বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর 21, 2023
spot_img

পাকিস্তানে সাম্প্রতিক ভারী বৃষ্টি ও বন্যার খবরে গণমাধ্যমে পুরোনো ছবি

পাকিস্তানের লাহোরে চলতি মাসে (জুলাই) রেকর্ড বৃষ্টির ঘটনায় বাংলাদেশের একাধিক গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনে ১০ টি ভিন্ন ছবি ব্যবহার করা হয়েছে। 

ছবিগুলো ব্যবহার করে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে সময় টিভি (১), সময় টিভি (২), যমুনা টিভি, বাংলাভিশন, নিউজ২৪, ঢাকা রিপোর্ট২৪, রেডিও টুডে (১), রেডিও টুডে (২), ইনকিলাব (১), ইনকিলাব (২), ইনকিলাব (৩), সাম্প্রতিক দেশকাল, যায়যায়দিন, বায়ান্ন টিভি, ঢাকা মেইল, বাংলাদেশ জার্নাল, বার্তা২৪, আমার সংবাদ, ঢাকা পোস্ট (১), ঢাকা পোস্ট (২), এবিনিউজ২৪, জনবাণী, সংবাদ, বিবার্তা২৪, নিউজনাউ২৪, সময়ের আলো, বাংলাদেশ মোমেন্টস, নিউজজি ২৪। 

একই দাবিতে ফেসবুকে প্রচারিত কিছু পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, প্রচারিত ছবিগুলো সাম্প্রতিক সময়ের নয় বরং পূর্বের ভিন্ন ভিন্ন ঘটনার ছবিকে সাম্প্রতিক ঘটনার দাবিতে প্রচার করা হয়েছে। 

ছবি যাচাই ০১

Screenshot: Somoy TV

এই ছবিটি ব্যবহার করে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে সময় টিভি, ঢাকা রিপোর্ট২৪

কিন্তু ছবিটি উক্ত ঘটনার নয়।

ছবিটির মূল সূত্রের বিষয়ে অনুসন্ধানে ছবি শেয়ারিং এবং স্টোরেজ সংক্রান্ত আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান Getty Images এর ওয়েবসাইটে ছবিটি খুঁজে পাওয়া যায়। 

Screenshot: Getty Images

সেখানে উল্লেখিত বিস্তারিত বিবরণী থেকে জানা যায়, এই ছবিটির ফটোগ্রাফার এএফপির আরিফ আলী। এটি ২০২০ সালের ২০ আগস্ট সংঘটিত ভারী বৃষ্টিপাতে লাহোরের একটি রাস্তায় গাড়ি এবং গাছপালা ডুবে যাওয়ার ছবি। 

অর্থাৎ, গণমাধ্যমে প্রচারিত এই ছবিটি পাকিস্তানে জুলাইয়ের বন্যার ঘটনার নয়।

ছবি যাচাই ০২

Screenshot: Radio Today

এই ছবিটি ব্যবহার করে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে রেডিও টুডে, ইনকিলাব, ঢাকা মেইল, বার্তা২৪, আমার সংবাদ, সাম্প্রতিক দেশকাল, নিউজনাউ২৪

কিন্তু ছবিটি উক্ত ঘটনার নয়।

এ বিষয়ে অনুসন্ধানে রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে সৌদি আরবের সংবাদমাধ্যম Arab News এর ওয়েবসাইটে ২০১৯ সালের ১৬ এপ্রিল প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে আলোচিত ছবিটি খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot: ARAB NEWS

প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, এটি ২০১৯ সালে পাকিস্তানে রাস্তাঘাট ডুবে যাওয়ার ছবি। 

অর্থাৎ, গণমাধ্যমে প্রচারিত এই ছবিটি পাকিস্তানে জুলাইয়ের বন্যার ঘটনার নয়।

ছবি যাচাই ০৩

Screenshot: Bangla Vision

এই ছবিটি ব্যবহার করে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে বাংলাভিশন, যায়যায়দিন, রেডিও টুডে

কিন্তু ছবিটি উক্ত ঘটনার নয়।

ছবিটির বিষয়ে অনুসন্ধানে কাতারভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম Al Jazeera-র ওয়েবসাইটে ২০২০ সালের ০৯ আগস্ট প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে আলোচিত ছবিটি খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot: Al Jazeera 

প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, এটি ২০২০ সালে পাকিস্তানে সংঘটিত মৌসুমী বৃষ্টি এবং বন্যায় রাস্তাঘাট ডুবে যাওয়ার ছবি।

