী। 

এযাবৎকালে সর্বোচ্চ কেনা এটা এমন প্রশ্ন করলে রুমিন ফারহানা বলেন, না, এই ঈদে এটা। 

২ মিনিট ২৩ সেকেন্ডে রুমিন ফারহানা বলেন, আমি গিফট কেনার জন্য বের হয়েছিলাম। আমার নিজের শপিং অনলাইনে করেছি। কিন্তু মানুষকে যেগুলো দিব, সাইজের ব্যাপার আছে, এই ব্যাপার আছে ওই ব্যাপার আছে৷ তো একটু গিয়েছি বাইরে৷ আমি বোকা হয়ে গেছি৷ পাঞ্জাবি এক লাখ টাকা, শাড়ি আড়াই লাখ-তিন লাখ টাকা এবং এগুলো নিশ্চয়ই বিক্রি হচ্ছে, মানুষ কিনছে এবং যেই দোকানগুলোর কথা আমি বলছি ওখানে যে খুব কম ক্রেতা তা-ও না৷ আমি কিন্তু ভাসাবি-টাসাবি একেবারে ব্র্যান্ডেড দোকানেও আমি যাইনি। ওনেস্টলি! আমি যেগুলোতে গিয়েছি যে মাঝামাঝি। সেগুলোতে এরকমই প্রাইজ দেখেছি। আই ওয়াজ শকট! যেখানে একই দেশে আমরা…একটু বলেই ফেলি মুন্নী বলবো?

উপস্থাপিকা বলেন, হ্যাঁ, হ্যাঁ! 

পরবর্তীতে রুমিন ফারহানা বলেন, যেখানে ৩০ টাকা দিয়ে মাছের কাটা কিনি, মুরগির পা কিনি। সেখানেই আবার আড়াই লাখ টাকা দিয়ে এবং সেই শাড়িটা না সত্যিই বলছি আমি যে শাড়িটা দেখেছিলাম আড়াই লাখ টাকার। সেটা অন্যান্য অনেক দোকানেই আছে এবং ১২/১৪ হাজার টাকার বেশি না এই শাড়ি৷ কিন্তু ওইযে একটা লোগো, একটা প্যাকেট, একটা ব্র্যান্ড এই আরকি। কিন্তু চলছে তো, মানুষ কিনছে। নাহলে এই দোকান থাকতো না তো। 

অর্থাৎ, রুমিন ফারহানার ভিন্ন প্রেক্ষিতে দেওয়া বক্তব্যকে ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় সম্পাদনা করে আলোচিত ভিডিও তৈরি করে উক্ত দাবিতে প্রচার করা হয়েছে। 

মূলত, সম্প্রতি বিএনপি নেত্রী রুমিন ফারহানার শাড়ি আড়াই লাখ টাকা- শীর্ষক দাবিতে রুমিন ফারহানার বক্তব্য দেওয়ার একটি ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়ে। তবে রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, রুমিন ফারহানা এমন কোনো মন্তব্য করেননি। প্রকৃতপক্ষে, প্রযুক্তির সহায়তায় সম্পাদনার মাধ্যমে ডিবিসি নিউজের ‘রাজকাহন’ নামক টকশোতে রুমিন ফারহানার ভিন্ন প্রেক্ষিতে করা একটি মন্তব্যকে উপস্থাপিকার ভিন্ন মুহূর্তের প্রশ্নের সাথে জোড়া লাগিয়ে উক্ত দাবিতে প্রচার করা হয়েছে। 

সুতরাং, বিএনপি নেত্রী রুমিন ফারহানার শাড়ি আড়াই লাখ টাকা- শীর্ষক দাবিতে রুমিন ফারহানার বক্তব্য দেওয়ার একটি ভিডিও ইন্টারনেট প্রচার করা হচ্ছে; যা এডিটেড বা সম্পাদিত।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img