শনিবার, মে 18, 2024
spot_img

সীতাকুণ্ডে অক্ষত কোরআন উদ্ধার দাবিতে পুরোনো ভিডিও প্রচার

সম্প্রতি, “চট্টগ্রাম সীতাকুণ্ডে আগুনে সব পুড়ে গেলেও আল্লাহর পবিত্র কুরআনের একটা পাতাও পুড়ে নি” শীর্ষক শিরোনামে একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম গুলোতে ছড়িয়ে পড়েছে।

অক্ষত

এমন কিছু ফেসবুক ভিডিও পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে, এবং এখানে। পোস্টগুলোর আর্কাইভ দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে

ইউটিউবে প্রচারিত এমন একটি পোস্ট দেখুন এখানে। পোস্টটির আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, ছবিটি গত ৪ জুন সীতাকুন্ডে হওয়া অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার নয় বরং এটি ভিন্ন ঘটনার পুরোনো একটি ভিডিও।

ভিডিওটির কিছু স্থিরচিত্র রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে, “سه رهاتی” নামের একটি ফেসবুক পেজে গত ১৬ এপ্রিল”سبحان الله  سەیارە  هەمی یا سوتی تنێ قورئانا پیروز 

نەهاتیە  سوتن” গুগলে বাংলা অনুবাদ- (সুবহানআল্লাহ, গাড়ি পোড়ানো হয়েছে, কিন্তু পবিত্র কোরআন পোড়ানো হয়নি) শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একই ভিডিওটি খুঁজে পাওয়া যায়। ৪৪ সেকেন্ডের ঐ ভিডিওর পারিপার্শ্বিক অবস্থান থেকে দেখা যায়, পুড়ে যাওয়া কোনো বাহনের সিট থেকে প্রায় অক্ষত অবস্থায় কোরআন উদ্ধারের একটি দৃশ্য দেখানো হচ্ছে।

মূলত, কোনো এক বাহন পুড়ে যাওয়ার ঘটনাস্থল থেকে প্রায় অক্ষত অবস্থায় কোরআন উদ্ধারের পুরোনো ভিডিও ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহ করে সাম্প্রতিক সময়ে সীতাকুণ্ডে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাস্থল থেকে অক্ষত অবস্থায় কোরআন উদ্ধারের ভিডিও দাবিতে সামাজিক মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে।

তবে আলোচিত ভিডিওটির প্রকৃত স্থান, ঘটনা এবং প্রেক্ষাপট সম্পর্কিত কোনো তথ্য ইন্টারনেটে খুঁজে না পাওয়া গেলেও এটি নিশ্চিত যে এটি সীতাকুণ্ডে অগ্নিকান্ডের ঘটনার কোনো ভিডিও নয়।

Also Read: পুরান ঢাকায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা দাবিতে প্রচারিত ভিডিওটি প্রায় দুই মাস পুরোনো

প্রসঙ্গত, গত ৪ জুন তারিখে চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের বিএম কন্টেইনার ডিপোতে বিস্ফোরণ ও অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে এবং এতে প্রায় ৪১ জন নিহত হন এবং প্রায় দুইশতাধিক আহত হয়।

সুতরাং, পুরোনো এবং ভিন্ন ঘটনার একটি ভিডিওকে সীতাকুণ্ডের অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার দাবিতে সামাজিক মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে; যা মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img