বৃহস্পতিবার, জুলাই 18, 2024
spot_img

মিরাজকে মারতে যাওয়ার অভিযোগ এনে সাকিবের বিরুদ্ধে মিরাজ কোনো লাইভ করেননি 

গেল নভেম্বরে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের খেলোয়াড় মেহেদী হাসান মিরাজকে ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান মারতে এসেছিলেন দাবি করে মিরাজ একটি লাইভ ভিডিও প্রচার করেছেন দাবিতে   ইন্টারনেটে একটি ভিডিও প্রচার করা হয়েছে।

মিরাজকে মারতে

টিকটকে প্রচারিত এমন কিছু ভিডিও দেখুন এখানে (আর্কাইভ) এবং  এখানে (আর্কাইভ)। 

এ সংক্রান্ত একটি ভিডিওই টিকটকে ৩ লক্ষাধিক মানুষ দেখেছেন। 

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, মিরাজকে সাকিবের মারতে যাওয়ার অভিযোগ এনে সাকিবের বিরুদ্ধে মিরাজ কোনো লাইভ করেননি বরং ২০২১ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে জয়ের মাধ্যমে তৃতীয় বাংলাদেশী ক্রিকেটার হিসেবে ওডিআই বোলিং র‌্যাংকিংয়ে দ্বিতীয় স্থানে নিজের নাম লেখান মিরাজ। উক্ত ঘটনায় বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে মিরাজের প্রতিক্রিয়া সম্বলিত প্রকাশিত ভিডিওকে আলোচিত দাবিতে প্রচার করা হচ্ছে।

অনুসন্ধানের শুরুতে আলোচিত দাবিতে প্রচারিত ভিডিওটি পর্যালোচনা করে রিউমর স্ক্যানার টিম। এতে দেখা যায়, ভিডিওটির উপস্থাপক দাবি করেন হৃদয়কে সহযোগিতা করার পরামর্শ দিয়ে মিরাজকে মাঠে নামান সাকিব। কিন্তু মিরাজ তা না মেনে বড় শট খেলতে গিয়ে আউট হয়ে যায়। এতে সাকিব তাকে মারতে আসেন। পরবর্তীতে মিরাজের একটি ভিডিও দর্শকদের উদ্দেশ্যে প্রদর্শন করে দাবি করা হয়, উক্ত ঘটনায় মিরাজ লাইভ ভিডিও প্রচার করে ‘সাকিব ভাই আমাকে মারতে এসেছিল। সাকিব ভাই যা করেছেন ঠিক করেছেন। তিনি আমাদের নির্দেশ দিয়েছিলেন বল দেখে দেখে খেলতে; কিন্তু আমরা ভুল করেছি। হৃদয়ের কথা শুনে আমার ওইভাবে শট খেলা উচিত হয়নি। তাইতো ভুল শট খেলতে গিয়ে আউট হয়ে ফিরেছি।’ শীর্ষক কথাগুলো বলেন। 

আলোচিত ভিডিওতে মিরাজের লাইভ ভিডিও দাবিতে দেখানো ভিডিও ক্লিপটি খুঁজে পাওয়া যায় বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজ Bangladesh Cricket : The Tigers-এ।  ২০২১ সালের ২৬ মে Mehidy Hasan Miraz gives his reaction to the news of his best ever ranking in ICC ODI Bowling Ranking. শীর্ষক শিরোনামে  ভিডিওটি প্রকাশ করা হয়।

ভিডিওটি পর্যালোচনা করে আলোচিত ভিডিওতে দেখানো ক্লিপের সাথে উক্ত ভিডিওর মিল পাওয়া যায়। 

Video Comparison by Rumor Scanner

এছাড়াও ভিডিওটির শিরোনাম এবং ভিডিওটি থেকে জানা যায়, ওয়ানডে ক্রিকেটে বোলিং র‌্যাংকিংয়ে দুই নাম্বারে আসায় উক্ত ভিডিওর মাধ্যমে নিজের প্রতিক্রিয়া প্রকাশ করেন মেহেদী হাসান মিরাজ। এই ভিডিওর কোনো অংশেই মেহেদী হাসান মিরাজকে আলোচিত দাবিটি সম্পর্কে কোনো কথা বলতে শোনা যায় না।  

পরবর্তীতে সাকিব আল হাসান কর্তৃক মিরাজকে মারতে যাওয়ার দাবিতে প্রাসঙ্গিক একাধিক কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমেও গণমাধ্যম কিংবা কোনো নির্ভরযোগ্য সূত্রে কোনো তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি।   

মূলত, ২০২৩ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপের আসরের ৩৮ তম ম্যাচে শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ। উক্ত ম্যাচে ব্যাটিংয়ে নামতে বিলম্ব করায় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের প্রায় দেড়শ বছরের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো কোনো ব্যাটসম্যানকে ‘টাইমড আউট’ করা হয়। সাকিব আল হাসানের আবেদনের প্রেক্ষিতে অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউসকে ম্যাচটিতে এই ‘টাইমড আউট’ করা হয়। এছাড়াও পরবর্তীতে সাকিবের পরামর্শ অনুযায়ী না খেলার কারণে আউট হওয়ার পর ডাগ আউটে মিরাজকে এবং ম্যাচ শেষে হৃদয়কে বকা দেন সাকিব। এর প্রেক্ষিতে  মিরাজকে সাকিব মারতে যাওয়ার অভিযোগে মিরাজ লাইভ করেছে দাবিতে একটি ভিডিও ইন্টারনেটে প্রচার করা হয়েছে। তবে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে দেখা যায়, আলোচিত দাবিতে প্রচারিত লাইভ ভিডিওটি প্রকৃতপক্ষে ২০২১ সালে ওডিআই বোলিং র‌্যাংকিংয়ে মিরাজের দ্বিতীয় স্থানে আসার পর বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের ফেসবুকে পেজে প্রচারিত একটি ভিডিও। উক্ত সংবাদে মিরাজের প্রতিক্রিয়া জানাতে মূলত ভিডিওটি প্রচার করা হয়।

সুতরাং, মিরাজকে মারতে যাওয়ার অভিযোগ এনে সাকিবের বিরুদ্ধে মিরাজ লাইভ করেছেন দাবিতে পুরোনো ও ভিন্ন ঘটনার একটি ভিডিও ইন্টারনেটে প্রচার করা হয়েছে; যা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img