দেলাওয়ার হোসেন সাঈদী নামের ছাগল বিক্রি হওয়ার দাবিতে ডিবিসি কোনো ফটোকার্ড প্রকাশ করেনি

আগামী ১৭ জুন বাংলাদেশে ঈদ উল আজহা পালিত হবে। এর প্রেক্ষিতে “৯০ হাজার টাকায় বিক্রি হলো দেলোয়ার হোসেন সাঈদী নামের ছাগল” শীর্ষক শিরোনামে মূলধারার গণমাধ্যম ডিবিসি নিউজ টিভির লোগো সম্বলিত একটি ফটোকার্ডে মানবতা বিরোধী অপরাধে দণ্ডিত ও জামায়াতের নেতা দেলাওয়ার হোসেন সাঈদীর নামে একটি তথ্য ইন্টারনেটে প্রচার করা হয়েছে।

উক্ত দাবিতে ফেসবুকে প্রচারিত কিছু পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, ৯০ হাজার টাকায় বিক্রি হলো দেলোয়ার হোসেন সাঈদী নামের ছাগল দাবিতে ডিবিসি কোনো সংবাদ বা ফটোকার্ড প্রকাশ করেনি বরং ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় ডিবিসি নিউজের ডিজাইনের আদলে এই ভুয়া ফটোকার্ডটি তৈরি করা হয়েছে। 

এ বিষয়ে অনুসন্ধানে শুরুতে দাবিটির সূত্রপাতের খোঁজে একাধিক ফেসবুক মনিটরিং টুল ব্যবহার করে সম্ভাব্য প্রথম পোস্টটি খুঁজে পায় রিউমর স্ক্যানার টিম।

Himel Mahmud নামের একটি ব্যক্তিগত ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে প্রচারিত পোস্টটির ক্যাপশনে লেখা হয়েছে, “বাপরে দাম”। কিন্তু, উক্ত পোস্টে এ সংক্রান্ত দাবির বিষয়ে কোনো সূত্র উল্লেখ করা হয়নি। আলোচিত ফটোকার্ডটি পর্যবেক্ষণ করে দেখা যায়, এতে ডিবিসি নিউজের লোগো রয়েছে। এর সূত্র ধরে ডিবিসি নিউজের ফেসবুক পেজে এ সংক্রান্ত কোনো ফটোকার্ড প্রকাশ করা হয়েছে কিনা তা জানতে ফেসবুক পেজটির গত প্রায় এক মাসের প্রতিটি ফেসবুক ফটোকার্ড পোস্ট পর্যবেক্ষণ করে দেখেছে রিউমর স্ক্যানার টিম। কিন্তু আলোচিত দাবি সম্বলিত কোনো ফটোকার্ড প্রকাশের প্রমাণ মেলেনি।

তাছাড়া, ডিবিসি নিউজের ফেসবুক পেজে প্রচারিত অন্য ফটোকার্ডগুলোর সাথে আলোচিত দাবিতে প্রচারিত ফটোকার্ডটির চারটি অসংগতি লক্ষ্য করা যায়। প্রথমত, ডিবিসি নিউজের ফেসবুক পেজে প্রচারিত অন্য ফটোকার্ডগুলোর টেক্সট ডিজাইনের সাথে আলোচিত দাবিতে প্রচারিত ফটোকার্ডটির টেক্সট ডিজাইনের পার্থক্য লক্ষ্য করা যায়। দ্বিতীয়ত, ডিবিসি নিউজ সাধারণত তাদের ফটোকার্ডে ব্যবহৃত ছবির নিচে একটি সাদা দাগ ব্যবহার করে যা আলোচিত দাবিতে প্রচারিত ফটোকার্ডটিতে অনুপস্থিত। তৃতীয়ত, ডিবিসি তাদের ফটোকার্ডে ব্যবহৃত লোগো সাধারণত ট্রান্সপারেন্ট হিসেবে ব্যবহার করে, এমনকি লোগো অস্পষ্ট হলেও তারা সাধারণত লোগোর সাথে কোনো ব্যাকগ্রাউন্ড ব্যবহার করে না ; কিন্তু আলোচিত দাবিতে প্রচারিত ফটোকার্ডটিতে লোগোর সাথে ব্যাকগ্রাউন্ড ব্যবহার করা হয়েছে। চতুর্থত, ডিবিসি নিউজ তাদের ফটোকার্ডে সাধারণত ফটোকার্ড পোস্টকৃত দিনের তারিখ উল্লেখ করে থাকে, কিন্তু আলোচিত দাবিতে প্রচারিত ফটোকার্ডটিতে কোনো তারিখ উল্লেখ করা হয়নি।

Comparison : Rumor Scanner

প্রাসঙ্গিক কি-ওয়ার্ড সার্চ করেও আলোচিত দাবির স্বপক্ষে বিশ্বস্ত সূত্রে কোনো তথ্যপ্রমাণ পাওয়া যায়নি।

মূলত, সম্প্রতি মূলধারার গণমাধ্যম ডিবিসি নিউজের লোগো সম্বলিত একটি ফটোকার্ড পোস্ট করে দাবি করা হচ্ছে, ৯০ হাজার টাকায় বিক্রি হলো দেলাওয়ার হোসেন সাঈদী নামের ছাগল। কিন্তু রিউমর স্ক্যানার যাচাই করে দেখেছে, উক্ত দাবিতে ডিবিসি নিউজ কোনো ফটোকার্ড বা খবর প্রকাশ করেনি। প্রকৃতপক্ষে, কোনো রকম তথ্য প্রমাণ ছাড়াই প্রযুক্তির সহায়তায় ডিবিসি নিউজ টিভির ফটোকার্ডের ডিজাইন নকল করে তৈরি করে আলোচিত ভুয়া এই ফটোকার্ডটি প্রচার করা হয়েছে।

সুতরাং, ৯০ হাজার টাকায় বিক্রি হলো দেলাওয়ার হোসেন সাঈদী নামের ছাগল শীর্ষক দাবিতে ডিবিসি নিউজের লোগো ব্যবহার করে ইন্টারনেটে প্রচারিত ফটোকার্ডটি সম্পূর্ণ ভুয়া ও বানোয়াট।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img