বৃহস্পতিবার, জুলাই 18, 2024
spot_img

২০২৪ সালের নবম শ্রেণির ইসলাম শিক্ষা বইয়ে ‘জিহাদ’ বিষয়ক পাঠ নেই

গত ২৭ জানুয়ারি ইসলামি চিন্তাবিদ ও বক্তা শায়খ আহমাদুল্লাহর ভেরিফাইড ইউটিউব চ্যানেলে ‘পাঠ্য বইয়ে শরীফার গল্প ছাড়াও ইসলাম বিরোধী ১০ বিষয়” শীর্ষক শিরোনামে একটি ভিডিও (আর্কাইভ) প্রকাশিত হয়।

পরদিন ২৮ জানুয়ারি উক্ত ভিডিওর বিষয়গুলোসহ পাঠ্য বইয়ের আরো কিছু বিষয় উল্লেখ করে Abdullah Al Monsur নামের এক ব্যক্তির ফেসবুক আইডি থেকে পোস্ট (আর্কাইভ) করা হয়। 

পরবর্তীতে ৩১ জানুয়ারি বাংলাদেশের জাতীয় পুরুষ দলের ক্রিকেটার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের স্ত্রী জান্নাতুল কাউছার তার ব্যক্তিগত ফেসবুক অ্যাকাউন্টে পোস্ট (আর্কাইভ) করেন।

পোস্টটির শুরুতে দাবি করা হচ্ছে, “নবম শ্রেণীর ইসলাম শিক্ষা বই থেকে ইসলামের অকাট্য ফরজ বিধান জি*হা*দ পুরাই ডিলিট (বিলুপ্ত) করে দেয়া হয়েছে।”

পরবর্তীতে উক্ত পোস্টগুলোকে গুজব উল্লেখ করে নবম-দশম শ্রেণির ইসলাম শিক্ষা বইয়ের সূচিপত্রের ছবি যুক্ত করে একটি তথ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে। যেখানে বলা হচ্ছে, আপনারা বই খুললেই প্রমাণ পাবেন নবম শ্রেণীর ইসলাম শিক্ষা বই থেকে জিহাদ বিলুপ্ত করা হয়নি।

ইসলাম শিক্ষা

উক্ত দাবিতে ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, ২০২৪ সালের নবম শ্রেণির ইসলাম শিক্ষা বই থেকে জিহাদ বিষয়ক পাঠ বাদ দেওয়ার দাবিটি সত্য। জিহাদ বিষয়ক পাঠ বাদ দেওয়া হয়নি দাবিতে প্রচারিত পোস্টগুলোতে যুক্ত পাঠ্যসূচির ছবিটি ২০২৩ সালে এনসিটিবি কর্তৃক প্রকাশিত ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা বইয়ের।

দাবির সূত্রপাত

অনুসন্ধানের শুরুতে আলোচিত দাবির উৎসের খোঁজ করার চেষ্টা চালিয়েছে রিউমর স্ক্যানার টিম। অনুসন্ধানে ‘Abdullah Harun Jewel’ নামক ফেসবুক অ্যাকাউন্টে সম্ভাব্য প্রথম পোস্টটি (আর্কাইভ) পোস্টটি খুঁজে পাওয়া যায়। যদিও পরবর্তীতে পোস্টটি সরিয়ে ফেলা হয়।

Screenshot : Facebook Post

একই অ্যাকাউন্ট থেকে পূর্ববর্তী পোস্ট সরিয়ে ফেলারকারণ উল্লেখ করে পরবর্তীতে আরও একটি পোস্ট (আর্কাইভ) করা হয়। যেখানে বলা হয়, ‘২০২৩ সালের পাঠ্যবই দেখে লেখায় ভুল হয়েছে। আমি ক্ষমাপ্রার্থী। অভিযোগ সত্য যে, নবম শ্রেণির ইসলাম শিক্ষা বইয়ে জিহাদ অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি’।

পরবর্তীতে আলোচিত দাবিতে যুক্ত পাঠ্যসূচির ছবিটির বিষয়ে অনুসন্ধানে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের ওয়েবসাইটে ২০২৩ শিক্ষাবর্ষের মাধ্যমিক স্তরের (এনসিটিবি) নবম-দশম শ্রেণির ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা বইয়ে হুবহু সূচিপত্রের ছবিটি খুঁজে পাওয়া যায়। 

