শনিবার, জুলাই 20, 2024
spot_img

তত্ত্বাবধায়ক সরকার গঠনে বৈঠক এবং নির্বাচন বন্ধে যুক্তরাষ্ট্রের প্রস্তাব দেওয়ার গুজব

সম্প্রতি, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে বৈঠক, ৭ তারিখ নির্বাচন বন্ধে যুক্তরাষ্ট্রের প্রস্তাব– শীর্ষক শিরোনামে এবং থাম্বনেইলে একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। 

ভিডিওটিতে দাবি করা হচ্ছে, তত্ত্বাবধায়ক সরকার গঠনের দাবিতে বৈঠক হয়েছে এবং আগামী ৭ জানুয়ারি আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন বন্ধের প্রস্তাব দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

তত্ত্বাবধায়ক সরকার

ফেসবুকে প্রচারিত কিছু ভিডিও পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন বন্ধে যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে কোনো প্রস্তাব আসেনি এবং তত্ত্বাবধায়ক সরকার গঠনের জন্য কোনো বৈঠকও হয়নি বরং অধিক ভিউ পাবার আশায় চটকদার শিরোনাম ও থাম্বনেইল ব্যবহার করে নির্ভরযোগ্য কোনো তথ্যপ্রমাণ ছাড়াই আলোচিত ভিডিওটি তৈরি করা হয়েছে।

অনুসন্ধানের শুরুতে আলোচিত ভিডিওটি পর্যবেক্ষণ করে রিউমর স্ক্যানার টিম। ভিডিওটি পর্যবেক্ষণ করে দেখা যায়, এটি ভিন্ন ভিন্ন ঘটনার পুরোনো কয়েকটি ছবি এবং সাংবাদিক মোস্তফা ফিরোজের দেওয়া একটি বক্তব্য যুক্ত করে সম্পাদনার মাধ্যমে তৈরি একটি ভিডিও।

ভিডিও যাচাই 

আলোচিত ভিডিওটিতে সাংবাদিক মোস্তফা ফিরোজকে বক্তব্য দিতে দেখা যায়। সেই বক্তব্যের সূত্র ধরে অনুসন্ধানে Voice Bangla নামক একটি ইউটিউব চ্যানেলে গত ২২ ডিসেম্বর “পিটার ডি হাস এবং সারা কুক কি কথা বললেন পররাষ্ট্র সচিবের সাথে?” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া যায়। (আর্কাইভ

উক্ত ভিডিওটিতে থাকা মোস্তফা ফিরোজের দেওয়া বক্তব্যের সাথে আলোচিত ভিডিওটিতে থাকা মোস্তফা ফিরোজের বক্তব্যের হুবহু মিল রয়েছে। 

Video Comparison: Rumor Scanner 

উক্ত ভিডিওটি পর্যবেক্ষণ করে দেখ যায়, সাংবাদিক মোস্তফা ফিরোজ গত বৃহস্পতিবার (২১ ডিসেম্বর) মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার ডি হাস এবং ব্রিটিশ হাইকমিশনার সারাহ কুকের সাথে পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেনের বৈঠক নিয়ে কথা বলছেন। এছাড়া, মোস্তফা ফিরোজকে একই তারিখে চ্যানেল ২৪ এর অনলাইনে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন পাঠ করতে শোনা যায়।

এছাড়া, সাংবাদিক মোস্তফা ফিরোজকে তত্ত্বাবধায়ক সরকার গঠনের জন্য বৈঠক বা যুক্তরাষ্ট্র আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন বন্ধের প্রস্তাব দেওয়া সংক্রান্ত কোনো কথা বলতে বা তথ্য উপস্থাপন করতে শোনা যায়।

পাশাপাশি, আন্তর্জাতিক এবং জাতীয় গণমাধ্যমেও এসংক্রান্ত কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। 

তাছাড়া, ঢাকাস্থ যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসের ফেসবুক পেজ এবং ওয়েবসাইটেও এসংক্রান্ত কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। 

মূলত, আগামী ৭ জানুয়ারি বাংলাদেশের দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন অনুষ্ঠানের দাবি জানিয়ে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) বেশ কয়েকটি রাজনৈতিক দল এই নির্বাচন বয়কটের ঘোষণা দিয়েছে। এদিকে বেশ কয়েকদিন ধরেই এই নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষভাবে করার দাবি জানিয়ে আসছে জাতিসংঘসহ বিভন্ন আন্তর্জাতিক সংগঠন। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে তাদের অবস্থান জানিয়েছে। দেশটি বলছে, বাংলাদেশে তারা অবাধ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন দেখতে চায়। এরই প্রেক্ষিতে সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে “তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে বৈঠক, ৭ তারিখ নির্বাচন বন্ধে যুক্তরাষ্ট্রের প্রস্তাব” শীর্ষক দাবিতে একটি ভিডিও প্রচার করা হয়। তবে অনুসন্ধানে জানা যায়, প্রচারিত দাবিটি সঠিক নয়। অধিক ভিউ পাবার আশায় সাংবাদিক মোস্তফা ফিরোজের ভিন্ন বিষয়ে বক্তব্য দেওয়ার একটি ভিডিওর সাথে ভিন্ন ভিন্ন ঘটনার কয়েকটি ছবি যুক্ত করে চটকদার থাম্বনেইল ব্যবহার করে কোনোপ্রকার নির্ভরযোগ্য তথ্যসূত্র ছাড়াই আলোচিত দাবিটি প্রচার করা হয়েছে। প্রকৃতপক্ষে, পক্ষ থেকে কোনো প্রস্তাব আসেনি এবং তত্ত্বাবধায়ক সরকার গঠনের জন্য কোনো বৈঠকও হয়নি। এছাড়া, আন্তর্জাতিক ও জাতীয় গণমাধ্যমে এসংক্রান্ত কোনো তথ্যও পাওয়া যায়নি। 

প্রসঙ্গত, আগামী ৭ জানুয়ারি রোববার ভোটগ্রহণের দিন রেখে দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়াল। গত ১৫ নভেম্বর সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশ্যে দেওয়া এক ভাষনে এই ঘোষণা দেন তিনি।

সুতরাং, আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন বন্ধে যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে কোনো প্রস্তাব এবং তত্ত্বাবধায়ক সরকার গঠনের জন্য বৈঠক হয়েছে দাবিতে প্রচারিত তথ্যগুলো সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img