৫০ টাকার নোটটি প্রচলিত কোন নোট নয়, এটি স্মারক নোট

সম্প্রতি, “বাজারে নতুন নোট আসছে, অনুমতি পেলেই ছাড়করণ করবে বাংলাদেশ ব্যাংক।” শীর্ষক শিরোনামে একটি তথ্য এবং তার সাথে একটি ৫০ টাকার নোটের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে।
পোস্টগুলোর আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে। 

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, ৫০ টাকার নোটটি প্রচলিত কোন নোট নয় বরং এটি একটি স্মারক নোট।

এ বিষয়ে অনুসন্ধানের শুরুতেই ছড়িয়ে পড়া পোস্টগুলোতে সংযুক্ত নোটের ছবিটি বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, ৫০ টাকার নোটটিতে লাল অক্ষরে লেখা রয়েছে, “স্মারক নোট, বিক্রয়যোগ্য নয়।” তাছাড়া, একই নোটে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবির পাশে ঢাকার মেট্রোরেলের ছবিও খুঁজে পাওয়া যায়।

কোনো দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক যখন জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃতপ্রাপ্ত কোনো ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান, স্থান ও ঘটনাসমূহকে স্মরণীয় করে রাখার জন্য যে প্রতীকী মুদ্রা বা নোট ছাপে, তা-ই হচ্ছে স্মারক নোট বা মুদ্রা। বাংলাদেশ ব্যাংক বিভিন্ন সময়েই নানা উপলক্ষ্যকে কেন্দ্র করে স্মারক নোট বা মুদ্রা ছাপিয়ে আসছে। 

তবে বাংলাদেশ ব্যাংকের স্মারক নোটের তালিকাটি ২০২০ সালের পর হালনাগাদ না করায় সাম্প্রতিক সময়ে ছড়িয়ে পড়া আলোচিত নোটটি উক্ত তালিকায় খুঁজে পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে অধিকতর অনুসন্ধানে কি-ওয়ার্ড সার্চ পদ্ধতি ব্যবহার করে, জাতীয় দৈনিক প্রথম আলোর ওয়েবসাইটে ২০২২, সালের ২৭ ডিসেম্বর “মেট্রোরেল চালু উপলক্ষে আসছে ৫০ টাকার স্মারক নোট” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, “বাংলাদেশের প্রথম মেট্রোরেলের উদ্বোধন উপলক্ষে বাংলাদেশ ব্যাংক ৫০ টাকা মূল্যমানের একটি স্মারক নোট মুদ্রণ করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাল বুধবার (২৮ ডিসেম্বর) বেলা ১১টায় মেট্রোরেলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্মারক নোটটি আনুষ্ঠানিকভাবে অবমুক্ত করবেন।”

প্রতিবেদনে আলোচিত নোটের ছবিটিও খুঁজে পাওয়া যায়।

পরবর্তীতে বাংলাদেশ ব্যাংকের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটের প্রেস রিলিজ সেকশনে গত ২০২২ সালের ২৭ ডিসেম্বর “Issuance of 50 Taka Commemorative Note ‘Inauguration of Bangladesh’s First Metro Rail'” শিরোনামে প্রকাশিত  আলোচিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিটি খুঁজে পাওয়া যায়।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আগামী ২৮ ডিসেম্বর ২০২২ তারিখ “বাংলাদেশের প্রথম মেট্রোরেল উদ্বোধন” উপলক্ষে বাংলাদেশ ব্যাংক ৫০ টাকা মূল্যমানের একটি স্মারক নোট মুদ্রণ করেছে। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ২৮ ডিসেম্বর, ২০২২ তারিখ সকাল ১১টায় মেট্রোরেলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্মারক নোটটি আনুষ্ঠানিকভাবে অবমুক্ত করবেন। ২৯ ডিসেম্বর হতে স্মারক নোটটি বাংলাদেশ ব্যাংকের মতিঝিল অফিস হতে এবং পরবর্তীতে অন্যান্য শাখা অফিস হতে পাওয়া যাবে।

পরবর্তীতে মেট্রোরেলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সরাসরি সম্প্রচারিত ভিডিওতেও (১:৫৭:৩৫ মিনিট সময় থেকে) স্মারক নোটটি প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক অবমুক্ত করতে দেখা যায়। 

অর্থাৎ, আলোচিত নোটটি কোনো প্রচলিত বাণিজ্যিক নোট নয়। এটি একটি স্মারক নোট। 

মূলত, বাংলাদেশের প্রথম মেট্রোরেল উদ্বোধন উপলক্ষে বাংলাদেশ ব্যাংক ৫০ টাকা মূল্যমানের একটি স্মারক নোট মুদ্রণ করে এবং গত বছরের ২৮ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মেট্রোরেলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে নোটটি অবমুক্ত করেন।  সেই স্মারক নোটকেই সম্প্রতি “বাজারে নতুন নোট আসছে, অনুমতি পেলেই ছাড়করণ করবে বাংলাদেশ ব্যাংক।” শীর্ষক শিরোনামে সামাজিক মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে। ফলে উক্ত স্মারক নোটকে প্রচলিত নোট ভেবে ব্যবহারকারীদের মধ্যে বিভ্রান্তির সৃষ্টি হয়েছে।

সুতরাং, বাংলাদেশের প্রথম মেট্রোরেল উদ্বোধন উপলক্ষে মুদ্রিত ৫০ টাকা মূল্যমান স্মারক নোটকে প্রচলিত নোট দাবিতে সামাজিক মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে; যা বিভ্রান্তিকর।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img