মঙ্গলবার, জুলাই 23, 2024
spot_img

রাগ করে তারেক রহমানের দল ছেড়ে দেওয়ার গুজব

সম্প্রতি, ‘রাগ করে দল ছেড়ে দিলেন তারেক জিয়া খুশি হয়ে প্রধানমন্ত্রীর একি সিদ্ধান্ত’ শীর্ষক থাম্বনেইল সম্বলিত একটি ভিডিও ইউটিউবে প্রচার করা হয়েছে। 

তারেক রহমানের দল ছেড়ে

ইউটিউবে প্রচারিত এমন ভিডিও ‍দেখুন এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, রাগ করে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের দল ছেড়ে দেওয়ার মত কোনো ঘটনা ঘটেনি। বরং, অধিক ভিউ পাবার আশায় চটকদার থাম্বনেইল ব্যবহার করে ভিন্ন ভিন্ন ঘটনার ভিডিওকে ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় সমন্বয়ের মাধ্যমে ভিত্তিহীনভাবে উক্ত দাবিটি প্রচার করা হচ্ছে। 

অনুসন্ধানের শুরুতে আলোচিত ভিডিওটি পর্যবেক্ষণ করে রিউমর স্ক্যানার টিম। এতে দেখা যায়, ভিডিওটির ইন্ট্রোর পর উপস্থাপক বলেন, ‘আওয়ামী লীগকে নিয়ে গোপন তথ্য ফাস করলেন সাংবাদিক সাহেদ আলম ভাই। এদিকে, গ্রেফতার আদম তমিজি হককে নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিলেন জ্যাকব মিল্টন। অন্যদিকে, সরকারের নতুন কারিকুলাম নিয়ে একি তথ্য দিলেন জাহেদুর রহমান।’ এরপর তিনি না টেনে দর্শকদের পুরো ভিডিওটি দেখার আহ্বান জানান। দর্শকদের উদ্দেশ্যে দেখানো তিনটি ভিডিও পর্যালোচনা করে দেখা যায়, উপস্থাপকের বিবৃতির মতই ভিডিও তিনটিতেও তারেক রহমানের রাগ করে দল ছেড়ে দেওয়ার বিষয়ে কোনো তথ্য নেই। 

ভিডিও যাচাই ১

আলোচিত ভিডিওটিতে দর্শকদের উদ্দেশ্যে উপস্থাপকের দেখানো প্রথম ভিডিওটির সূত্র অনুসন্ধানে ভিডিওতে থাকা ‘SHAHED ALAM SHOW’ এবং ‘এখন পাত্তা পাচ্ছে না কথিত কিংস পার্ট’র নেতারা’ তথ্য দুটির সূত্র ধরে কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে Bangla InfoTube নামের একটি ইউটিউব চ্যানেলে গত ১৪ ডিসেম্বর সেই কিংস পার্টি ‘র কারো হিসাব মিলছে না ! শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot: Youtube

ভিডিওটি পর্যালোচনা করে দেখা যায়, আলোচিত ভিডিওটির প্রথম অংশের সাথে উক্ত ভিডিওর হুবহু মিল রয়েছে। 

Video Comparison by Rumor Scanner

তবে উক্ত ভিডিওর কোথাও তারেক রহমানের রাগ করে দল ছেড়ে দেওয়ার বিষয়ে কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। ভিডিওটিতে মূলত সাহেদ আলম নামের একজন ব্যক্তি আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনিত প্রার্থীদের নিয়ে আলোচনা করেন। 

ভিডিও যাচাই ২

পরবর্তীতে আদম তমিজি হককে নিয়ে দেখানো ভিডিওটির সূত্র অনুসন্ধানে ভিডিওটির ডান পাশের উপরে থাকা NAGORIK TV লেখা সম্বলিত লোগোটির সূত্র ধরে কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে Nagorik TV এর ইউটিউব চ্যানেলে গত ১৪ ডিসেম্বর হাসিনার দুঃশাসন নিয়ে কথা বলায় আদম তমিজিকে গ্রেপ্তার! @NagorikTV শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়।

Screenshot: Youtube

উক্ত ভিডিওটি পর্যালোচনা করে দেখা যায়, আলোচিত ভিডিওটির সাথে উক্ত ভিডিওর হুবহু মিল রয়েছে। 

Video Comparison by Rumor Scanner

তবে ভিডিওটির সাথে আলোচিত ভিডিওর দাবির কোনো সম্পর্ক নেই। ভিডিওটি মূলত Nagorik TV এর অনলাইন একটি টকশোর ভিডিও। যেখানে Nagorik TV এর উপস্থাপক জ্যাকব মিলন নামের একজন ব্যক্তির সাথে আদম তমিজি হককে নিয়ে নানা বিষয়ে আলোচনা করেন।

