নেপাল ও আয়ারল্যান্ডের মধ্যকার ম্যাচের ভিডিও বাংলাদেশের দাবিতে প্রচার 

সম্প্রতি, “ক্রিকেট সুন্দর যদি তা সঠিক ভাবে উপস্থাপন করা হয়” শীর্ষক শিরোনাম এবং মানবতা বাংলাদেশ থেকে শেখা উচিত শীর্ষক থাম্বনেইলে একটি ক্রিকেট ম্যাচের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে এবং দাবি করা হচ্ছে এটি বাংলাদেশের ক্রিকেট ম্যাচের একটি ভিডিও। 

আয়ারল্যান্ডে

ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু ভিডিও দেখুন ভিডিও (আর্কাইভ), ভিডিও (আর্কাইভ), ভিডিও (আর্কাইভ) এবং ভিডিও (আর্কাইভ)। 

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, মানবতা বাংলাদেশ থেকে শেখা উচিত শীর্ষক শিরোনামে বাংলাদেশের ক্রিকেট ম্যাচের দাবিতে যে ভিডিওটি প্রচার করা হচ্ছে সেটি আসলে বাংলাদেশের ক্রিকেট দলের কোনো ভিডিও নয় বরং ২০২২ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাছাইপর্বের মূল প্রতিযোগীতার পূর্বে ওয়ার্মআপ ম্যাচে নেপাল এবং আয়ারল্যান্ডের মধ্যকার একটি ম্যাচের খণ্ডাংশ আলোচিত দাবিতে প্রচার করা হয়েছে। 

এ নিয়ে অনুসন্ধানের শুরুতে আলোচিত ভিডিওটি পর্যবেক্ষণ করে রিউমর স্ক্যানার টিম। আলোচিত ভিডিওতে থাকা স্কোরবোর্ডে খেলোয়াড়দের নাম এবং জার্সিতে থাকা দেশের নামের সূত্র ধরে অনুসন্ধানে ২০২২ সালের ‘Cricket Official’ নামক একটি ইউটিউব চ্যানেলে “Ireland vs Nepal। Highlights। Oman Quadrangular। T20l Series। Match 6” শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়। উক্ত ভিডিওটির ৫ মিনিট ৩ সেকেন্ড থেকে ৫ মিনিট ১৩ সেকেন্ড এর মধ্যকার অংশটুকুর সাথে আলোচিত দাবিতে প্রচারিত ভিডিওটির মিল খুঁজে পাওয়া যায়। 

বিষয়টি অধিকতর নিশ্চিত হতে আরো অনুসন্ধানে গত বছরের অর্থাৎ ২০২২ এ ‘Andrew Leonard’ নামক একটি ইউটিউব চ্যানেলেও “Nepal’s Aasif Sheikh shines with outstanding Spirit of Cricket Moment” শীর্ষক শিরোনামে আলোচিত দাবিতে প্রচারিত ভিডিওটির মূল ভিডিওটি খুঁজে পাওয়া যায়। 

অর্থাৎ ২০২২ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের একটি ওয়ার্মআপ ম্যাচে আয়ারল্যান্ড এবং নেপালের মধ্যকার ম্যাচটিকে বাংলাদেশের দাবিতে প্রচার করা হচ্ছে। 

পরবর্তীতে ভিডিওটির সূত্র ধরে প্রাসঙ্গিক কিওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে  ইংরেজি দৈনিক দ্য বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড এ ২০২২ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি “‘Spirit of cricket’ – Nepal wicket-keeper draws plaudits for stunning act of sportsmanship” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়। 

উক্ত প্রতিবেদন থেকে জানা যায়,২০২২ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাছাইপর্বের মূল প্রতিযোগিতার আগে ওয়ার্মআপ ম্যাচের ১৯ তম ওভারের তৃতীয় বলে নেপালের কমল সিং স্ট্রাইকিং এন্ডে থাকা আয়ারল্যান্ডের ব্যাটসম্যান  মার্ক অ্যাডায়ারকে বল করেন। মার্ক অ্যাডায়ার সঠিকভাবে ব্যাট বলের সংযোগ ঘটাতে ব্যর্থ হন,  তবুও নন-স্ট্রাইকিং এন্ডে থাকা অ্যান্ডি ম্যাকব্রিনকে দ্রুত সিঙ্গেলের জন্য ডাকেন। 

নন-স্ট্রাইকার ব্যাটসম্যানের ডাকে সাড়া দিলেও, ক্রিজের অপর প্রান্তে যাওয়ার পথে বোলারের সঙ্গে ধাক্কা খায়। উইকেট-রক্ষকের হাতে বল ছুড়ে দেওয়ার সময় ম্যাকব্রিন পপিং ক্রিজ থেকে অনেক দূরে ছিলেন। তখন নেপালের উইকেট-রক্ষক আসিফ শেখ সুযোগ থাকা সত্ত্বেও অ্যান্ডি ম্যাকব্রিনকে রানআউট করতে অস্বীকার করেছিলেন।’

এছাড়া, ২০২২ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের খেলাধুলা বিষয়ক গণমাধ্যম ‘Fox Sports’ এ “I’ve got goosebumps’: Touching act wins over cricket world” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত প্রতিবেদনেও একই বিষয়ের উল্লেখ করা হয় এবং উক্ত প্রতিবেদনে ৩৩ সেকেন্ডের ভিডিও ক্লিপটির উল্লেখ করা হয়। 

মূলত, ২০২২ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাছাইপর্বের প্রতিযোগিতার পূর্বে আয়ারল্যান্ড এবং নেপালের মধ্যকার ওয়ার্মআপ ম্যাচে নেপালের উইকেট-রক্ষক আসিফ শেখ সুযোগ থাকা সত্ত্বেও আয়ারল্যান্ডের ব্যাটাসম্যান অ্যান্ডি ম্যাকব্রিনকে রানআউট করেননি। উক্ত ঘটনার একটি ভিডিও-ই সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের ম্যাচের দাবিতে ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে।

সুতরাং, নেপাল জাতীয় ক্রিকেট দলের সুযোগ থাকা সত্ত্বেও প্রতিপক্ষকে রানআউট না করার ঘটনাকে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের রান আউট না করার ঘটনা দাবিতে প্রচার করা হচ্ছে; যা মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img