বৃহস্পতিবার, জুলাই 18, 2024
spot_img

ব্যারিস্টার সুমন সংসদে সাকিবকে নিয়ে সমালোচনা করেছেন দাবিতে এডিটেড ভিডিও প্রচার

সম্প্রতি, ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানকে নিয়ে সংসদে হবিগঞ্জ- ৪ আসনের সংসদ সদস্য সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন বক্তব্য দিয়েছেন দাবিতে একটি ভিডিও ইন্টারনেটে প্রচার করা হয়েছে। 

যা দাবি করা হচ্ছে

সংসদের ভেতরে ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমনকে বলতে শোনা যায়, ‘সাকিব আল হাসান একজন নামি-দামী ক্রিকেটার যার জন্য আমরা গর্ববোধ করি। যেদিন আমাকে মারতে এসেছিল আমি কাউকে বলি নাই। আমি মনে করছি থাকুক, আল্লাহর কাছে বিচার দিসি। বাংলাদেশের অধিনায়ক হিসেবেও এ ধরনের মানুষ যদি বেয়াদব হয় তারপরে আর বিচার দেওয়ার জায়গা থাকে না। আজ মনে হলো দুয়েক কথা বলা দরকার। তাকে যাকে ফলো করেন, যারা তার ফ্যান তাদেরকে একটা অনুরোধ করব তাকে বলেন দিনে ৮-১০ ঘণ্টা ক্রিকেটের পেছনে সময় দিয়ে ভালো ক্রিকেটার হওয়ার পাশাপাশি এক ঘণ্টা সময় দিক, ভালো মানুষ হোক। ভালো মানুষ না হলে এই ধরনের মানুষের বাংলাদেশের দরকার পড়ে না।

উক্ত দাবিতে ফেসবুকে প্রচারিত ভিডিও দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ)।

ব্যারিস্টার সুমন

উক্ত দাবিতে ফেসবুকে সবচেয়ে ভাইরাল ভিডিওটি এই প্রতিবেদন প্রকাশ অবধি প্রায় ৩৯ লক্ষ বার দেখা হয়েছে এবং প্রায় ১৯ হাজার বার শেয়ার করা হয়েছে। এছাড়া ভিডিওতে ৩ লক্ষ ৯৭ হাজারেরও বেশি পৃথক অ্যাকাউন্ট থেকে প্রতিক্রিয়া জানানো হয়েছে।

একই দাবিতে ইউটিউবে প্রচারিত ভিডিও দেখুন এখানে (আর্কাইভ)।

টিকটকে প্রচারিত ভিডিও দেখুন এখানে (আর্কাইভ)

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, সংসদে ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানকে সমালোচনা করে এমন কোনো মন্তব্য করেননি বরং দ্বাদশ জাতীয় সংসদের প্রথম সংসদ অধিবেশনে সুমনের দেওয়া বক্তব্যের ভিডিওর অডিও ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় বাদ দিয়ে তাতে ২০২৩ সালে সাকিবকে নিয়ে তার করা মন্তব্যের অডিও যুক্ত করে আলোচিত ভিডিওটি তৈরি করা হয়েছে।

ভিডিও যাচাই

প্রাসঙ্গিক কি-ওয়ার্ড সার্চ করে দেশিয় বেসরকারি ইলেকট্রনিক গণমাধ্যম যমুনা টেলিভিশনের ইউটিউব চ্যানেলে গত ৬ ফেব্রুয়ারি “সংসদে ব্যারিস্টার সুমনের ৭ মিনিট” শীর্ষক শিরোনামে একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়। 

উক্ত ভিডিওর সাথে আলোচিত দাবিতে প্রচারিত ভিডিওর দৃশ্যের মিল খুঁজে পাওয়া যায়।

Video Comparison: Rumor Scanner

ভিডিও থেকে জানা যায়, গত ৬ ফেব্রুয়ারি রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিনের ভাষণের ওপর আনা ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে দ্বাদশ জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশনের চতুর্থ কার্যদিবসে সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, “শুরু করেতেছি মহান আল্লাহর নামে, যিনি পরম করুণাময় এবং অত্যন্ত দয়ালু। মাননীয় স্পিকার আমার বক্তব্যের শুরুতেই শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করছি হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করছি জাতীয় চার নেতা এবং মহান মুক্তিযুদ্ধে যারা শহিদ হয়েছিলেন তাদেরকে স্মরণ করার মধ্য দিয়ে আমার বক্তব্য শুরু করছি মাননীয় স্পিকার। মাননীয় স্পিকার আমরা মহান সংসদের কথা বলি, মহান সংসদে সবসময় মহান কাজ হয়না মাননীয় স্পিকার। আমি মহান সংসদে এসে প্রথমেই আমার যে জিনিসটা নিয়ে খুব কষ্ট হয়েছিলো মাননীয় স্পিকার এই সংসদে এই জায়গাতে বসেই ইমডেমনিটি বিল, ইমডেমনিটি অর্ডিন্যান্স কারা হয়েছিল আমাদের জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের এই হত্যার বিচারের প্রক্রিয়া বন্ধ করার জন্য। এই সংসদেই বসে এই মহান সংসদকে কলঙ্কিত করেছেন এইখানেই বসে সংসদ সদস্যবৃন্দ।”

