পুরোনো ছবি সাম্প্রতিক ইজতেমার ছবি দাবিতে প্রচার

সম্প্রতি “আজকে বিশ্ব ইজতেমায় স্মরণকালের সর্ববৃহৎ জুমআর নামাজের জামায়াত অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রায় ১৫ লক্ষাধীক মানুষ আজকের জামায়াতে অংশ নিয়েছেন। বিশ্ব ইজতেমা সফল হোক সার্থক হোক। বিশ্ব মুসলিম উম্মাহের ভ্রাতৃত্বের বন্ধন ছড়িয়ে যাক বিশ্বময়।” “First phase of Bishwa Ijtema begins today” শীর্ষক শিরোনামের বিশ্ব ইজতেমার একটি ছবি গত ১৩ জানুয়ারির ছবি দাবিতে মূলধারার গণমাধ্যম এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচারিত হচ্ছে। 

মূলধারার গণমাধ্যম দৈনিক ইত্তেফাকে প্রচারিত একটি প্রতিবেদন দেখুন এখানে (আর্কাইভ)।

Screenshot from Dainik Ittefaq

ফেসবুকে প্রচারিত এরকম কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে। 
পোস্টগুলোর আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, বিশ্ব ইজতেমায় মুসলিম সমাগমের ছবিগুলো গত ১৩ জানুয়ারির নয় বরং এর একটি ছবি ২০১৪ সালের এবং অন্যটি ২০১৮ সালের।

কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে ‘Alamy’ নামক ওয়েবসাইটে ২০১৪ সালের ২৬ জানুয়ারিতে আপলোড করা একটি ছবি খুঁজে পাওয়া যায়। উক্ত ছবির সাথে গত ১৩ জানুয়ারি বিশ্ব ইজতেমার ছবি দাবিতে প্রচারিত একটি ছবির হুবহু মিল খুঁজে পাওয়া যায়।

 Screenshot from Alamy website

উক্ত ছবির ক্যাপশনে বলা হয়,

“Dhaka, Bangladesh. 26th Jan, 2014. Muslims attend the final prayer for the Bishwa Ijtema on the outskirts of Dhaka, Bangladesh, Jan. 26, 2014. Columns of thousands of devotees from home and abroad were seen streaming towards the gathering site on the banks of the river Turag at Tongi on the outskirts of Bangladesh capital Dhaka for the Bishwa Ijtema, or World Muslim Congregation. Credit: Shariful Islam/Xinhua/Alamy Live News”

অর্থাৎ, ছবিটি ২০১৪ সালের ২৬ জানুয়ারি বিশ্ব ইজতেমার আখেরি মোনাজাতের সময়ের ছবি বলে নিশ্চিত হওয়া যায়।

অধিকতর সত্যতা যাচাইয়ে জার্মানি ভিত্তিক আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম ডি ডব্লিউ এর ওয়েবসাইটে ২০১৪ সালের ২৪ জানুয়ারি “বিশ্ব ইজতেমা” শীর্ষক শিরোনামের একটি প্রতিবেদন পাওয়া যায়। 

Screenshot from DW website

উক্ত প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ২০১৪ সালের বিশ্ব ইজতেমা ২৪ জানুয়ারি শুরু হয়ে ২৬ জানুয়ারি আখেরি মোনাজাতের মধ্যদিয়ে শেষ হয়।

এছাড়াও অন্য ছবিটির সময় ও স্থান অনুসন্ধানে, Taqiuddin Siddiqui নামক টুইটার একাউন্টে ২০১৮ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারী “Aurangabad Ijtema. Drone couldn’t take full pic of Ijtema.” শীর্ষক শিরোনামের একটি টুইট পাওয়া যায়। উক্ত ছবিগুলোর মধ্যে প্রথম ছবিটির সাথে গত ১৩ জানুয়ারি বিশ্ব ইজতেমার ছবি দাবিতে প্রচারিত ছবির হুবহু মিল খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot from Taqiuddin Siddiqui Twitter Account

উক্ত টুইট থেকে জানা যায়, ছবিগুলো ২০১৮ সালের ভারতের আওরঙ্গবাদ ইজতেমার ছবি।

পরবর্তীতে, অধিকতর অনুসন্ধানে কি ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে,Good Massage Tuber নামক ইউটিউব চ্যানেলে ২০১৮ সালের ৩ মার্চ “Aurangabad ijtema Khubsurat Naat 24,25,26 February, 2018 1 crore peoples” শীর্ষক শিরোনামের একটি ভিডিও পাওয়া যায়। উক্ত ভিডিওতে দেখানো স্থানের সাথে গত ১৩ জানুয়ারি বিশ্ব ইজতেমার ছবির দাবিতে প্রচারিত ছবির হুবহু মিল খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot from Good Message Tuber Youtube Channel

যা থেকে নিশ্চিত হওয়া যায়, উক্ত ছবিটি গত ১৩ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত বিশ্ব ইজতেমার ছবি নয় বরং ২০১৮ সালে ভারতের আওরঙ্গবাদে অনুষ্ঠিত ইজতেমার ছবি। 

মূলত, গত ১৩ জানুয়ারি শুক্রবার বিশ্ব ইজতেমার প্রেক্ষপটে জুমার নামাজে মুসল্লীদের আগমনের একটি ছবি মূলধারার গণমাধ্যম এবং উক্ত ছবিসহ আরেকটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচারিত হচ্ছে। কিন্তু উক্ত ছবগুলোর একটি ২০১৪ সালের বিশ্ব ইজতেমার এবং অন্যটি ২০১৮ সালে ভারতের আওরঙ্গবাদ ইজতেমার ছবি। 

সুতরাং, বিশ্ব ইজতেমার ২০১৪ সালের একটি ছবি এবং ভারতের আওরঙ্গবাদ ইজতেমার ২০১৮ সালের একটি ছবি বাংলাদেশের বিশ্ব ইজতেমার সাম্প্রতিক ছবি দাবিতে প্রচারিত হচ্ছে; যা বিভ্রান্তিকর।

তথ্যসূত্র

RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img