নূপুর শর্মাকে মারধরের দাবিতে প্রচারিত ছবিটি প্রায় ১৪ বছর পুরোনো

সম্প্রতি, “বিজেপি নেত্রী নূপুর শর্মা কে দিল্লি মার্কেটে শপিং করার সময় গণধোলাই দিয়েছে জনতা” শীর্ষক শিরোনামে দুইটি ছবি সংযুক্ত করে একটি দাবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

নূপুর

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে। পোস্টগুলোর আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে। 

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, প্রচারিত ছবিটি বিজেপি নেত্রী নূপুর শর্মাকে সাম্প্রতিক সময়ে মারধরের ঘটনার নয় বরং ছবিটি ২০০৮ সালে ভিন্ন ঘটনায় ধারণকৃত। 

রিভার্স ইমেজ সার্চ পদ্ধতি ব্যবহার করে, স্টক ফোটো শেয়ারিং ওয়েবসাইট Getty Images- এ ২০০৮ সালের ০৬ নভেম্বরে “ABVP activist and DUSU President Nupur Sharma crashing the gate to mark her protest against Prof. SAR Geelani at a public meeting at Delhi University’s North Campus” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত প্রথম ছবি খুঁজে পাওয়া যায়। 

Screenshot from Getty Images

এছাড়া, একই ওয়েবসাইটে একই শিরোনামে প্রকাশিত দ্বিতীয় ছবিটি খুঁজে পায় রিউমর স্ক্যানার টিম।

Screenshot from Getty Images

ছবির ক্যাপশন হতে দেখা যায়, ছবিটি ২০০৮ সালে ভারতের দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ে তোলা। সে সময়ে দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদের সভাপতি নূপুর শর্মার নেতৃত্বে ক্যাম্পাসে একটি গেট ভেঙে ফেলা হচ্ছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে। 

পরবর্তীতে তথ্যটির সত্যতা নিশ্চিতে, কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ‘দ্যা ইন্ডিউয়ান এক্সপ্রেস’ এর ওয়েবসাইটে ২০০৮ সালের ০৮ নভেম্বরে “Day after, DUSU president backs ABVP vandalism, says: Geelani, a terrorist, shouldn’t have been invited” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত উক্ত ঘটনা সম্পর্কে একটি বিস্তারিত প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়। 

এছাড়াও, ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ‘Times Now’ এর ইউটিউব চ্যানেলে একই বছরের ১০ নভেম্বরে “Student Spits At The University Professor” শীর্ষক শিরোনামে একটি ভিডিও প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়। 

মূলত, ২০০৮ সালে দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি সেমিনারে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিলো অধ্যাপক এসএআর গিলানিকে। কিন্তু তিনি ২০০৩ সালে সংসদে হামলার ঘটনায় অভিযুক্ত ছিলেন। অধ্যাপক এসএআর গিলানিকে উক্ত অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানোর প্রতিবাদে তৎকালীন দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদের সভাপতি নূপুর শর্মার নেতৃত্বে ক্যাম্পাসের একটি গেট ভেঙে ফেলা হয়। সেই সময়ে নূপুর শর্মার ধারণকৃত একটি ছবিকে সম্প্রতি হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) কে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যের কারণে বিজেপি নেত্রী নূপুর শর্মা কে দিল্লি মার্কেটে গণধোলাই দেওয়া হয়েছে দাবিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, এসএআর গিলানি ২০০১ সালে ভারতীয় সংসদে হামলার ঘটনায় অভিযুক্ত ছিলেন। অতঃপর ২০০৩ সালে নিম্ন আদালত তাকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ প্রদান করে এবং এর পরবর্তী সময়ে ২০০৫ সালে উচ্চ আদালত তাকে বেকসুর খালাস প্রদান করে। 

উল্লেখ্য, মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)–কে নিয়ে ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির মুখপাত্র নূপুর শর্মা সহ দুই নেতার আপত্তিকর মন্তব্যকে কেন্দ্র করে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে মুসলিম বিশ্ব। ঘটনাটিকে কেন্দ্র করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে ভারতীয় পণ্য বর্জনের দাবি উঠেছে। উক্ত ঘটনার ফলে আপত্তিকর মন্তব্যকারী বিজেপির মুখপাত্র নূপুর শর্মাকে সাময়িক বরখাস্ত এবং দিল্লি শাখার গণমাধ্যম প্রধান নবীন কুমার জিন্দালকে বহিষ্কার করেছে ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি)। 

অর্থাৎ, ২০০৮ সালে ভিন্ন ঘটনায় বিজেপি হতে সদ্য বহিষ্কৃত নেত্রী নূপুর শর্মার ধারণকৃত ছবিকে সম্প্রতি হযরত মুহাম্মদ (সা.) কে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যের কারণে বিজেপি নেত্রী নূপুর শর্মা কে দিল্লি মার্কেটে গণধোলাই দেওয়া হয়েছে দাবিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে; যা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

  1. Getty Images: ABVP activist and DUSU President Nupur Sharma crashing the gate to… News Photo – Getty Images 
  2. Getty Images: https://www.gettyimages.com/detail/news-photo/activist-and-dusu-president-nupur-sharma-crashing-the-gate-news-photo/1134394449?adppopup=true
  1. Indian Express: http://archive.indianexpress.com/news/day-after-dusu-president-backs-abvp-vandalism-says-geelani-a-terrorist-shouldn-t-have-been-invited/382889/1 
  1. TIMES NOW YT: Student Spits At The University Professor 
  1. The Economics Time: Rajya Sabha polls: Corralled in resorts, MLAs to come out and vote in 4 states today – The Economic Times 
  2. Prothom Alo: মহানবীকে নিয়ে মন্তব্যে আরব বিশ্বে ক্ষোভ, দুই নেতার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা বিজেপির | প্রথম আলো
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img