ঈদের সালামি চাইতে গিয়ে প্রেম ও বিয়ের দাবিতে প্রথম আলোর লোগোযুক্ত ভুয়া স্ক্রিনশট প্রচার 

সম্প্রতি, ‘ঈদের সালামি চাইতে গিয়ে প্রেম অত:পর বিয়ে’ শীর্ষক শিরোনামে দৈনিক প্রথম আলোর ওয়েবসাইটে প্রকাশিত  প্রতিবেদনের  স্ক্রিনশট দাবিতে একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হয়েছে। 

ঈদের সালামি

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)। 

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, জাতীয় দৈনিক প্রথম আলো তাদের ওয়েবসাইটে ‘ঈদের সালামি চাইতে গিয়ে প্রেম অত:পর বিয়ে’ শীর্ষক শিরোনামে কোনো প্রতিবেদন প্রকাশ করেনি। প্রকৃতপক্ষে, ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় সম্পাদনার মাধ্যমে প্রথম আলোর ওয়েবসাইটের প্রতিবেদনের আদলে আলোচিত স্ক্রিনশটটি তৈরি করা হয়েছে।

অনুসন্ধানের শুরুতে আলোচিত স্ক্রিনশটটি পর্যালোচনা করে দেখে রিউমর স্ক্যানার টিম। এতে দেখা যায়, ‘ঈদের সালামি চাইতে গিয়ে প্রেম অত:পর বিয়ে’ শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত প্রতিবেদনটিতে প্রথম আলোর লোগোর পাশাপাশি এটি প্রকাশের তারিখ হিসেবে ১০ এপ্রিল ২০২৪ উল্লেখ করা হয়েছে।

উক্ত দাবিটির সত্যতা যাচাইয়ে লোগো এবং তারিখের সূত্র ধরে প্রথম আলোর ফেসবুক পেজ এবং ওয়েবসাইট অনুসন্ধান করেও গত ১০ এপ্রিল প্রকাশিত এমন কোনো প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়নি। 

পরবর্তীতে একই দিনে প্রথম আলোর ওয়েবসাইটে সালামি জমিয়ে একটা ক্রিকেট ব্যাট কিনেছিলাম শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনের স্ক্রিনশটের সাথে আলোচিত স্ক্রিনশটটির তুলনামূলক বিশ্লেষণ করে রিউমর স্ক্যানার টিম।

প্রতিবেদন দুটির স্ক্রিনশট পাশাপাশি পর্যালোচনা করে দেখা যায়, দুটো প্রতিবেদনের শিরোনামের ফন্টের রঙের ভিন্নতাও লক্ষ্য করা যায়।

পরবর্তীতে আলোচিত প্রতিবেদনের প্রতিবেদক ‘তোজিস্লাম’ নামটির সূত্র ধরে প্রাসঙ্গিক কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে Toji Islam নামের একটি ফেসবুক পেজে গত ১০ এপ্রিল করা সম্ভাব্য প্রথম পোস্টটি খুঁজে পাওয়া যায়। প্রথম আলোর প্রতিবেদনের আদলে তৈরি স্ক্রিনশটে থাকা প্রতিবেদকের নাম ‘তোজিস্লাম’ এর সাথে উক্ত পেজের ইংরেজি নামের মিল রয়েছে।

Screenshot: Facebook 

অর্থাৎ, প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে এটি প্রতীয়মান হয় যে, Toji Islam নামের পেজটি থেকে প্রথম আলোর প্রতিবেদনের আদলে এই  স্ক্রিনশটটি তৈরি করে তা ইন্টারনেটে প্রচার করা হয়।

মূলত, গত ১১ এপ্রিল ছিল মুসলিম জনগোষ্ঠীর বৃহত্তম ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর। ঈদকে কেন্দ্র করে সালামি দেওয়া নেওয়া নিয়ে প্রতিবছরই তরুণ-তরুণীদের মাঝে এক উচ্ছ্বাস বিরাজ করে। মোবাইলে আর্থিক সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান বিকাশের সুবাদে গত কয়েকবছরে যা এক নতুন মাত্রা পেয়েছে। তরুণ সমাজে গড়ে উঠেছে সালামি চাওয়ার এক নতুন সংস্কৃতি। এরই প্রেক্ষিতে সম্প্রতি, ‘ঈদের সালামি চাইতে গিয়ে প্রেম অত:পর বিয়ে’ শীর্ষক শিরোনামে প্রথম আলোর ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন দাবিতে একটি স্ক্রিনশট সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হয়েছে। তবে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে দেখা যায়, প্রথম আলো এমন কোনো সংবাদ প্রকাশ করেনি। প্রকৃতপক্ষে, Toji Islam নামের একটি ফেসবুক পেজ থেকে ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় আলোচিত স্ক্রিনশটটি তৈরি করে ইন্টারনেটে প্রচার করা হয়।

সুতরাং, ‘ঈদের সালামি চাইতে গিয়ে প্রেম অতঃপর বিয়ে’ শীর্ষক শিরোনামে দৈনিক প্রথম আলোর সংবাদ দাবিতে  প্রচারিত স্ক্রিনশটটি ভুয়া ও বানোয়াট।

তথ্যসূত্র

সংশোধন/ Correction

২৯ জুন, ২০২৪ : বিভিন্ন ওয়েবসাইটগুলো মোবাইল ডিভাইসে ওয়েব পেজগুলোর লোডিং স্পিড বৃদ্ধি এবং ব্যবহারকারীদের উন্নত অভিজ্ঞতা প্রদানের জন্য এএমপি (AMP) সংস্করণ ব্যবহার করে। প্রথম আলোর অনেক প্রতিবেদনেও এএমপি এবং সাধারণ সংস্করণ দেখা যায়। এই প্রতিবেদনের একটি অংশে আলোচ্য স্ক্রিনশটটি এডিটেড প্রমাণ করতে গিয়ে আমরা প্রথম আলোর সাধারণ সংস্করণের প্রতিবেদনের স্ক্রিনশটের সাথে আলোচ্য স্ক্রিনশটটির পার্থক্য দেখাই। তবে আলোচ্য স্ক্রিনশটটি সাধারণ সংস্করণের প্রতিবেদনের স্ক্রিনশট এডিট করে তৈরি করা হয়নি বরং এএমপি সংস্করণের প্রতিবেদনের স্ক্রিনশট এডিট করে তৈরি করা হয়েছে। একজন সচেতন পাঠক এএমপি ভার্সনের বিষয়টি অবহিত করলে প্রতিবেদন থেকে উক্ত বিষয়টি প্রত্যাহার করা হয়।

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img