মেসি ও নেইমারের শরীরে থাকা চোখের ট্যাটু ইলুমিনাতির চিহ্ন নয়

সম্প্রতি “এক চোখ কানা দাজ্জালের চিহ্ন, যা ইলুমিনাতির সদস্যরা ব্যবহার করে থাকে। মুসলিম যুবকেরা দেখো কাকে তোমরা সমর্থন করছো! সাবধান হও যুবক” শীর্ষক শিরোনামে মেসি ও নেইমারের হাতে আকাঁ চোখের ট্যাটুর কিছু ছবি দাজ্জালের চিহ্ন দাবিতে সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। যেখানে দাবি করা হচ্ছে, মেসি ও নেইমার তাদের শরীরে যে চোখের ট্যাটু করেছে সেটি ইলুমিনাতির প্রতীক বা দাজ্জালের চিহ্ন হিসেবে করেছে। 

ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে। 
আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে। 

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, মেসি ও নেইমার তাদের হাতে যে চোখের ট্যাটু এঁকেছে তা ইলুমিনাতি বা দাজ্জালের চিহ্ন হিসেবে আঁকেনি বরং মেসি তার স্ত্রীর এবং নেইমার তার বাবার চোখের আদলে শরীরে চোখের ট্যাটু করেছে।  

মেসির শরীরে চোখের ট্যাটু কি ইলুমিনাতির চিহ্ন? 

মেসির ডান হাতের বাইসেপ্সে থাকা চোখের ট্যাটুকে ইলুমিনাতির চিহ্ন হিসেবে প্রচার করা হয়ে আসছে বেশ কয়েকবছর ধরে। নিচের মেসির হাতের এই চোখের ট্যাটুকে গুপ্ত সংগঠন ইলুমিনাতির প্রতীকের সাথে মিলিয়ে লিওনেল মেসিকে ইলুমিনাতির সদস্য হিসেবেও প্রচার করা হয়। 

তবে মেসির ডান হাতের এই ট্যাটু টি ইলুমিনাতির প্রতীক হিসেবে অঙ্কন করা নয় বরং মেসির বাইসেপ্সে থাকা এই ট্যাটু টি তার স্ত্রী আন্তোনেলা রোকুজ্জের চোখের আদলে আঁকা। লিওনেল মেসির ক্লোথিং ব্র্যান্ড The Messi Store এ  ‘Leo Messi’s Tattoo Meanings & Locations’ ক্যাপশনে প্রকাশিত একটি নিবন্ধে মেসির ডান হাতের বাইসেপ্সে আঁকা ট্যাটুটিকে তার স্ত্রী আন্তোনেলার চোখ হিসেবে উল্লেখ করে লেখা হয়েছে, ‘আন্তোনেলার ​​কথা বলছি, মেসির ডান বাইসেপের ভিতরের দিকে সেই বিশাল চোখটি কখনও কি লক্ষ্য করেছেন? বলা হয় এটি তার স্ত্রী আন্তোর চোখ।’

Screenshot : The Messi Store

পরবর্তী জনপ্রিয় ফুটবল ভিত্তিক ওয়েবসাইট স্পোর্টসমবে-ও ট্যাটু টি নিয়ে একই তথ্য পাওয়া যায়। 

  Screenshot : Sportsmob.com

ফুটবল ভিত্তিক আরেক ওয়েবসাইট Goal.com ট্যাটু টি নিয়ে লিখেছে,  “On the inside of his bicep there is an eye – perhaps based on that of his wife Antonella Roccuzzo, though it is unclear.

এছাড়াও ইন্টারনেটে স্পোর্টস সম্পর্কিত আরো কিছু ওয়েবসাইটে মেসির এই ট্যাটু কে তার স্ত্রীর চোখের আদলে আঁকা ট্যাটু হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। 

   Screenshot: Sporting Free

মেসির চোখের ট্যাটু টি ভালোভাবে পর্যবেক্ষণ করলে দেখা যায় এটি কোন নারীর চোখ। নিচে মেসির হাতের চোখের ট্যাটু এবং তার স্ত্রীর চোখ দেখুন।

মেসির হাতে আঁকা চোখের ট্যাটুর সাথে ইলুমিনাতির চোখের প্রতীকের মিল পাওয়া যায়না বরং মেসির হাতের ট্যাটুটির সাথে তার স্ত্রীর চোখের মিল পাওয়া যায়।

এছাড়াও, নির্ভরযোগ্য কোন মাধ্যমে মেসির হাতের ট্যাটু কে ইলুমিনাতির প্রতীক হিসেবে কিংবা ইলুমিনাতির সদস্য প্রতীক হিসেবে মেসি এটি এঁকেছে এমন কোন তথ্যের অস্তিত্ব ইন্টারনেটে পাওয়া যায় নি। বরং বিভিন্ন মাধ্যমে পাওয়া তথ্য এবং তার হাতে থাকা চোখের ট্যাটুটি পর্যবেক্ষণ করে পাওয়া যায়, এটি তার স্ত্রীর আন্তেনেলার চোখের আদলে আঁকা ট্যাটু। মূলত মেসি তার স্ত্রীর প্রতি ভালোবাসা প্রকাশের মাধ্যম হিসেবে তার ডান হাতের বাইসেপ্সে চোখের এই ট্যাটু টি এঁকেছে।

এই চোখের ট্যাটু টি ছাড়াও মেসির শরীরে তার স্ত্রীর ঠোঁটের ট্যাটুও পাওয়া যায়। স্ত্রীর প্রতি ভালোবাসা প্রকাশের জন্য এই ট্যাটুটিও মেসি এঁকেছেন বলে জানা যায়। এছাড়াও মেসির শরীরে যিশু খ্রীস্টসহ অন্তত ১৮ টি ট্যাটু রয়েছে। 

অর্থাৎ, মেসি তার হাতে চোখের যে ট্যাটুটি করেছেন সেটি ইলুমিনাতি প্রতীক হিসেবে করেছেন শীর্ষক দাবিটি সঠিক নয়। 

নেইমারের শরীরে চোখের ট্যাটু কি ইলুমিনাতির চিহ্ন?

