এনটিভি’র ফটোকার্ড নকল করে মামুনুল হককে নিয়ে ভুয়া তথ্য প্রচার

বিভিন্ন মামলায় দীর্ঘসময় কারাভোগের পর গত ০৩ মে কারাগার থেকে মুক্তি পেয়েছেন হেফাজতে ইসলামের বিলুপ্ত কমিটির কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক। এরই প্রেক্ষিতে “কারামুক্ত হলেন হেফাজত নেতা মামুনুল হক ৫০১ নাম্বার রুম অগ্রিম বুকিং” শীর্ষক একটি তথ্য মূলধারার গণমাধ্যম এনটিভি’র আদলে তৈরি একটি ফটোকার্ডের মাধ্যমে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হয়েছে।

মামুনুল হক

ফেসবুকে প্রচারিত পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ)। 

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, মাওলানা মামুনুল হককে নিয়ে এমন কোনো সংবাদ বা ফটোকার্ড এনটিভি প্রকাশ করেনি বরং মামুনুল হক নিয়ে এনটিভির ফেসবুক পেজে প্রচারিত একটি ফটোকার্ড ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় এডিট করে আলোচিত ফটোকার্ডটি তৈরি করা হয়েছে। 

অনুসন্ধানের শুরুতে এনটিভি’র আদলে তৈরি করা আলোচিত ফটোকার্ডটি পর্যবেক্ষণ করে রিউমর স্ক্যানার টিম। সেখানে এই সংবাদটি প্রচারের তারিখ উল্লেখ করা হয়েছে ০৩ মে ২০২৪।  

Screenshot: Facebook Claim Post

দাবিটির সত্যতা যাচাইয়ে আলোচিত ফটোকার্ডটিতে থাকা তারিখ এবং এনটিভি’র লোগোর সূত্র ধরে এনটিভি’র ওয়েবসাইট ওভেরিফাইড ফেসবুক পেজে গত ০৩ মে প্রচারিত ফটোকার্ডগুলো পর্যালোচনা করে উক্ত শিরোনাম বা তথ্য সম্বলিত কোনো ফটোকার্ড খুঁজে পাওয়া যায়নি। এছাড়া অন্য কোনো গণমাধ্যমেও উক্ত দাবির বিষয়ে কোনো সংবাদ বা ফটোকার্ড খুঁজে পাওয়া যায়নি। 

তবে গত ০৩ মে এনটিভি’র ফেসবুক পেজে ‘কারামুক্ত হলেন হেফাজত নেতা মামুনুল হক’ শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি ফটোকার্ড এবং এর কমেন্টে একই শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।  

Screenshot: Ntv Facebook Page 

প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, গত ০৩ মে হেফাজতে ইসলামের নেতা মাওলানা মামুনুল হক গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগার থেকে মুক্তি পেয়েছেন। হেফাজতের কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক মাওলানা আফসার মাহমুদ এনটিভি অনলাইনকে মামুনুল হকের কারামুক্তির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

এনটিভি’র এই ফটোকার্ডটি পর্যালোচনা করে দেখা যায়, আলোচিত ফটোকার্ডের সাথে উক্ত ফটোকার্ডের ডিজাইন এবং ফটোকার্ডে থাকা তারিখ ও ছবির হুবহু মিল রয়েছে। তবে, ফটোকার্ডের শিরোনামের ফন্টের পার্থক্য রয়েছে। 

Photocard Comparison: Rumor Scanner 

অর্থাৎ, এনটিভি’র ফেসবুক পেজে ০৩ মে প্রচারিত এই ফটোকার্ডটির শিরোনাম এডিট করে তাতে ‘কারামুক্ত হলেন হেফাজত নেতা মামুনুল হক ৫০১ নাম্বার রুম অগ্রিম বুকিং’ শীর্ষক শিরোনাম যুক্ত করে আলোচিত ফটোকার্ডটি তৈরি করা হয়েছে।  

মূলত, গত ০৩ মে বিলুপ্ত কমিটির কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগার থেকে মুক্তি পেয়েছেন। এরই প্রেক্ষিতে এনটিভি’র ফেসবুক পেজে ‘কারামুক্ত হলেন হেফাজত নেতা মামুনুল হক’ শীর্ষক শিরোনামে একটি ফটোকার্ড প্রচার করা হয়। পরবর্তীতে ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় উক্ত ফটোকার্ডটির শিরোনাম বিকৃত করে তাতে ‘কারামুক্ত হলেন হেফাজত নেতা মামুনুল হক ৫০১ নাম্বার রুম অগ্রিম বুকিং’ শীর্ষক শিরোনাম যুক্ত করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হয়। 

প্রসঙ্গত, ২০২১ সালের ৩ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের রয়েল রিসোর্টে এক নারীর সঙ্গে হেফাজত নেতা মাওলানা মামুনুল হককে অবরুদ্ধ করেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা। খবর পেয়ে হেফাজতের স্থানীয় নেতাকর্মীরা রিসোর্টে গিয়ে ভাঙচুর চালিয়ে তাকে ছিনিয়ে নিয়ে যান। পরবর্তীতে ১৮ এপ্রিল একটি মাদ্রাসা থেকে মাওলানা মামুনুল হককে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে ৩০ এপ্রিল সোনারগাঁ থানায় তার বিরুদ্ধে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের মামলা করেন তার সঙ্গে রিসোর্টে অবরুদ্ধ হওয়া নারী। এরপর ওই মাসেই দেশের বিভিন্ন স্থানে তার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহসহ অর্ধশতাধিক মামলা হয়। সেসব মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখায় পুলিশ। গ্রেপ্তারের পর থেকে গত ০৩ মে পর্যন্ত তিনি কারাগারে ছিলেন। 

সুতরাং, মূলধারার গণমাধ্যম এনটিভিকে উদ্ধৃত করে ‘কারামুক্ত হলেন হেফাজত নেতা মামুনুল হক ৫০১ নাম্বার রুম অগ্রিম বুকিং’ শীর্ষক দাবিতে ফেসবুকে প্রচারিত তথ্যটি মিথ্যা এবং উক্ত দাবিতে প্রচারিত ফটোকার্ডটি এডিটেড বা বিকৃত। 

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img