সোমবার, সেপ্টেম্বর 26, 2022
spot_img

হিজাব পরে শিক্ষাঙ্গনে যাওয়ার বিষয়ে এখনো কোন রায় দেয়নি কর্ণাটক হাইকোর্ট

সম্প্রতি, “ভারতের আজকের রায়ে হিজাব পরে শিক্ষাঙ্গনে যেতে পারবে মুসলিম মেয়েরা,আলহামদুলিল্লাহ।” শীর্ষক একটি তথ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, মুসলিম মেয়েদের হিজাব পরে শিক্ষাঙ্গনে যাওয়ার বিষয়ে কর্ণাটক হাইকোর্টের রায়ের বিষয়টি সত্য নয় বরং এই বিষয়ে এখনো শুনানি চলমান রয়েছে এবং চূড়ান্ত কোনো রায় এখন পর্যন্ত দেওয়া হয় নি।

কি-ওয়ার্ড সার্চ পদ্ধতির মাধ্যমে, ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ‘The Times of India’ এর ওয়েবসাইটে ‘Karnataka Hijab Row Live Updates: HC full bench adjourns hearing to Monday‘ শিরোনামে প্রকাশিত একটি লাইভ আপডেট প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot from Times of India Website

সর্বশেষ আপডেট অনুযায়ী সেখানে বলা হয়, আজ শুক্রবার কর্ণাটক হাইকোর্ট শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে হিজাবের নিষেধাজ্ঞাকে চ্যালেঞ্জ করে আবেদনের শুনানি ২১শে ফেব্রুয়ারি (সোমবার) পর্যন্ত স্থগিত করেছে। অর্থাৎ এই ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো রায় হয়নি এবং শুনানি এখনো চলমান, যা সোমবার পর্যন্ত মুলতবি ঘোষণা করা হয়েছে।

এছাড়াও, ভারতীয় অন্যান্য সংবাদমাধ্যমেও সর্বশেষ আপডেট হিসেবে এই একই তথ্য উল্লেখ করেছে, দেখুন এখানে এবং এখানে

Screenshot from Indian Express website

মূলত, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে হিজাব পরার নিষেধাজ্ঞা বিতর্কে করা মামলাটি কর্ণাটক হাইকোর্টের বৃহত্তর বেঞ্চে শুনানিরত অবস্থায় রয়েছে এবং সর্বশেষ আপডেট অনুযায়ী আগামী ২১শে ফেব্রুয়ারি সোমবার পর্যন্ত শুনানি স্থাগিত করা হয়েছে। তবে কর্ণাটক হাইকোর্ট কোনো রায় দেয়ার আগেই হিজাব পরে শিক্ষাঙ্গনে যেতে পারবে মুসলিম মেয়েরা শীর্ষক মিথ্যা দাবি সামাজিক মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে।

তাছাড়া, এর আগে গত ৯ ফেব্রুয়ারিতে এই একই বিষয়ে গুজব ছড়িয়ে পড়লে সেটিকে মিথ্যা শনাক্ত করে ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছিলো রিউমর স্ক্যানার।

উল্লেখ্য, হিজাব বিতর্কে কর্ণাটক সরকার আজ ১৮ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্টকে জানিয়েছে যে, হিজাব ইসলামের অপরিহার্য ধর্মীয় অনুশীলন নয়। এর ব্যবহার রোধ করা ভারতীয় সংবিধানের 25 অনুচ্ছেদ লঙ্ঘন করেনি, যা ধর্মীয় স্বাধীনতার নিশ্চয়তা দেয়।

রায়
Screenshot from NDTV website

প্রসঙ্গত, ভারতের কর্ণাটক রাজ্যের কয়েকটি কলেজে হিজাব পরিধান করা তাদের ইউনিফর্ম নীতিবিরুদ্ধ বলে ক্লাসের ভেতর হিজাব পরা নিষিদ্ধ ঘোষণা করলে হিজাব নিয়ে বিতর্কের সৃষ্টি হয়, যা পরবর্তীতে বৃহৎ আকার ধারণ করে এবং যা এখন পর্যন্ত চলমান। হিজাব নিষেধাজ্ঞার প্রতিবাদে এক মুসলিম ছাত্রী কর্ণাটক হাইকোর্টে মামলা করেন। যার প্রেক্ষিতে কর্ণাটক হাইকোর্টে মামলাটি বিচারাধীন রয়েছে। সর্বশেষ আপডেট অনুযায়ী মামলাটি নিয়ে এখন পর্যন্ত আদালত চূড়ান্ত কোন সিদ্ধান্ত দেননি।

সুতরাং, কর্ণাটক হাইকোর্টের রায় দাবিতে হিজাব পরে শিক্ষাঙ্গনে যেতে পারবে মুসলিম মেয়েরা শীর্ষক প্রচারিত তথ্যটি সম্পূর্ণ মিথ্যা।

[su_box title=”True or False” box_color=”#f30404″ radius=”0″]

  • Claim Review: ভারতের আজকের রায়ে হিজাব পরে শিক্ষাঙ্গনে যেতে পারবে মুসলিম মেয়েরা, আলহামদুলিল্লাহ
  • Claimed By: Facebook Posts
  • Fact Check: False

[/su_box]

তথ্যসূত্র

  1. Times of India: https://timesofindia.indiatimes.com/city/bengaluru/karnataka-live-updates-hijab-row-schools-colleges-udupi-bengaluru-protest-covid-cases-february-18/liveblog/89647188.cms
  2. News18: https://www.news18.com/news/india/hijab-row-live-updates-simmers-karnataka-hc-shivamogga-udupi-govt-pu-college-schools-headscarf-muslim-students-women-livenews-4784315.html
  3. Indian Express: https://indianexpress.com/article/cities/bangalore/karnataka-bengaluru-hijab-row-live-updates-college-protests-high-court-hearing-covid-7779305/
  4. NDTV: https://www.ndtv.com/karnataka-news/hijab-not-essential-to-islam-karnataka-tells-court-2775726
  5. NDTV: https://www.ndtv.com/india-news/explained-karnataka-hijab-row-and-timeline-of-events-2774140
RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img