নেইমারের ডান হাতে আঁকা একটি চোখের ট্যাটু কে ঘিরেও বেশ কয়েকবছর ধরে বিভ্রান্তিকর তথ্য প্রচার হয়ে আসছে। তার হাতের চোখের ট্যাটু কে ইলুমিনাতির প্রতীক হিসেবে ধারণা করেই মূলত এসব দাবি প্রচার হয়ে আসছে।

নেইমারের

তবে নেইমারের হাতের এই চোখের ট্যাটু টি ইলুমিনাতির প্রতীক হিসেবে কিংবা দাজ্জালের এক চোখের কারণে আঁকা হয়নি বরং নেইমার তার বাবার চোখের আদলে এই চোখের ট্যাটু টি করেছেন। চোখের ট্যাটুর পাশাপশি একই সময়ে নেইমার ছেলে লুসার মুখচ্ছবির একটি ট্যাটুও করেছেন।

অনুসন্ধানে ব্রাজিলের সংবাদমাধ্যম Extra  এর ওয়েবসাইট extra.globo.com এ ২০১৮ সালের ১০ মে নেইমারের সেসময় করা তার ছেলের মুখচ্ছবি এবং চোখের ট্যাটু করার ওপর Neymar honors his father and son in tattoos; Photos শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন পাওয়া যায়।  

পর্তুগিজ ভাষায় প্রকাশিত প্রতিবেদনটি গুগল এর সাহায্যে ইংলিশে অনুবাদ করলে হয়,

“Tattoo is with himself… the ace Neymar paid tribute this week, with two tattoos, father Neymar and son Davi Lucca. On the same arm where he already has a tattoo of his sister Rafaella, Neymar recorded the father’s eye and the son making the ‘silence’ sign.”

অর্থাৎ, নেইমার তার বাহুতে তার বাবা Neymar Santos Sr. এর চোখের আদলে চোখের ট্যাটু এবং পুত্র Davi Lucca এর একটি ট্যাটু করেছেন।

পরবর্তীতে বৃটিশ সংবাদমাধ্যম The Sun এ প্রকাশিত ২০১৭ সালের একটি প্রতিবেদনেও একই তথ্য পাওয়া যায়। 

পরবর্তীতে ব্রাজিলিয়ান ট্যাটু আর্টিস্ট Adao Roso, যার প্রতিষ্ঠানে নেইমার সাধারণত ট্যাটু করে থাকেন, তার সোস্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্ট থেকে পাওয়া Nautica Tatto এর হোয়াটসঅ্যাপ নাম্বারে যোগাযোগ করে নেইমারের চোখের ট্যাটু টি তার বাবার চোখের আদলে তৈরি বিষয়টির সত্যতা জানতে চাইলে তারা রিউমর স্ক্যানার কে নিশ্চিত করেছেন যে, হ্যা, ট্যাটুটি তার(নেইমারের) বাবার চোখের।

এর পূর্বে ২০১৫ সালে নেইমারের বোন রাফায়েল্লা তার হাতে নেইমারের চোখের ট্যাটু করেছিলেন।  নেইমারের চোখের আদলে চোখের ট্যাটু টি তৈরি করার সময়ের ছবি দেখুন। 

Screenshot : Pinterest & Daily Mail

অর্থাৎ, নেইমার চোখের ট্যাটুটি তার বাবার চোখের আদলে তৈরি কর৷ এটি ইলুমিনাতির প্রতীক হিসেবে করা কোনো ট্যাটু নয়।

মূলত, মেসি এবং নেইমার তাদের শরীরে যথাক্রমে স্ত্রী এবং পিতার চোখের আদলে চোখের ট্যাটু করেছেন। মেসি ও নেইমারের শরীরে চোখের ট্যাটু থাকার প্রেক্ষিতে এটিকে গুপ্ত সংগঠন ইলুমিনাতির চোখের প্রতীকের সাথে মিলিয়ে তাদের ইলুমিনাতির সদস্য দাবি করার পাশপাশি চোখের ট্যাটুদ্বয়কে ইলুমিনাতি বা দাজ্জালের চিহ্ন হিসেবে প্রচার করা হয়ে আসছে।

আরো পড়ুনঃ দিবালার আরবি ট্যাটু ফিলিস্তিনের মুসলিম হত্যার প্রতিবাদে করা হয়নি

সুতরাং, মেসি ও নেইমার তাদের শরীরে যে চোখের ট্যাটু করেছে সেটি ইলুমিনাতির প্রতীক বা দাজ্জালের চিহ্ন হিসেবে করেছে শীর্ষক দাবিটি মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

  1. Messi’s Eye Tatto’s meaning – The Messi Store & Sports Mob etc
  2.  Neymer gets father eye’s tatto- Extra
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img