রবিবার, জুলাই 21, 2024
spot_img

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুলের পদত্যাগের গুজব

সম্প্রতি, দেশে ফিরেই মির্জা ফখরুলের পদত্যাগ, কে হচ্ছেন বিএনপির মহাসচিব শীর্ষক থাম্বনেইলে একটি ভিডিও ইন্টারনেটে প্রচার করা হয়েছে।

ইউটিউবে প্রচারিত ভিডিওটি দেখুন এখানে (আর্কাইভ)। 

ফখরুলের পদত্যাগের

এই প্রতিবেদন প্রকাশ হওয়া অবধি ভিডিওটি দেখা হয়েছে ৪ হাজার ছয়শত ২৫ বার। ভিডিওটিতে ১০০টি পৃথক অ্যাকাউন্ট থেকে প্রতিক্রিয়া জানানো হয়েছে।

একই দাবিতে ফেসবুকে প্রচারিত পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসমন্ধানে জানা যায়, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর পদত্যাগ করেননি বরং ভিন্ন ভিন্ন প্রেক্ষাপটের ভিডিও যুক্ত করে কোনোপ্রকার নির্ভরযোগ্য তথ্যপ্রমাণ ছাড়াই আলোচিত ভিডিওটি তৈরি করা হয়েছে।

অনুসন্ধানের শুরুতে আলোচিত ভিডিওটি পর্যবেক্ষণ করে উক্ত ভিডিওটির কোথাও বিএনপি থেকে মির্জা ফখরুলের পদত্যাগের দাবি সম্পর্কিত প্রমাণ উপস্থাপন করতে দেখা যায়নি। এমনকি ভিডিওটিতে আলোচিত দাবির সাথে প্রাসঙ্গিক কোনো তথ্যের উল্লেখ পাওয়া যায়নি। অর্থাৎ ভিডিওটি’র থাম্বনেইলে প্রচারিত দাবিটির সাথে বিস্তারিত অংশের অসামঞ্জস্যতা রয়েছে।

আলোচিত ভিডিওটিতে প্রচারিত দাবির বিষয়ে আরও অনুসন্ধানে ভিডিওটিতে দেখানো ভিডিও ক্লিপগুলোর বিষয়ে আলাদাভাবে অনুসন্ধান চালায় রিউমর স্ক্যানার টিম।

ভিডিও যাচাই ০১

আলোচিত ভিডিওটিতে প্রথম দিকের ক্লিপটিতে প্রদর্শিত সিনিয়র সাংবাদিক ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক মোস্তফা ফিরোজ’র বক্তব্যের সূত্র ধরে প্রাসঙ্গিক কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে Voice Bangla এর ইউটিউব চ্যানেলে গত ৪ এপ্রিল “বিএনপির মহাসচিব পরিবর্তন এবং স্থায়ী কমিটিতে নতুন মুখের আলোচনা কেন? Mostofa Feroz I Voice Bangla” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়।

উক্ত ভিডিওর একটি অংশই আলোচিত দাবিতে প্রচারিত ভিডিওতে ব্যবহার করা হয়েছে।

Video Comparison: Rumor Scanner

ভিডিও থেকে জানা যায়, সেদিন তিনি বিএনপির মহাসচিবের পরিবর্তন হওয়া এবং স্থায়ী কমিটিতে নতুন মুখ আসার সম্ভাবনা নিয়ে আলোচনা করেন। তবে এই ভিডিওতে তিনি মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের পদত্যাগের দাবির বিষয়ে কোনো কথা বলেননি। 

ভিডিও যাচাই ০২

ভিডিওটির বিষয়ে অনুসন্ধানে বেসরকারি ইলেক্ট্রনিক গণমাধ্যম মাছরাঙা টিভির ইউটিউব চ্যানেলে গত ২৩ ফেব্রুয়ারি “যারা পণ্য লুকিয়ে দাম বাড়ায় তাদের গণধোলাই দেয়া উচিত : প্রধানমন্ত্রী” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়।

উক্ত ভিডিওর একটি অংশই আলোচিত দাবিতে প্রচারিত ভিডিওতে ব্যবহার করা হয়েছে।

Video Comparison: Rumor Scanner

ভিডিও থেকে জানা যায়, নিত্যপণ্যের দাম বাড়া নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কথা বলেন। তিনি বলেন, “লুকিয়ে রেখে দাম বাড়ানো। আপনাদের কি মনে হয় না যারা সরকার উৎখাতে আন্দোলন করে এখানে তাদেরও কিছু কারসাজি আছে? এর আগেও পিয়াজের খুব অভাব, দেখা গেছে বস্তা কে বস্তা পিয়াজ পানিতে ফেলে দিয়েছে”।

গত ৩ মার্চ বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সিঙ্গাপুরে চিকিৎসার উদ্দেশ্যে সিঙ্গাপুর গমন করেন। চিকিৎসা শেষে গত ২৩ মার্চ তিনি দেশে ফেরেন।

মূলত, গত ২৩ মার্চ বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর চিকিৎসা শেষে সিঙ্গাপুর থেকে দেশে ফেরেন। এরই প্রেক্ষিতে অনলাইন এক্টিভিস্ট ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক মোস্তফা ফিরোজ তার ইউটিউব চ্যানেলে বিএনপির মহাসচিবের পরিবর্তন হওয়া এবং স্থায়ী কমিটিতে নতুন মুখ আসার সম্ভাবনা নিয়ে নিজের মতামত সম্বলিত একটি ভিডিও প্রকাশ করেন। এছাড়া, গত ২৩ ফেব্রুয়ারি নিত্যপণ্যের দাম বাড়া নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, “লুকিয়ে রেখে দাম বাড়ানো। আপনাদের কি মনে হয় না যারা সরকার উৎখাতে আন্দোলন করে এখানে তাদেরও কিছু কারসাজি আছে? এর আগেও পিয়াজের খুব অভাব, দেখা গেছে বস্তা কে বস্তা পিয়াজ পানিতে ফেলে দিয়েছে”। সম্প্রতি, এই ভিডিও ফুটেজগুলো একত্রে যুক্ত করে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর পদত্যাগ করেছেন দাবিতে ইন্টারনেটে প্রচার করা হয়েছে। প্রকৃতপক্ষে, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর পদত্যাগ করেননি।

সুতরাং, বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর পদত্যাগ করেছেন দাবিতে ইন্টারনেটে প্রচারিত তথ্যটি সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img