কাতার বিশ্বকাপে ডা. জাকির নায়েকের বক্তৃতা শুনে ৪ জনের ইসলাম গ্রহণের দাবিটি মিথ্যা

সম্প্রতি “কাতার ফুটবল বিশ্বকাপে ডাঃ জাকির নায়েকের প্রথম বক্তৃতায় ৪ জন ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন” শীর্ষক একটি তথ্য ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়েছে।

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে, এখানে, এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে
পোস্টগুলোর আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে, এখানে, এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে

ইউটিউবে প্রচারিত কিছু ভিডিওর আর্কাইভ ভার্সন দেখুন  এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে

টিকটকে প্রচারিত এমন কিছু ভিডিওর আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, কাতার বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে ডা. জাকির নায়েকের দেওয়া বক্তব্য শুনে ৪ জন অমুসলিম ব্যক্তির ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করার দাবিটি সত্য নয় বরং ৬ বছর পূর্বে কাতারে অনুষ্ঠিত ভিন্ন একটি অনুষ্ঠানের ভিডিও সংযুক্ত করে উক্ত দাবিটি প্রচার করা হচ্ছে এবং বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ডা. জাকির নায়েক উপস্থিত থাকার কোনো তথ্য বিশ্বস্ত কোনো সূত্রে খুঁজে পাওয়া যায়নি।

গুজবের সূত্রপাত

অনুসন্ধানের মাধ্যম দেখা যায়, গত ২০ নভেম্বর ডা. জাকির নায়েকের নামের একটি ভুয়া ফেসবুক পেজ থেকে উক্ত তথ্যটি প্রচারিত হয়।

এর পরবর্তী সময়ে ডা. জাকির নায়েকের নামের অন্য আরেকটি ভুয়া ফেসবুক পেজ থেকে  “Masha Allah. People Starting Accepting Islam in Qatar” ক্যাপশনে একটি ভিডিও প্রচার করা হয়।

পরবর্তীতে উক্ত ভিডিওর সাথে দাবিটি সংযুক্ত করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে।

রিভার্স ইমেজ সার্চ পদ্ধতি ব্যবহার করে, ‘abdelghani boudra’ নামের একটি ইউটিউব চ্যানেলে ২০১৬ সালের ২৭ মে তারিখে “4 people converted to Islam immediately after the end of Zakir Naik’s lecture in Katara” (স্বয়ংক্রিয়ভাবে অনুবাদিত) শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত হুবহু একই ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়।

উক্ত ভিডিওটির সূত্র ধরে কি-ওয়ার্ড সার্চ করে, Meer Mohammed Yehya নামের একটি ইউটিউব চ্যানেলে ২০১৬ সালের ২৯ মে তারিখে “Accepting Islam in Doha Qatar” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একই স্থানের ভিন্ন কোণ থেকে ধারণ করা একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়। ভিডিওটির বর্ণনায় উল্লেখ করা হয়েছে, ‘Dr Zakir Naik in Doha Qatar at Katara 26.05.2016’। যা দেখে বুঝা যায় এটি কাতারের দোহা শহরে ২০১৬ সালের ২৬ মে তারিখে হওয়া ডা. জাকির নায়েকের কোনো অনুষ্ঠানের ভিডিও।

Screenshot Source: Meer Mohammed Yehya

পরবর্তীতে, ডা. জাকির নায়েকের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে ২০১৬ সালের ২৫ মে তারিখে প্রকাশিত একটি পোস্ট খুঁজে পাওয়া যায়। যা থেকে জানা যায়, ২০১৬ সালের ২৬ মে তারিখে কাতারের দোহা শহরে ডা. জাকির নায়েকের একটি সেমিনার ছিলো।

Screenshot Source: Dr Zakir Naik

এছাড়া, কাতারে অনুষ্ঠিত ফিফা ফুটবল বিশ্বকাপ-২০২২ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ডা. জাকির নায়েকের উপস্থিতির কোনো তথ্যও বিশ্বস্ত কোনো সূত্রে খুঁজে পাওয়া যায়নি।

মূলত, ডা. জাকির নায়েক এর নামে পরিচালিত একটি ভুয়া ফেসবুক পেজে ‘৪ জনের ইসলাম গ্রহণের’ দাবিতে একটি পোস্ট প্রচার করা হয়। পরবর্তীতে ড. জাকির নায়েকের নামে পরিচালিত অন্য একটি ফেক পেজ থেকে ‘কাতারে মানুষ ইসলাম গ্রহণ শুরু করেছে’ ক্যাপশনে একটি ভিডিও প্রচারিত হয়, যা দ্রুতই  ‘কাতার বিশ্বকাপে জাকির নায়েকের প্রথম বক্তৃতার পর ৪ জন ইসলাম গ্রহণ করেছে’ ক্যাপশনে ছড়িয়ে পড়ে। তবে প্রকৃতপক্ষে এই ভিডিওটি ২০১৬ সালে ৪ জন ব্যক্তির ইসলাম গ্রহণের ঘটনার।

উল্লেখ্য, একাধিক গণমাধ্যমে কাতারের সরকারি স্পোর্টস টিভির উপস্থাপক ফয়সাল আলহাজিরির করা টুইটকে সূত্র দেখিয়ে ‘বিশ্বকাপের সময়কালে ইসলাম প্রচারের কাজের জন্য বর্তমানে ড. জাকির নায়েক কাতারে অবস্থান করছেন’ শীর্ষক একটি তথ্য প্রচারিত হয়েছে। তবে এ বিষয়ে ডা. জাকির নায়েকের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে কোনো পোস্ট পাওয়া যায়নি।

Screenshot Source: فيصل الهاجري

সুতরাং, ৬ বছর পূর্বে কাতারে অনুষ্ঠিত একটি অনুষ্ঠানে ৪জন অমুসলিম ব্যক্তির ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করার একটি ভিডিও সংযুক্ত করে ‘কাতার বিশ্বকাপে জাকির নায়েকের প্রথম বক্তৃতার পর ৪ জন ইসলাম গ্রহণ করেছে’ শীর্ষক একটি দাবি প্রচার করা হচ্ছে; যা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img