সোমবার, জুলাই 22, 2024
spot_img

সৌদি আরবে রমজান মাসে লাউডস্পিকারে আজান ও মসজিদে ইফতার নিষিদ্ধের দাবিটি মিথ্যা

সম্প্রতি, ‘রমজানে সৌদিতে লাউডস্পিকারে আজান নিষিদ্ধ! মসজিদের ভিতর ইফতার নয়’ শীর্ষক শিরোনামে একটি তথ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হয়েছে।

সৌদি আরবে

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ),  এখানে (আর্কাইভ),  এখানে (আর্কাইভ),  এখানে (আর্কাইভ) এবং  এখানে (আর্কাইভ)। 

একই দাবিতে ভারতীয় গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন দেখুন এই সময়

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, সৌদি আরবে রমজান মাসে মাইক ও লাউডস্পিকারে রাষ্টীয়ভাবে আজান ও মসজিদে ইফতার নিষিদ্ধের দাবিতে প্রচারিত তথ্যটি সত্য নয়। প্রকৃতপক্ষে দেশটিতে এমন কোনো নিষেধাজ্ঞাই দেওয়া হয়নি।

মূলত, ২০২৩ সালে রমজান মাস উপলক্ষে সৌদি আরবে লাউডস্পিকারে আজান ও মসজিদের ভেতর ইফতার নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে শীর্ষক দাবি গণমাধ্যমের বদৌলতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। তবে অনুসন্ধানে দেখা যায়, সেসময় সৌদি আরবে রমজান মাসে আজান দেওয়ার ক্ষেত্রে মাইক বা লাউডস্পিকার ব্যবহারে কোনো নিষেধাজ্ঞা প্রদান করা হয়নি। পাশাপাশি দেশটিতে মসজিদের অভ্যন্তরে ইফতার করার ক্ষেত্রেও কোনো নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়নি। সম্প্রতি ঐ একই দাবিটি পুনরায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে। তবে এবছরও সৌদি আরবে লাউডস্পিকারে আজান ও মসজিদের ভেতর ইফতার নিষিদ্ধ করার কোনো সংবাদ পাওয়া যায়নি। বিগত বছরের মতো এবারও মসজিদের পবিত্রতা রক্ষায় মসজিদের ভেতর নামাজের জায়গায় ইফতারের আয়োজন করা যাবে না। তবে মসজিদের আঙিনা বা চত্বরে ইফতারের আয়োজন করা যাবে। উল্লেখ্য, ২০২৩ সালের একটি ঘোষণায় সৌদি সরকার মসজিদে লাউডস্পিকারের সংখ্যা সর্বোচ্চ চারটি নির্ধারিত করে দেয়। এছাড়াও ইতোপূর্বে ২০২১ সালে লাউডস্পিকারের ভলিউম সর্বোচ্চ তিন মাত্রা রেখে ব্যবহারের ব্যাপারেও নির্দেশনা জারি করেছিল দেশটির উক্ত মন্ত্রণালয়।

উল্লেখ্য, পূর্বেও বিষয়টি ব্যাপকভাবে ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়লে সেসময় বিষয়টিকে মিথ্যা শনাক্ত করে ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে রিউমর স্ক্যানার।

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img