বুয়েট নয়, ঈদের পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রবেশের বিষয়ে জানিয়েছে ছাত্রদল

ছাত্র রাজনীতি ইস্যুতে আবারও অস্থির হয়ে উঠেছে বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট)। গত ২৮ মার্চ গভীর রাতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসেনসহ সংগঠনটির একদল নেতাকর্মীর প্রবেশ ও রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড পরিচালনার অভিযোগ উঠার পর থেকে উত্তাল প্রকৌশল শিক্ষার এই বিদ্যাপীঠ। উত্তাল অবস্থার মধ্যে গত ০৩ এপ্রিল সংবাদ সম্মেলনে আসে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল। উক্ত সংবাদ সম্মেলনে বিষয়ে ০৩ এপ্রিল মূলধারার সংবাদমাধ্যম ‘চ্যানেল২৪’ এর সংবাদ প্রতিবেদনে দাবি করা হয়, “ঈদের পর বুয়েটে ঢুকছে ছাত্রদল।”

ইউটিউবে চ্যানেল২৪ এর উক্ত প্রতিবেদন দেখুন এখানে। 

একই দাবিতে ফেসবুকের কিছু পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ)। 

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, ঈদের পর বুয়েটে প্রবেশের বিষয়ে সংবাদ সম্মেলনে কোনো মন্তব্য করেনি ছাত্রদল তথা সংগঠনটির সভাপতি রাকিবুল ইসলাম বরং ঈদের পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের প্রবেশের বিষয়ে দেওয়া তার বক্তব্যকে ভিন্ন দাবিতে প্রচার করা হয়েছে। 

এ বিষয়ে অনুসন্ধানে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের অফিশিয়াল ফেসবুক পেজে আলোচিত সংবাদ সম্মেলনটির লাইভ ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়। উক্ত ভিডিওর ১৯:২৫ মিনিট থেকে ২০:২০ মিনিট সময়ের অংশে কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সভাপতি রাকিবুল ইসলামকে বলতে শোনা যায়, আমরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল এবং হাইকোর্টের রায়ের প্রতিও শ্রদ্ধাশীল। আমরা সেই শ্রদ্ধা রেখেই বলছি, আমরা সাধারণ শিক্ষার্থীদের, বুয়েট ক্যাম্পাসে কী ধরনের রাজনীতি হবে সেটি বুয়েটের শিক্ষার্থীরা সিদ্ধান্ত নিবে। 

রাকিবুল বলেন, আমরা আজকে কিন্তু ক্যাম্পাসে সংবাদ সম্মেলন করতে পারতাম। কিন্তু আমাদের নতুন কমিটি হয়েছে। আমরা আমাদের মাননীয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি স্যারসহ তাদের বরাবর বারবার যোগাযোগ করে যাচ্ছি। ক্যাম্পাসে অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতির যাতে সৃষ্টি না হয় সেজন্য বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল ঈদের পর যখন ক্যাম্পাস খুলবে, সাধারণ শিক্ষার্থীরা আসবে, তখন তাদের উপস্থিতিতে আমাদের যে সাংবিধানিক অধিকার এবং তারা যে দোহাই দিচ্ছে সংবিধান, সেই অধিকারের সফল বাস্তবায়ন আমরা দেখতে পারবো, আমরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে প্রবেশ করবো৷… 

অর্থাৎ, ছাত্রদল সভাপতি বুয়েট নয়, ঈদের পর ঢাবিতে প্রবেশের বিষয়ে স্পষ্ট করেই বলেছেন তার বক্তব্যে। 

তাছাড়া, এই সংবাদ সম্মেলন সংক্রান্ত অন্যান্য গণমাধ্যমের সংবাদেও (, , ) উক্ত দাবির বিষয়ে কোনো তথ্য মেলেনি।  

মূলত, ছাত্র রাজনীতি ইস্যুতে গত কিছুদিন ধর উত্তাল রয়েছে বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট)। এর প্রেক্ষিতে  গত ০৩ এপ্রিল সংবাদ সম্মেলনে আসে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল। উক্ত সংবাদ সম্মেলনে বিষয়ে ০৩ এপ্রিল মূলধারার সংবাদমাধ্যম ‘চ্যানেল২৪’ এর সংবাদ প্রতিবেদনে দাবি করা হয়, “ঈদের পর বুয়েটে ঢুকছে ছাত্রদল।” কিন্তু রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, সংবাদ সম্মেলনে কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সভাপতি রাকিবুল ইসলাম এমন মন্তব্য করেননি। প্রকৃতপক্ষে, তিনি ঈদের পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রবেশের বিষয়ে জানান। 

সুতরাং, সংবাদ সম্মেলনে এসে ঈদের পর ছাত্রদল ঢাবিতে প্রবেশের বিষয়ে জানানোর তথ্যকে বুয়েটে প্রবেশের বিষয়ে জানানোর দাবিতে গণমাধ্যমে প্রচার করা হয়েছে; যা বিভ্রান্তিকর৷।

তথ্যসূত্র

  • বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল: Facebook Live
  • Rumor Scanner’s own analysis
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img