ইসরায়েলি সৈন্য গাজায় নিয়োগ পাওয়ায় কান্না করার ভিডিওটি পুরোনো

সম্প্রতি, ইসরায়েলের একজন মহিলা সৈনিক গাজায় নিয়োগ পাওয়ায় কান্নাকাটি করছে দাবিতে একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে।

ইসরায়েলি সৈন্য

উক্ত দাবিতে ফেসবুকে প্রচারিত কিছু ভিডিও দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, উক্ত দাবিতে প্রচারিত ভিডিওটি সাম্প্রতিক ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংঘাতের নয় বরং ২০২২ সালের পুরোনো একটি ভিডিও উক্ত দাবিতে প্রচার করা হচ্ছে।

ভিডিওটির সত্যতা যাচাইয়ের জন্য রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে ইরানি গণমাধ্যম ‘Press TV’ এর এক্স অ্যাকাউন্টে (সাবেক টুইটার) ২০২২ সালের ৩ জুনে প্রকাশিত একটি ভিডিওর সাথে আলোচিত ভিডিওটির মিল খুঁজে পাওয়া যায়।

Video Comparison: Rumor Scanner

ভিডিও থেকে জানা যায়, ইসরায়েলি সৈন্যকে ফিলিস্তিনের গাজা অঞ্চলের জন্য নিয়োগ দেওয়ায় তিনি ভয়ে কান্নাকাটি করছিলেন।

ফিলিস্তিনি সংবাদ সংস্থা Shehab News Agency এর এক্স অ্যাকাউন্টে (সাবেক টুইটার) ২০২২ সালের ২ জুনে প্রকাশিত একই ভিডিও থেকে একই তথ্য জানা যায়।

মূলত, ২০২২ সালে জুন মাসের শুরুর দিকে ইসরায়েলি একজন সৈন্যকে ফিলিস্তিনের গাজা স্ট্রিপের জন্য নিয়োগ দেওয়া হলে তিনি ভয়ে কান্নাকাটি করছিলেন। সে সময়ের ধারণকৃত একটি ভিডিওকেই সম্প্রতি ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংঘাতকে কেন্দ্র করে সাম্প্রতিক দাবিতে ইন্টারনেটে প্রচার করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, গত ০৭ অক্টোবর ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাস ইসরায়েলে ‘অপারেশন আল-আকসা ফ্লাড’ নামে হামলা করলে ফিলিস্তিন-ইসরায়েলের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে চলা সংঘাত নতুন মাত্রা পায়৷ 

উল্লেখ্য, চলমান ফিলিস্তিন ও ইসরায়েলের সংঘাত ইস্যুতে একাধিক ভুল তথ্য ছড়িয়ে পড়ার প্রেক্ষিতে ইতোমধ্যে একাধিক ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে রিউমর স্ক্যানার৷

সুতরাং, ২০২২ সালের ইসরায়েলের একজন মহিলা সৈনিক গাজায় নিয়োগ পাওয়ায় কান্না করার একটি ভিডিও সাম্প্রতিক ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংঘাতের সময়ের দাবিতে ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে; যা বিভ্রান্তিকর।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img