অর্থাৎ, গণমাধ্যমে প্রচারিত এই ছবিটি পাকিস্তানে জুলাইয়ের বন্যার ঘটনার নয়।

ছবি যাচাই ০৪

Screenshot: The Daily Inqilab

এই ছবিটি ব্যবহার করে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ইনকিলাব

কিন্তু ছবিটি উক্ত ঘটনার নয়।

রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে ইমেজ শেয়ারিং সাইট Alamy তে ২০১৮ সালের ২৩ জুলাই প্রকাশিত আলোচিত ছবিটি খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot: alamy

ছবিটির বিস্তারিত বিবরণী থেকে জানা যায়, ছবিটি ২০১৮ সালের ০৩ জুলাই পাকিস্তানের লাহোরে বন্যায় প্লাবিত একটি রাস্তায় ট্রাক উল্টে যাওয়ার ঘটনায় ধারণকৃত। 

অর্থাৎ, গণমাধ্যমে প্রচারিত এই ছবিটি পাঁচ বছরের পুরোনো। 

ছবি যাচাই ০৫

Screenshot: Somoy TV

এই ছবিটি ব্যবহার করে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে সময় টিভি, বাংলাদেশ জার্নাল, বায়ান্ন টিভি। 

কিন্তু ছবিটি উক্ত ঘটনার নয়।

রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা AP এর ওয়েবসাইটে ২০২২ সালের ২৪ আগস্ট প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে আলোচিত ছবিটি খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot: AP

প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ছবিটি ২০২২ সালের ২৪ আগস্ট পাকিস্তানের ভারী বর্ষণে ফলে সৃষ্ট বন্যার ঘটনায় রাস্তাঘাট ডুবে যাওয়ার সময়ের।

অর্থাৎ, গণমাধ্যমে প্রচারিত এই ছবিটি সাম্প্রতিক সময়ের নয়।

 ছবি যাচাই ০৬

Screenshot: Jamuna TV

এই ছবিটি ব্যবহার করে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে যমুনা টিভি। 

কিন্তু ছবিটি উক্ত ঘটনার নয়।

ছবিটির মূল সূত্রের বিষয়ে অনুসন্ধানে Getty Images এর ওয়েবসাইটে ছবিটি খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot: Getty Images

সেখানে উল্লিখিত বিস্তারিত বিবরণী থেকে জানা যায়, এটি ২০১৯ সালের ১৬ জুলাই পাকিস্তানের লাহোরে ভারী বৃষ্টিপাতের ফলে ডুবে যাওয়া রাস্তার ছবি।

অর্থাৎ, গণমাধ্যমে প্রচারিত এই ছবিটিও পাকিস্তানে সাম্প্রতিক বন্যার ঘটনার নয়।

ছবি যাচাই ০৭

Screenshot: NEWS24

এই ছবিটি ব্যবহার করে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে নিউজ২৪, ইনকিলাব, ঢাকা পোস্ট, এবিনিউজ২৪, জনবাণী, সংবাদ, বিবার্তা২৪, নিউজজি ২৪। 

কিন্তু ছবিটি উক্ত ঘটনার নয়।

রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম Latestly এর ওয়েবসাইটে ২০২২ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে আলোচিত ছবিটি খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot: LATESTLY

জলাবদ্ধতার ঘটনায় প্রকাশিত প্রতিবেদনে ফাইল ছবি হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছিল। সে হিসেবে ছবিটি সাম্প্রতিক সময়ের নয়। 

অর্থাৎ, গণমাধ্যমে প্রচারিত এই ছবিটি পাকিস্তানে জুলাইয়ের বন্যার ঘটনার নয়।

ছবি যাচাই ০৮

Screenshot: Somoyer Alo

এই ছবিটি ব্যবহার করে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে সময়ের আলো। 

কিন্তু ছবিটি উক্ত ঘটনার নয়।

রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম Reuters এর ওয়েবসাইটে ২০২২ সালের ২৯ আগস্ট প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে আলোচিত ছবিটি খুঁজে পাওয়া যায়। 

Screenshot: Reuters 

প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ২০২২ সালের ২৮ আগস্ট পাকিস্তানে বৃষ্টি ও বন্যায় একটি প্লাবিত রাস্তায় লোকজনের আসবাবপত্র বহন করে নিয়ে যাওয়ার সময়ের দৃশ্য এটি।

