সোমবার, মে 20, 2024
spot_img

দিবালার আরবি ট্যাটু ফিলিস্তিনের মুসলিম হত্যার প্রতিবাদে করা হয়নি

“দিবালা খ্রিস্টান, কিন্তু আরবি টেটু তার শরীরে কেন এই প্রশ্ন তাইতো??? উত্তর ,,,, সে আরবি টেটু তার শরীরে দিয়ে ফিলিস্তিনের মুসলিম হত্যার প্রতিবাদ জানিয়েছে” শিরোনামে আর্জেন্টিনার ফুটবল তারকা পাওলো দিবালার শরীরে করা আরবি একটি ট্যাটু প্রদর্শিত ছবি সংযুক্ত একটি তথ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচারিত হয়েছে।

দিবালা

সম্প্রতি ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে
পোস্টগুলোর আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে

২০২১ সালে  ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে এবং এখানে
পোস্টগুলোর আর্কাইভ ভার্সন দেখুন দেখুন এখানে, এখানে এবং এখানে

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, ফিলিস্তিনের মুসলিম হত্যার প্রতিবাদে নয় বরং দিবালা নিজ মায়ের নামে উক্ত ট্যাটুটি করেছেন।

কি-ওয়ার্ড সার্চ পদ্ধতি ব্যবহার করে, ট্যাটু বিষয়ক ওয়েবসাইট tattoofilter এ পাওলো দিবালার শরীরের বিভিন্ন অংশের ট্যাটু নিয়ে একটি নিবন্ধ খুঁজে পাওয়া যায়। উক্ত নিবন্ধ থেকে জানা যায় পাওলো দিবালা তার বুকের বাম পাঁজরে হৃদয়ের পাশে আরবি ভাষায় তার মায়ের নামে আলোচিত এই ট্যাটুটি করেছেন।

পাশাপাশি, স্প্যানিশ ভাষার স্পোর্টস সংবাদমাধ্যম Mundo Deportivo-এর ওয়েবসাইটে ২০১৭ সালের ১২ সেপ্টেম্বর তারিখে “This is the meaning of Paulo Dybala’s tattoos(স্বয়ংক্রিয়ভাবে অনুবাদ)” শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়। এই প্রতিবেদনটিতেও দিবালার শরীরের আরবি ভাষার ট্যাটু সম্পর্কে একই কথা তথ্য দেওয়া হয়েছে।

Screenshot of the auto-translated article published by mundodeportivo 

উল্লিখিত প্রতিবেদনগুলো ছাড়াও একাধিক অনলাইন পোর্টালে বলা হয়েছে, দিবালার মায়ের নামে তার বুকে আলোচিত আরবি ট্যাটু করা হয়েছে।

এছাড়া বিভিন্ন জনপ্রিয় ফুটবলার কর্তৃক ফিলিস্তিনের মুসলিম হত্যার প্রতিবাদ করার তথ্য খুঁজে পাওয়া গেলেও পাওলো দিবালা কর্তৃক ফিলিস্তিনের হয়ে প্রতিবাদ করার কোনো তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি।

ফুটবলার ও সেলেব্রিটিদের আরবি ভাষায় ট্যাটু করার প্রবণতা

সেলেব্রিটিদের মধ্যে আরবি ভাষায় ট্যাটু করার প্রবণতা লক্ষ্য করা যায়। সেলেনা গোমেজ, অ্যাঞ্জেলিনা জোলি, জায়ান মালিক সহ অনেক সেলেব্রিটির আরবি ভাষায় ট্যাটু রয়েছে। তবে শুধুমাত্র আরবি ভাষাতেই নয়, আরবি ভাষা ছাড়াও চায়নিজ, জাপানিজের মতো বিদেশি ভাষায় ট্যাটু করার অসংখ্য উদাহরণ সেলেব্রিটিদের মধ্যে লক্ষ্য করা যায়। ফলে বলা যায় বিদেশি ভাষায় ট্যাটু করা অসাধারন কোনো বিষয় নয়। তাছাড়া, ফুটবলারদের মধ্যে পাওলো দিবালা ছাড়াও হেক্তর বেলেরিন, সার্জিও বুসকেটস সহ অনেক ফুটবলারদের আরবি ভাষায় ট্যাটু রয়েছে।

মূলত, জনপ্রিয় ফুটবলার পাওলো দিবালার বুকের বাম পাঁজরে আরবি ভাষায় একটি ট্যাটু রয়েছে। উক্ত ট্যাটুর একটি ছবি সংযুক্ত করে ‘ফিলিস্তিনের মুসলিম হত্যার প্রতিবাদ করার জন্য দিবালা তার শরীরে আরবি ট্যাটু করেছেন’ শীর্ষক একটি দাবি ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে। তবে অনুসন্ধানে জানা যায় পাওলো দিবালা উক্ত ট্যাটুটি নিজ মায়ের নামে করেছেন। এছাড়া দিবালা কর্তৃক ফিলিস্তিনের মুসলিম হত্যার প্রতিবাদ করার কোনো তথ্য ইন্টারনেটে খুঁজে পাওয়া যায়নি।

আরো পড়ুনঃ আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপ জেতার জন্য দোয়া ও মিলাদ মাহফিল করার ঘটনাটি বাস্তব নয় 

সুতরাং, পাওলো দিবালার শরীরে নিজ মায়ের নামের আরবি ভাষার একটি ট্যাটুকে ফিলিস্তিনের মুসলিম হত্যার প্রতিবাদে দিবালা আরবি ভাষায় ট্যাটু করেছেন দাবিতে ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে; যা সম্পূর্ণ মিথ্যা। 

তথ্যসূত্র

RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img