Screenshot Comparison : Rumor Scanner

২০২৩ শিক্ষাবর্ষের নবম-দশম শ্রেণির ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা বইয়ে আলোচিত সূচিটির উল্লেখ পাওয়া যায় যেখানে জিহাদ বিষয়ক পাঠ বিদ্যমান। 

অর্থাৎ, গতবছরের ২০২৩ শিক্ষাবর্ষের নবম-দশম শ্রেণির ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা বইয়ের পাঠ্যসূচির ছবিটিই ২০২৪ সালের বইয়ের ছবি দাবিতে প্রচার করা হয়েছে। 

চলতি শিক্ষাবর্ষের ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা বইয়ে কি ‘জিহাদ’ বিষয়ক পাঠ বিদ্যমান?

চলতি শিক্ষাবর্ষের অর্থাৎ ২০২৪ সালে জাতীয় শিক্ষাক্রম এ পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের (এনসিটিবি) সংস্করণে প্রকাশিত ইসলাম শিক্ষা বইয়ে ‘জিহাদ’ বিষয়ক পাঠ আছে কিনা সে বিষয়ে অনুসন্ধান করে রিউমর স্ক্যানার টিম। অনুসন্ধানে এনসিটিবির ওয়েবসাইটে থাকা ২০২৪ শিক্ষাবর্ষের নবম-দশম শ্রেণির  ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা বইটির সূচিপত্র পর্যবেক্ষণ করে ‘জিহাদ’ বিষয়ক পাঠের উল্লেখ পাওয়া যায়নি।

Screenshot : NCTB’s Website

তাছাড়া, পুরো বইয়ের পাঠগুলো আলাদাভাবে খুঁজেও আলোচিত দাবিটির সত্যতা পাওয়া যায়নি। 

অর্থাৎ, নতুন শিক্ষাবর্ষে নবম-দশম শ্রেণির ইসলাম শিক্ষা বই থেকে জিহাদ পাঠ বাদ দেওয়া হয়েছে। 

মূলত, ২০২৪ সালের নবম-দশম শ্রেণির ইসলাম শিক্ষা বই থেকে ‘জিহাদ’ বিষয়ক পাঠ বাদ দেওয়া হয়েছে দাবিতে বাংলাদেশের পুরুষ ক্রিকেট দলের সিনিয়র সদস্য মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের স্ত্রী জান্নাতুল কাউছার তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে একটি পোস্ট করেন। পরবর্তীতে উক্ত পোস্টটিকে গুজব দাবি করে নবম-দশম শ্রেণির ইসলাম শিক্ষা বইয়ের সূচিপত্রের একটি ছবি যুক্ত করে ‘নবম শ্রেনীর ইসলাম শিক্ষা বই থেকে ‘জিহাদ’ বিষয়ক পাঠ বাদ দেওয়া হয়নি’ দাবিতে ইন্টারনেটে প্লাটা আরেকটি  তথ্য প্রচার করা হয়। তবে রিউমর স্ক্যানার যাচাই করে দেখেছে যে, নবম-দশম শ্রেণির ইসলাম শিক্ষা বই থেকে জিহাদ পাঠ বাদ দেওয়া হয়নি দাবিতে প্রচারিত পোস্টে যুক্ত ছবিটি নবম-দশম শ্রেণির ২০২৩ শিক্ষাবর্ষের ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা বইয়ের। প্রকৃতপক্ষে নবম-দশম শ্রেণির ২০২৪ শিক্ষাবর্ষের ইসলাম শিক্ষা বইয়ের নতুন সংস্করণে ‘জিহাদ’ পাঠ বাদ দেওয়া হয়েছে। 

সুতরাং, ২০২৩ শিক্ষাবর্ষের নবম-দশম শ্রেণির ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা বইয়ের সূচিপত্র একটি ছবি যুক্ত করে নবম-দশম শ্রেণির ২০২৪ শিক্ষাবর্ষের ইসলাম শিক্ষা বইয়ে ‘জিহাদ’ বিষয়ক পাঠ বিদ্যমান রয়েছে দাবিতে ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে; যা মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img