শনিবার, এপ্রিল 13, 2024
spot_img

ফিলিস্তিন ইস্যুতে পুতিনের পুরোনো বক্তব্যের ভিডিওতে ভিন্ন দাবি যুক্ত করে প্রচার

সম্প্রতি, “আমি আমেরিকাকে সতর্ক করে দিচ্ছি, যেন ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের মধ্যে যুদ্ধে হস্তক্ষেপ না করে। আমেরিকা যদি তা করে, আমরা খোলাখুলিভাবে ফিলিস্তিনকে সাহায্য করব।” শীর্ষক একটি বক্তব্য রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন দিয়েছেন দাবিতে ইন্টারনেটে প্রচার করা হচ্ছে।

ফিলিস্তিন

উক্ত দাবিতে ফেসবুকে প্রচারিত ভিডিও দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন সাম্প্রতিক ফিলিস্তিন-ইসরায়েল সংঘাত ইস্যুতে আমেরিকাকে হস্তক্ষেপ না করার বিষয়ে কোনো বক্তব্য দেননি বরং ২০২২ সালে মানবাধিকার নিয়ে পুতিনের দেওয়া বক্তব্যের ভিডিওর সাবটাইটেল এডিটের মাধ্যমে পরিবর্তন করে উক্ত দাবিতে প্রচার করা হচ্ছে।

ভিডিওটির সত্যতা যাচাইয়ের জন্য রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম ‘USA Today’ এর ইউটিউব চ্যানেলে ২০২০ সালের ০৮ ডিসেম্বর প্রকাশিত একটি ভিডিওর সাথে আলোচিত ভিডিওটির মিল খুঁজে পাওয়া যায়।

Video Comparison: Rumor Scanner

ভিডিওটির বিস্তারিত বিবরণী থেকে জানা যায়, ২০২২ সালের ০৮ ডিসেম্বরে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন মানবাধিকার কাউন্সিলের সভায় বক্তব্য রাখছিলেন। সেই সভায় তিনি পারমাণবিক অস্ত্র এবং যুদ্ধের হুমকি নিয়ে কথা বলেছিলেন। তিনি বলেন, রাশিয়া কখনই ইউক্রেনের উপর পারমাণবিক হামলা শুরু করবে না। রাশিয়া পারমাণবিক অস্ত্রকে কেবল সুরক্ষা বা আত্মরক্ষার উপায় হিসেবে ব্যবহার করবে।

তবে উক্ত ভিডিওতে পুতিন ফিলিস্তিন-ইসরায়েল সংঘাত ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্রকে নিয়ে কোনো কথা বলেননি।

তাছাড়া, প্রেসিডেন্ট পুতিন সাম্প্রতিক ফিলিস্তিন-ইসরায়েল সংঘাত ইস্যুতে আমেরিকাকে হস্তক্ষেপ করতে বাধা দেওয়া সংক্রান্ত কোনো মন্তব্য করেছেন শীর্ষক দাবিতে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে কোনো সংবাদ খুঁজে পাওয়া যায়নি।

তবে অনুসন্ধানে আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থা ‘Reuters’ এর ওয়েবসাইটে গত ১১ অক্টোবর “Putin blames failure of US policy for Mideast conflict, Russia says talking to both sides” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ফিলিস্তিন-ইসরায়েল সংকট নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যপ্রাচ্য নীতি ব্যর্থ হয়েছে এবং তারা ফিলিস্তিনিদের কোনো খোঁজ নেননি বলে মন্তব্য করেন পুতিন।

ভ্লাদিমির পুতিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ জানান, তারা যুদ্ধরত উভয় পক্ষের সাথে যোগাযোগ করছে এবং বিরোধ সমাধানে চেষ্টা করবে তবে সেটা কিভাবে তা এখনো চূড়ান্ত হয়নি। এছাড়া, তিনি এই যুদ্ধটি অন্যান্য দেশেও ছড়িয়ে পড়ার আশংকা করেন।

মূলত, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন আমেরিকাকে সাম্প্রতিক ফিলিস্তিন-ইসরায়েল সংঘাত ইস্যুতে হস্তক্ষেপ করতে নিষেধ করেছেন দাবিতে একটি ভিডিও সম্প্রতি ফেসবুকে প্রচার করা হয়েছে। কিন্তু রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, উক্ত দাবিতে প্রচারিত ভিডিওটি ২০২২ সালের ভিন্ন ঘটনার। উক্ত বক্তব্যে তিনি ফিলিস্তিন বা ইসরায়েলের বিষয়ে কোনো মন্তব্যই করেননি। 

প্রসঙ্গত, চলমান ফিলিস্তিন ও ইসরায়েলের সংঘাত ইস্যুতে একাধিক ভুল তথ্য ছড়িয়ে পড়ার প্রেক্ষিতে ইতোমধ্যে একাধিক ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে রিউমর স্ক্যানার৷

সুতরাং, ফিলিস্তিন ইস্যুতে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের পুরোনো বক্তব্যের ভিডিওতে ভিন্ন দাবি যুক্ত করে ইন্টারনেটে প্রচার করা হচ্ছে; যা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img