ভিডিও যাচাই ৩

আলোচিত ভিডিওটির সর্বশেষ ভিডিও অনুসন্ধানে ভিডিওটির ডান পাশের উপরে থাকা ZAHED’S TAKE লেখাটির সূত্র ধরে কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে Zahed’s Take নামের একটি ইউটিউব চ্যানেলে গত ১৫ ডিসেম্বর নতুন কারিকুলাম নিয়ে সরকার উন্মাদ হয়ে গেছে কেন? Zahed’s Take । জাহেদ উর রহমান । Zahed Ur Rahman শীর্ষক শিরোনামে প্রচারিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়। 

Screenshot: Youtube

ভিডিওটি পর্যালোচনা করে দেখা যায়, আলোচিত ভিডিওর সর্বশেষ অংশের সাথে উক্ত ভিডিওর হুবহু মিল রয়েছে।

Video Comparison by Rumor Scanner

ভিডিওটিতে মূলত লেখক ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক Zahed Ur Rahman নতুন শিক্ষা কারিকুলাম নিয়ে সরকারকে সমালোচনা করে বিভিন্ন মন্তব্য করেন। যার সাথে আলোচিত ভিডিওর থাম্বনেইলের দাবিগুলোর সাথে কোনো সম্পর্ক নেই। 

 বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান তার কর্মকাণ্ডের তথ্য তার ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে নিয়মিত প্রচার করা হয়। তাই আলোচিত দাবির বিষয়ে জানতে তার ফেসবুক পেজটি পর্যবেক্ষণ করে রিউমর স্ক্যানার টিম। অনুসন্ধানে তার ফেসবুক পেজে এ সম্পর্কিত কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি বরং সরকার পতনের আন্দোলনের কর্মসূচির বিষয়ে ফেসবুকে তার সরব উপস্থিতি পরিলক্ষিত হয়েছে।

এছাড়া, প্রাসঙ্গিক কি-ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে মূলধারার কোনো গণমাধ্যম অথবা অন্যকোনো নির্ভরযোগ্য সূত্রে আলোচিত দাবিগুলোর প্রসঙ্গে কোনো তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি।

অর্থাৎ, কয়েকটি অপ্রাসঙ্গিক ভিডিওকে ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় যুক্ত করে আলোচিত ভিডিওটি তৈরি করা হয়েছে। 

মূলত, দীর্ঘ কয়েক বছর ধরেই বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার পুত্র তারেক রহমান রাজনৈতিক আশ্রয়ের অংশ হিসেবে যুক্তরাজ্যে অবস্থান করছেন। এর মাঝে বেগম খালেদা জিয়ার অসুস্থতাকে কেন্দ্র করে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্বও পেয়েছেন তিনি। দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকেই বিদেশ থেকে অনলাইনে দলীয় নেতা-কর্মীদের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ রেখে দিকনির্দেশনা দিয়ে যাচ্ছেন বিএনপির এই নেতা। সর্বশেষ গত ২০ ডিসেম্বর এক ভিডিও বার্তায় সরকার পতনের দাবিতে অসহযোগ আন্দোলনের ঘোষণা দেন তিনি। তবে এরই মাঝে  সম্প্রতি, ‘রাগ করে দল ছেড়ে দিলেন তারেক জিয়া খুশি হয়ে প্রধানমন্ত্রীর একি সিদ্ধান্ত’ শীর্ষক থাম্বনেইল সম্বলিত একটি ভিডিও ইউটিউবে প্রচার করা হয়েছে। তবে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে দেখা যায়, আলোচিত দাবিটির কোনো সত্যতা নেই। তারেক রহমান কিংবা বিএনপির পক্ষ থেকে এমন কোনো তথ্য জানানো হয়নি। প্রকৃতপক্ষে, অধিক ভিউ পাবার আশায় সম্পূর্ণ অপ্রাসঙ্গিক কয়েকটি ভিডিও ডিজিটাল প্রযুক্তির সহায়তায় সমন্বয়ের মাধ্যমে তাতে চটকদার থাম্বনেইল ব্যবহার করে কোনোপ্রকার নির্ভরযোগ্য তথ্যসূত্র ছাড়াই আলোচিত দাবিটি প্রচার করা হয়েছে।

সুতরাং, রাগ করে তারেক রহমানের দল ছেড়ে দেওয়া এবং তাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার খুশি হয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার দাবিতে প্রচারিত তথ্যটি সম্পূর্ণ মিথ্যা। 

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img