এছাড়া তিনি তার বক্তব্যে ডিজিটাল বাংলাদেশ, সংসদে নিজের অবস্থান, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি, ব্যাংক ও টাকা পাচার এবং শিক্ষাব্যবস্থা নিয়ে কথা বলেন। তবে উক্ত বক্তব্যে কোথাও সাকিব আল হাসানকে নিয়ে আলোচিনা বা সমালোচনা করতে দেখা যায়নি।

অডিও যাচাই

প্রাসঙ্গিক কি-ওয়ার্ড সার্চ করে ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন’র ফেসবুকে পেজে ২০২৩ সালের ১৬ মার্চ প্রকাশিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়।

উক্ত ভিডিওতে ব্যারিস্টার সুমন রাজধানীর একটি বেসরকারি হোটেলে সাকিবের সাথে দেখা হলে সাকিব তাকে মারার চেষ্টা করেছিলেন বলে অভিযোগ করেন।

উক্ত ভিডিওতে সৈয়দ সায়েদুল হক সুমনের দেওয়া বক্তব্যের সাথে “সাকিব আল হাসান একজন নামি-দামী ক্রিকেটার যার জন্য আমরা গর্ববোধ করি। যেদিন আমাকে মারতে এসেছিল আমি কাউকে বলি নাই। আমি মনে করছি থাকুক, আল্লাহর কাছে বিচার দিসি। বাংলাদেশের অধিনায়ক হিসেবেও এ ধরনের মানুষ যদি বেয়াদব হয় তারপরে আর বিচার দেওয়ার জায়গা থাকে না। আজ মনে হলো দুয়েক কথা বলা দরকার। তাকে যাকে ফলো করেন, যারা তার ফ্যান তাদেরকে একটা অনুরোধ করব তাকে বলেন দিনে ৮-১০ ঘণ্টা ক্রিকেটের পেছনে সময় দিয়ে ভালো ক্রিকেটার হওয়ার পাশাপাশি এক ঘণ্টা সময় দিক, ভালো মানুষ হোক। ভালো মানুষ না হলে এই ধরনের মানুষের বাংলাদেশের দরকার পড়ে না।” শীর্ষক বক্তব্যের অডিওর মিল পাওয়া যায়।

অর্থাৎ, গত বছরে সৈয়দ সায়েদুল হক সুমনের ভিন্ন প্রেক্ষাপটে সাকিব আল হাসানকে নিয়ে দেওয়া বক্তব্যের অডিও জাতীয় সংসদ অধিবেশনের ভিডিওতে যুক্ত করে আলোচিত দাবিতে প্রচার করা হয়েছে।

মূলত, গত ৬ জানুয়ারি রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিনের ভাষণের ওপর আনা ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে দ্বাদশ জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশনের চতুর্থ কার্যদিবসে সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন বক্তব্য প্রদান করেন। বক্তব্যের শুরুতে তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, জাতীয় চার নেতা ও মুক্তিযুদ্ধের শহিদদের স্মরণ করেন। বক্তব্যে বঙ্গবন্ধুর হত্যার বিচার প্রক্রিয়া, ডিজিটাল বাংলাদেশ, সংসদে নিজের অবস্থান, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি, ব্যাংক ও টাকা পাচার এবং শিক্ষাব্যবস্থা নিয়ে কথা বলেন। 

সম্প্রতি তার উক্ত বক্তব্যের ভিডিওর সাথে ২০২৩ সালের ১৬ মার্চ সৈয়দ তার ফেসবুকে পেজে সাকিবের বিরুদ্ধে তাকে হামলা চেষ্টার অভিযোগের বক্তব্যের অডিও যুক্ত করে সংসদে সাকিবের বিরুদ্ধে ব্যারিস্টার সুমনের বক্তব্য দাবিতে প্রচার করা হচ্ছে।

সুতরাং, সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানকে নিয়ে সংসদে সমালোচনা করেছেন দাবিতে ইন্টারনেটে প্রচারিত ভিডিওটি এডিটেড বা সম্পাদিত।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img