তারেক রহমান অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে এমিরিটাস অধ্যাপক হিসেবে নিয়োগ পাননি

সম্প্রতি, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান অক্সফোর্ড  বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রিমিনোলজি বিভাগের এমিরিটাস অধ্যাপক হিসেবে যোগ দিয়েছেন শীর্ষক একটি দাবি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে। 

ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), 

এছাড়া, তারেক অক্সফোর্ডের কুইনস কলেজের ক্রিমিনোলজি বিভাগের এমিরিটাস অধ্যাপক হিসেবে যোগ দিয়েছেন শীর্ষক সমজাতীয় একটি দাবিও ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

এমন একটি পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ)। 

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রিমিনোলজি বিভাগের অধ্যাপক হিসেবে সজীব ওয়াজেদ জয়ের যোগদানের দাবিটি সঠিক নয় বরং কোনো নির্ভরযোগ্য তথ্যসূত্র ব্যতীত উক্ত দাবিটি ছড়িয়ে পড়ার পর বিষয়টি ভুয়া বলে নিশ্চিত করেছে বিএনপি। 

দাবিটির সূত্রের খোঁজে

এ বিষয়ে অনুসন্ধানের শুরুতে উক্ত দাবিটির সূত্রপাত খুঁজে বের করার চেষ্টা করেছে রিউমর স্ক্যানার টিম। এক্ষেত্রে ফেসবুক মনিটরিং টুল ছাড়াও একাধিক পদ্ধতির সাহায্য নিয়ে আমরা দেখেছি গত ৩০ সেপ্টেম্বর রাত ১১ টা ৪২ মিনিটে এ বিষয়ে প্রথম পাবলিক পোস্ট (আর্কাইভ) করা হয় ফেসবুকে। শেখ তানিস নামে এক ব্যক্তি সেসময় তার করা আলোচিত পোস্টে এ সংক্রান্ত একটি ব্যানারের লেখার মাধ্যমে দাবি করেন, “অভিনন্দন রাজনীতির বরপুত্র, বাংলাদেশের আগামীর দেশনায়ক তারেক রহমান বিশ্ব র‍্যাংকিং এ শীর্ষ বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রিমিনোলোজি বিভাগে এমিরিটাস অধ্যাপক হিসেবে নিয়োগ পাওয়ায়।” (বানান অপরিবর্তিত)

তবে ব্যানারে এ সংক্রান্ত দাবি থাকলেও জনাব তানিস তার একই পোস্টের ক্যাপশনে লিখেছেন, “মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর  আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক বিশ্ববিদ্যালয়ের হাইটেক এন্ড টেকনোলজি বিভাগের অধ্যাপক হিসেবে যোগদান করেছেন – এ ধরনের একটি সংবাদ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। খবরটি সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট।”

Screenshot: Facebook

অর্থাৎ, তার ক্যাপশন এবং পোস্টের ব্যানারের মিল নেই। 

পরবর্তীতে উক্ত ব্যানারটি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়তে দেখেছে রিউমর স্ক্যানার টিম।

Screenshot: Crowd Tangle

অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে কি ক্রিমিনোলজি নামে বিভাগ রয়েছে? 

অক্সফোর্ডে তারেক রহমানের নিয়োগের বিষয়ে দুই ধরণের দাবি ছড়িয়েছে। কিছু পোস্টে দাবি করা হয়েছে, তারেক বিশ্ববিদ্যালয়টির ক্রিমিনোলজি বিভাগের এমিরিটাস অধ্যাপক হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন। কিছু পোস্টের দাবি এরকম, তিনি অক্সফোর্ডের কুইনস কলেজের এমিরিটাস অধ্যাপক হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন। 

আমরা দুইটি দাবির বিষয়েই অনুসন্ধান করেছি। অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট থেকে জানা যাচ্ছে, বিশ্ববিদ্যালয়টির আইন অনুষদের অধীনে ক্রিমিনোলজি বিভাগ রয়েছে। তবে এই বিভাগে ভিজিটিং প্রফেসর, অনারারি ফেলোর মত পদ থাকলেও এমিরিটাস অধ্যাপকের পদ নেই। শিক্ষকদের তালিকায় তারেক রহমান নামেও কেউ নেই।

Screenshot: Oxford University

পরবর্তীতে অক্সফোর্ডের কুইনস কলেজের ওয়েবসাইট থেকে জানা যায়, সেখানে আন্ডারগ্রাজুয়েট এবং পোস্ট গ্রাজুয়েটে ক্রিমিনোলজি নামে কোনো বিষয়ে পড়ানো হয় না। 

বিএনপি সংশ্লিষ্টরা কী বলছেন? 

আলোচিত দাবিটির বিষয়ে জানতে বিএনপির চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খানের সাথে কথা বলেছে রিউমর স্ক্যানার টিম। তিনি বিষয়টি সঠিক নয় বলে নিশ্চিত করে জানান, “সম্পূর্ণ বানোয়াট, বিভ্রান্তি তৈরি করার উদ্দেশ্য করছে।”

মূলত, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের এমিরিটাস অধ্যাপক হিসেবে শিক্ষকতা পেশা শুরু করেছেন শীর্ষক একটি দাবি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে। কিন্তু রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, উক্ত দাবিটি সঠিক নয়। অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে আইন অনুষদের অধীনে ক্রিমিনোলজি বিভাগে ভিজিটিং প্রফেসর, অনারারি ফেলোর মত পদ থাকলেও এমিরিটাস অধ্যাপকের পদ নেই। শিক্ষকদের তালিকায় তারেক রহমান নামেও কেউ নেই। তাছাড়া, কিছু পোস্টে তারেক অক্সফোর্ডের কুইনস কলেজের এমিরিটাস অধ্যাপক হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন বলে দাবি করা হলেও কলেজটিতে আন্ডারগ্রাজুয়েট এবং পোস্ট গ্রাজুয়েটে ক্রিমিনোলজি নামে কোনো বিষয়ে পড়ানো হয় না বলে জেনেছে রিউমর স্ক্যানার৷ এছাড়া, উক্ত দাবিটিকে ভুয়া বলে বিএনপির পক্ষ থেকেও নিশ্চিত করা হয়েছে। 

উল্লেখ্য, পূর্বে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তারেক রহমানের ডক্টরেট ডিগ্রি অর্জন শীর্ষক একটি দাবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়লে বিষয়টি নিয়ে ফ্যাক্টচেক প্রকাশ করে রিউমর স্ক্যানার। 

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পুত্র এবং তাঁর আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় নিউইয়র্ক বিশ্ববিদ্যালয়ের হাইটেক এন্ড টেকনোলজি বিভাগের অধ্যাপক হিসেবে যোগ দিয়েছেন শীর্ষক একটি দাবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়লে বিষয়টি নিয়ে ফ্যাক্টচেক প্রকাশ করে রিউমর স্ক্যানার। 

সুতরাং, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের এমিরিটাস অধ্যাপক হিসেবে যোগ দিয়েছেন শীর্ষক একটি দাবি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে; যা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

  • Statement from Shairul Kabir Khan
  • Oxford University: Centre for Criminology 
  • Rumor Scanner’s own investigation
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img