স্ত্রীর গোশত খেতে পারবে স্বামী শীর্ষক কোন ফতোয়া সৌদির গ্রান্ড মুফতি দেননি

সম্প্রতি “স্ত্রীর গোশত খেতে পারবে স্বামী: সৌদির গ্র্যান্ড মুফতি!” শীর্ষক শিরোনামে একটি তথ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানেএখানে। পোস্টগুলোর আর্কাইভ দেখুন এখানে, এখানে, এখানেএখানে

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, ‘স্ত্রীর গোশত খেতে পারবে স্বামী’ শীর্ষক কোন ফতোয়া সৌদির গ্রান্ড মুফতি দেননি বরং ২০১৫ সালে মরক্কোর এক স্যাটায়ারিস্ট ব্লগার এক ওয়েবসাইটে ব্যাঙ্গাত্মক আকারে ভুয়া ফতোয়াটি সৌদির গ্রান্ড মুফতির নামে প্রচার করেছিলো। 

কিওয়ার্ড সার্চ করার মাধ্যমে সৌদি গণমাধ্যম Al Arabiya তে ২০১৫ সালের ১০ এপ্রিল “Saudi Grand Mufti DENIES fatwa allowing men to eat wives” শিরোনামে প্রচারিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, সৌদি গ্রান্ড মুফতি শেখ আবদুল আজিজ বিন আবদুল্লাহ ‘জীবন বাঁচানোর ক্ষেত্রে একজন ক্ষুধার্ত পুরুষ স্ত্রীর গোশত খেতে পারবেন’ শীর্ষক কোন ফতোয়া (ধর্মীয় আদেশ) জারি করেননি বলে জানিয়েছেন।

তিনি ভুয়া এই ফতোয়া প্রচারের বিষয়টি নিয়ে জানিয়েছেন, এটি ইসলামের ভাবমূর্তি বিকৃত করার প্রচেষ্টার আওতায় পড়ে,  যা ভেদাভেদ ছাড়াই মানবজাতিকে উন্নত মর্যাদা দিয়েছে, সে নারী হোক বা পুরুষ।”  

পরবর্তীতে অনুসন্ধানে বিষয়টি নিয়ে CNN Arabic সংস্করণে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ‘Goud’ নামের একটি আরবি ভাষার একটি মরোক্কোর ওয়েবসাইট ব্যাঙ্গাত্মক রূপে ভুয়া ফতোয়াটি প্রথম প্রকাশ করেছিলো। সৌদির গ্র্যান্ড মুফতি আব্দুল আজিজ বিন আব্দুল্লাহ এর নামে এই ব্যাঙ্গাত্মক প্রতিবেদনটি লেখা হয়েছিলো। সেখান থেকেই এই গুজবের উৎপত্তি।

পরবর্তীতে সংবাদমাধ্যম  Middle East Eye তে  Saudi mufti: ‘Eat wife fatwa fabricated to ‘distort image of Islam’ শীর্ষক প্রতিবেদন থেকে সৌদি প্রেস এজেন্সির মাধ্যমে সৌদি গ্রান্ড মুফতি শেখ আবদুল আজিজ বিন আবদুল্লাহ এর এই ভুয়া ফতোয়ার প্রেক্ষিতে দেয়া প্রেস বিজ্ঞপ্তিটি খুঁজে পাওয়া যায়। সৌদি প্রেস এজেন্সির মাধ্যমে প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিটি দেখুন এখানে।

মূলত, ২০১৫ সালে মরক্কোর এক স্যাটায়ারিস্ট ব্লগার এক ওয়েবসাইটে ব্যাঙ্গাত্মক আকারে সৌদি গ্রান্ড মুফতির নামে এই ফতোয়াটি নিয়ে একটি ব্যাঙ্গাত্মক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছিলেন। সেসময় থেকেই পরবর্তীতে সৌদি গ্রান্ড মুফতি শায়খ আব্দুল আজিজ বিন আব্দুল্লাহ এর দেয়া ফতোয়া হিসেবে ‘স্ত্রীর গোশত খেতে পারবেন স্বামী’ শীর্ষক ভুয়া ফতোয়াটি প্রচার হয়ে আসছে।

সুতরাং, স্ত্রীর গোশত খেতে পারবে স্বামী শীর্ষক কোন ফাতোয়া সৌদি গ্রান্ড মুফতি দেননি এবং তার নামে এই ফতোয়া প্রচারের বিষয়টি মিথ্যা।

 তথ্যসূত্র

RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img