শনিবার, জুলাই 20, 2024
spot_img

ছবিগুলো ত্রিপুরায় মুসলমান নির্যাতনের নয়

সম্প্রতি, “ত্রিপুরার মুসলমানদের জন্য দোয়া করুন সবাই। ভারতের একটি ছোট্ট অঙ্গরাজ্য ত্রিপুরা। ত্রিপুরায় এখন পর্যন্ত ১৬ টি মসজিদে আগুন এবং অনেক ঘর বাড়িতে আগুন লাগিয়েছে।” শীর্ষক শিরোনামে কিছু ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে ছড়িয়ে পড়েছে।

ত্রিপুরা

ভাইরাল কিছু ফেসবুক পোস্টের আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানেএখানেএখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, প্রচারিত ছবিগুলো ত্রিপুরাতে মুসলমানদের উপর হামলার বা নির্যাতনের নয় বরং ছবিগুলো ২০১৯ এবং ২০২১ সালের জুনে ভারতে ঘটা ভিন্ন দুটি ঘটনার।

প্রথম ছবি যাচাইঃ রিভার্স ইমেজ সার্চ পদ্ধতি ব্যবহার করে ২০১৯ সালের ১২ ডিসেম্বরে India Today ওয়েবসাইটে “CAB is a new story, here’s how illegal migrants shaped politics in Assam and West Bengal” শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে ছবিটি খুঁজে পাওয়া যায়।

প্রতিবেদনটি পড়ুন এখানে

মূলত, রাজ্যসভায় পাস হওয়া নাগরিকত্ব (সংশোধন) বিলের বিরুদ্ধে মিছিল চলাকালীন গুয়াহাটিতে বিক্ষোভকারীদের হোর্ডিং পোড়ানোর ছবি এটি।

দ্বিতীয় ছবি যাচাইঃ রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে ২০২১ সালের ১৩ জুনে আলজাজিরায় “India: Fire rips through Rohingya camp, leaving hundreds homeless” শিরোনামে প্রকাশিত প্রতিবেদনে ছবিটি খুঁজে পাওয়া যায়।

তৃতীয় ছবি যাচাইঃ রিভার্স ইমেজ সার্চ পদ্ধতি ব্যবহার করে ২০২১ সালের ১৩ জুনে প্রকাশিত Aasif Mujtaba নামের একটি ইন্সটাগ্রাম একাউন্টে দুই যুবকের হাতে কোরআন শরীফ থাকা ছবিটি খুঁজে পাওয়া যায়। একই পোস্টে দ্বিতীয় ছবিটির উপস্থিতিও লক্ষ্য করা যায়।

মূলত, ২০২১ সালের জুন মাসে দিল্লির একটি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আগুন লাগার পরে দ্বিতীয় এবং তৃতীয় ছবিটি তোলা হয়েছিলো। Aasif Mujtaba যিনি পেশায় একজন স্বাধীন সাংবাদিক, বিষয়টি নিয়ে ২৮ অক্টোবর টুইটের মাধ্যমে জানান, এই ছবিগুলি নয়াদিল্লির কাঞ্চন কুঞ্জের রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরে সাম্প্রতিক অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার, ত্রিপুরার নয়৷

প্রসঙ্গত, সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে গত ২৬ আগস্ট ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ আয়োজিত একটি মিছিল ঘিরে বিশৃঙ্খলা তৈরি হয়। এতে একটি মসজিদ ও কয়েকটি দোকান ভাংচুর সহ দুইটি দোকানে আগুন দেওয়া হয়েছে। পানিসাগরের সাব-ডিভিশনাল পুলিশ কর্মকর্তা সৌভিক দে ‘ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে’ জানিয়েছেন, “বিশ্ব হিন্দু পরিষদ কর্মীদের একটি অংশ চামটিল্লা এলাকায় একটি মসজিদ ভাংচুর করে, পরে তিনটি বাড়ি ও তিনটি দোকান ভাংচুর সহ দুইটি দোকানে আগুন ধরিয়ে দেয়।”

অর্থাৎ, পুরোনো এবং ভিন্ন দুইটি ঘটনার ছবিকে বর্তমানে ত্রিপুরায় মুসলমানদের উপর নির্যাতনের চিত্র দাবিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে প্রচার করা হচ্ছে যা সম্পূর্ণ বিভ্রান্তিকর।

[su_box title=”True or False” box_color=”#f30404″ radius=”0″]

  • Claim Review: ত্রিপুরার মুসলমানদের জন্য দোয়া করুন সবাই
  • Claimed By: Facebook Posts
  • Fact Check: Misleading

[/su_box]

তথ্যসূত্র

  1. India Today / First Image: https://www.indiatoday.in/india/story/cab-is-a-new-story-here-s-how-illegal-migrants-shaped-politics-in-assam-and-west-bengal-1627548-2019-12-12
  2. Times of India: https://timesofindia.indiatimes.com/india/violent-protests-against-citizenship-bill-in-assam-curfew-imposed-in-guwahati/articleshow/72479556.cms
  3. The Print: https://theprint.in/diplomacy/dhaka-lodges-protest-with-india-after-bangladesh-diplomat-attacked-in-assam/334636/
  4. Al Jazeera / Second Image: https://www.aljazeera.com/news/2021/6/13/lost-everything-fire-engulfs-rohingya-camp-in-delhi
  5. Times of India: https://timesofindia.indiatimes.com/city/delhi/a-series-of-unfortunate-events-camp-fire-leaves-rohingya-homeless-again/articleshow/83493562.cms
  6. Aasif Mujtaba Insta / Third Image:https://www.instagram.com/p/CQCmMmmnvh7/
  7. Aasif Mujtaba Tweet:

  8. The Indian Express: https://indianexpress.com/article/north-east-india/tripura/tripura-mosque-vandalised-two-shops-set-on-fire-during-vhp-rally-7592208/
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img