ক্যাসেলফোর্ডের জয় বাংলা রেস্টুরেন্টে পাকিস্তানি রিসিপশনিস্ট রাখার দাবিটি মিথ্যা

ইংল্যান্ডের ক্যাসেলফোর্ডে একটা বাঙালী রেস্টুরেন্ট আছে, যেটার নাম ‘জয় বাংলা’। রেস্টুরেন্টের মালিক রিসিপশনে ইচ্ছে করেই এক পাকিস্তানিকে রেখেছে শুধুমাত্র ফোন রিসিভ করে হোটেলের নাম, ‘জয় বাংলা’ বলার জন্য। রেস্টুরেন্টে যতবার ফোন বাজে ততবারই সে অত্যন্ত বিনয়ের সাথে ফোন তুলে বলে, ‘হ্যালো, জয় বাংলা’! Address: Joy Bangla, 32 Bridge St, Castleford, United Kingdom.” শীর্ষক একটি তথ্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রচার হয়ে আসছে।

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে, এখানে
পোস্টগুলোর আর্কাইভ এখানে,এখানে, এখানে, এখানে, এখানে

এছাড়া, এই তথ্যটি গত কয়েকবছর ধরেই ফেসবুকে প্রচারিত হয়ে আসছে।

একই দাবিতে ইন্সটাগ্রামে প্রচারিত একটি পোস্ট দেখুন এখানে। আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, ইংল্যান্ডের ক্যাসেলফোর্ডে জয় বাংলা রেস্টুরেন্টের মালিক ইচ্ছে করে একজন পাকিস্তানিকে শুধুমাত্র ফোন রিসিভ করে হোটেলের নাম ‘জয় বাংলা’ বলার জন্য রিসিপশনে রেখেছে শীর্ষক দাবিটি সত্য নয়।

অনুসন্ধানে ইংল্যান্ডের ক্যাসেলফোর্ডে Joy Bangla নামের একটি রেস্টুরেন্ট থাকার বিষয়টির সত্যতা পাওয়া যায়। গুগল ম্যাপসে অনুসন্ধানে সহজেই রেস্টুরেন্টটি খুঁজে পাওয়া গেছে।

ফেসবুকে অনুসন্ধানেও ক্যাসেলফোর্ডের জয় বাংলা রেস্টুরেন্টটির একটি ফেসবুক পেজ খুঁজে পাওয়া যায়।

ভাইরাল দাবিটির সাথে সংযুক্ত রেস্টুরেন্ট এর ছবিটিও উক্ত ফেসবুক পেজে খুঁজে পাওয়া যায়। ২০১৫ সালের ২৯ নভেম্বর পেজটির প্রোফাইল ফটোতে রেস্টুরেন্টের ফ্রন্টভিউ এর এই ছবিটি আপলোড করা হয়েছিলো। এই ছবিটি সংযুক্ত করেই ভাইরাল গল্পটি প্রচার করা হচ্ছে।

পরবর্তীতে ভাইরাল গল্পটির সত্যতা জানতে চেয়ে পেজটিতে যোগাযোগ করে রিউমর স্ক্যানার। ভাইরাল পোস্টটির বাংলা এবং ইংলিশ অনুবাদ পাঠানো পূর্বক বিষয়টির সত্যতা জানতে চাইলে জয় বাংলা রেস্টুরেন্ট এর পক্ষ থেকে আমাদের নিশ্চিত করা হয়, “এটি সত্য নয়, কেন আমরা এমন করব।”

অর্থাৎ, যুক্তরাজ্যের ক্যাসেলফোর্ডের জয় বাংলা নামের রেস্টুরেন্টে একজন পাকিস্তানি রিসিপশনিস্টকে কল ধরে কেবল হ্যালো জয় বাংলা বলার জন্য রাখা হয়েছে শীর্ষক গল্পটি মিথ্যা। 

অপরদিকে অনুসন্ধানে ২০১৫ সালের ১৬ জুন জিসান ফেরদৌস রহমান নামের এক ব্যক্তির কর্টেসিতে সাবাজ আলী নামের একটি ফেসবুক আইডির একটি পোস্ট খুঁজে পাওয়া যায়। যেখানে একই গল্প ইংল্যান্ডের এডিনবার্গের জয় বাংলা রেস্টুরেন্টের নামে প্রচার করা হয়।

পরবর্তীতে যুক্তরাজ্যোর এডিনবার্গে জয় বাংলা নামের কোন রেস্টুরেন্ট আছে কি না তা অনুসন্ধান করতে গিয়ে দেখা যায়, উক্ত লোকেশনে জয় বাংলা নামের একটি রেস্টুরেন্ট পূর্বে ছিলো, বর্তমানে সেটি পার্মানেন্টলি বন্ধ। 

ফুড ডেলিভারি প্রতিষ্ঠান Zomato তে Joy Bangla Take Away রেস্টুরেন্টটির একটি ছবি পেলেও সেখান থেকেও জানা যায় রেস্টুরেন্টটি Permanently Closed.

পার্মানেন্টলি অনেক আগেই বন্ধ হয়ে যাওয়ায় উক্ত রেস্টুরেন্টের সাথে যোগাযোগ করা যায়নি। তাই উক্ত রেস্টুরেন্টের রিসিপশনে পাকিস্তানি রাখার যে দাবিটি ২০১৫ সালে প্রচার করা হয় সেটির সত্যতা যাচাই করা সম্ভব হয়নি। তবে এডিনবার্গের জয় বাংলা রেস্টুরেন্টে পাকিস্তানি রিসিপশনিস্ট কেবলমাত্র জয়বাংলা বলার জন্য রাখা হয়েছিলো কি না তা নিশ্চিত না হওয়া গেলেও এটা নিশ্চিত হওয়া যায় যে এডিনবার্গ রেস্টুরেন্টের দাবি করে প্রচারিত গল্পটি পরবর্তীতে ক্যাসেলফোর্ডের জয় বাংলা রেস্টুরেন্ট এর ছবি ব্যবহার করে ক্যাসেলফোর্ডে অবস্থিত জয় বাংলা রেস্টুরেন্টটির নামে প্রচার করা হয়েছে। 

সুতরাং, যুক্তরাজ্যের ক্যাসেলফোর্ডে অবস্থিত ‘জয় বাংলা’ নামের রেস্টুরেন্টের রিসিপশনে ইচ্ছে করে কেবলমাত্র জয় বাংলা বলাতে পাকিস্তানি রিসিপশনিস্ট রাখার দাবিটি মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

  • Joy Bangla Restaurant, Castleford statement to Rumor Scanner.
RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img