শনিবার, মে 18, 2024
spot_img

আকাশে মসজিদ দেখা যাওয়ার ভিডিওটি বাস্তব নয়

সম্প্রতি “আকাশে মসজিদের দৃশ্য” শীর্ষক শিরোনামের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে।   

ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া এমন কিছু ভিডিও দেখুন – এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে
আর্কাইভ ভার্সন দেখুন –  এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে

একই দাবিতে ইউটিউবে ছড়িয়ে পড়া কিছু ভিডিও দেখুন – এখানে এবং এখানে।
আর্কাইভ ভার্সন দেখুন – এখানে এবং এখানে।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে দেখা যায়, আকাশে মসজিদের দৃশ্য দেখা যাওয়ার ভিডিওটি বাস্তব নয় বরং ভিন্ন একটি ভিডিও এবং একটি স্থির ছবিকে এডিটের মাধ্যমে উক্ত ভিডিওটি বানানো হয়েছে। 

ভিডিওটির কিছু অংশ রিভার্স ইমেজ সার্চ পদ্ধতির মাধ্যমে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইনস্টাগ্রামে ২০২১ সালের ২৮ নভেম্বর ‘reinaldo_officiaal’ নামক অ্যাকাউন্ট থেকে প্রকাশিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়। 

ভিডিওটির সাথে আলোচিত ভিডিওটির প্রথমদিকের অংশগুলোর হুবহু মিল খুঁজে পাওয়া যায়। একইসাথে দুইটি ভিডিওর অডিও সাউন্ডও একই বলে নিশ্চিত হওয়া যায়।

ইনস্টাগ্রামের ভিডিওটির শেষ অংশে একটি একটি মেয়ে শিশুর অবয়ব আকাশে ভাসতে দেখা যায়। 

অর্থাৎ, ছড়িয়ে পড়া ভিডিওটির প্রথম অংশটি ইনস্টাগ্রামের একটি ভিডিও থেকে নেওয়া হয়েছে।

কিন্তু ‘reinaldo_officiaal’ নামক ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টটির ভিডিওটিতে যে মেয়েশিশুর অবয়ব আকাশে ভেসে বেড়াতে দেখা যাচ্ছে সেটিও কি বাস্তব? এমন প্রশ্নে উক্ত অ্যাকাউন্টটি বিশ্লেষণ করে দেখেছে রিউমর স্ক্যানার টিম। 

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, উক্ত অ্যাকাউন্ট থেকে তথ্য প্রযুক্তির সাহায্যে এডিট করে ভিডিও নিয়মিত প্রকাশ করা হয়। 

এ ধরনের কিছু ভিডিও দেখুন- এখানে, এখানে এবং এখানে। 

অর্থাৎ, ইনস্টাগ্রামের উক্ত অ্যাকাউন্টের একটি ভিডিওতে যে মেয়ে শিশুর অবয়ব দেখা গেছে সেটি বাস্তব নয়, বরং এডিট করে বানানো। 

ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওটির শেষ অংশে আকাশে একটি মসজিদের ছবি ভেসে বেড়াতে দেখা গেছে। 

ভিডিওর উক্ত অংশটি বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, একটি স্থির ছবিকেই জুম ইন, জুম আউট এবং ডানে-বামে সরিয়ে ভিডিও হিসেবে দেখানো হয়েছে এডিটকৃত ভিডিওটিতে।  

পরবর্তীতে উক্ত ছবির সূত্র অনুসন্ধানে মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারে গত ১১ জানুয়ারী ‘Bayroqdor’ নামক অ্যাকাউন্ট থেকে প্রকাশিত একটি পোস্ট খুঁজে পাওয়া যায়। 

পোস্টে ‘fazlidin_ako’ নামক একটি ইন্সটাগ্রাম অ্যাকাউন্টে প্রকাশিত একটি ছবি শেয়ার করে ক্যাপশনে উজবেক ভাষায় লেখা হয়, “(বাংলা অনুবাদ) ধন্যবাদ, ঈশ্বর, আমাকে বিশ্বাসীদের একজন না করার জন্য!” 

উক্ত ছবিটির সাথে আলোচিত মসজিদের দৃশ্যটির হুবহু মিল খুঁজে পাওয়া যায়।  

তবে fazlidin_ako নামক উক্ত ইন্সটাগ্রাম অ্যাকাউন্টটি খুঁজে পাওয়া যায় নি। তাই আলোচিত মসজিদের দৃশ্যটির মূল উৎস সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যায়নি। 

অর্থাৎ, স্থির একটি ছবিকে আকাশে মসজিদের দৃশ্য দেখার দৃশ্য হিসেবে যুক্ত করে ভিডিও এডিট করা হয়েছে। 

মূলত, ডিজিটাল প্রযুক্তির মাধ্যমে এডিট করা একটি ভিডিও এবং আকাশে মসজিদ দেখা যাওয়ার একটি এডিটেড স্থির ছবিকে একত্রে যুক্ত করে ভিডিও বানিয়ে সম্প্রতি “আকাশে মসজিদের দৃশ্য” দাবিতে প্রচার করা হচ্ছে। 

সুতরাং, ভিন্ন একটি ভিডিও এবং একটি স্থির ছবিকে এডিট করে আকাশে মসজিদ দেখা যাওয়ার ভিডিও দাবিতে প্রচার করা হচ্ছে, যা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img