অর্থাৎ, গণমাধ্যমে প্রচারিত এই ছবিটি পাকিস্তানে জুলাইয়ের বন্যার ঘটনার নয়।

ছবি যাচাই ০৯

Screenshot: Bangladesh moments

এই ছবিটি ব্যবহার করে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ মোমেন্টস। 

কিন্তু ছবিটি উক্ত ঘটনার নয়।

ছবিটির মূল সূত্রের বিষয়ে অনুসন্ধানে Getty Images এর ওয়েবসাইটে ছবিটি খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot: Getty Images

সেখানে উল্লেখিত বিস্তারিত বিবরণী থেকে জানা যায়, এটি ২০২২ সালের ২৬ আগস্ট পাকিস্তানের বালুচিস্তান প্রদেশে ভারী বর্ষণের ফলে ডুবে যাওয়া জায়গা থেকে একটি স্যাটেলাইট ডিশে করে বাচ্চাদের সরিয়ে নেওয়ার সময়ের ছবি।

ছবি যাচাই ১০

এই ছবিটি ব্যবহার করে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ঢাকা পোস্ট

কিন্তু ছবিটি উক্ত ঘটনার নয়।

রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম REUTERS এর ওয়েবসাইটে ২০১১ সালে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে আলোচিত ছবিটি খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot: REUTERS

প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, এটি ২০১০ সালের জুলাইয়ে পাকিস্তানের উত্তর-পশ্চিম সীমান্ত প্রদেশের নওশেরা জেলায় অবস্থিত রিসালপুরে একটি প্লাবিত রাস্তা দিয়ে বাসিন্দারা তাদের জিনিসপত্র নিয়ে যাওয়ার সময়ের ছবি।

অর্থাৎ, গণমাধ্যমে প্রচারিত এই ছবিটি পাকিস্তানে জুলাইয়ের বন্যার ঘটনার নয়।

গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনে আলোচিত ছবিগুলোরর ক্যাপশনে ফাইল ফটো বা পুরোনো ছবি শীর্ষক কোনো তথ্য উল্লেখ করা হয়নি বরং কিছু গণমাধ্যমে ছবিগুলো সংগৃহীত এবং কোনো কোনো গণমাধ্যমে ছবির ক্যাপশনে কোনো তথ্য উল্লেখ করা হয়নি। সাম্প্রতিক ঘটনার বিষয়ে প্রকাশিত প্রতিবেদনে ছবিগুলো ব্যবহার করে সংগৃহীত উল্লেখ কিংবা কোনো তথ্যই উল্লেখ না থাকায় স্বাভাবিকভাবেই ছবিগুলো পাকিস্তানের লাহোরে সাম্প্রতিক বৃষ্টিপাতের ঘটনার বলে প্রতীয়মান হয়। এতে করে নেটিজেনদের মধ্যে বিভ্রান্তি তৈরি হওয়া অমূলক নয়।

মূলত, চলতি জুলাই মাসে পাকিস্তানের লাহোরে ভারী বৃষ্টিপাত এবং তা থেকে সৃষ্ট বন্যার ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় দেশীয় গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনে পাকিস্তানে বন্যা ও ভারী বর্ষণে রাস্তা ডুবে যাওয়ার পুরোনো ১০ টি ভিন্ন ঘটনার ছবি ব্যবহার করা হয়। প্রকাশিত প্রতিবেদনগুলোতে আলোচিত ছবিগুলোর ক্যাপশনে ফাইল ফটো বা পুরোনো ঘটনার ছবি শীর্ষক কোনো তথ্যও দেওয়া হয়নি। এতে করে স্বাভাবিকভাবে ছবিগুলো পাকিস্তানের সাম্প্রতিক ভারী বৃষ্টিপাতের ঘটনার বলে প্রতীয়মান হয়, যা বিভ্রান্তির জন্ম দিয়েছে। 

উল্লেখ্য, পূর্বে কঙ্গোতে ভারী বর্ষণে বন্যার ঘটনায় গণমাধ্যমে একাধিক পুরোনো ছবি ব্যবহার করা হলে সেসময় বিষয়টি নিয়ে ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন প্রকাশ করে রিউমর স্ক্যানার।

সুতরাং, পাকিস্তানে সাম্প্রতিক সময়ে ভারী বৃষ্টি ও বন্যার ঘটনায় বাংলাদেশের গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনে একাধিক পুরোনো ঘটনার ছবিকে সাম্প্রতিক দাবিতে প্রচার করা হয়েছে; যা বিভ্রান্তিকর।

তথ্যসূত্র

RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img