আতিফ আসলামের স্ত্রী ও কলেজ জীবনের প্রেমের বিষয়ে বিভ্রান্তিকর তথ্য প্রচার

গত ১৯ এপ্রিল Let’s vibe এর আয়োজিত কনসার্টে রাজধানী ঢাকায় পারফর্ম করেন পাকিস্তানি গায়ক আতিফ আসলাম। এরই প্রেক্ষিতে আতিফ আসলামের ব্যক্তিগত জীবন সম্পর্কে একটি তথ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। দাবি করা হয়, আতিফ আসলাম তার কলেজ জীবনের পছন্দের মেয়েকে বিয়ে করতে চাইলে পরিবার অসম্মতি জানায়। তারপর ৩ দিন না খেয়ে পরিবারের সম্মতি আদায় করে উক্ত মেয়েকে মুসলিম সংবিধান অনুযায়ী বিয়ে করেন আতিফ আসলাম।

আতিফ আসলামের স্ত্রী

উক্ত দাবিতে ফেসবুকে প্রচারিত পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)। 

উক্ত দাবিটি ২০২২ সালেও ফেসবুকে প্রচার হয়। ২০২২ সালের পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, কলেজের যে মেয়েকে বিয়ে করার জন্য আতিফ আসলাম তিনদিন না খেয়ে ছিলেন, সেই মেয়ে আতিফ আসলামের বর্তমান স্ত্রী নন। বরং, আতিফ আসলামের স্ত্রী ভিন্ন মেয়ে এবং কলেজ জীবনের ঐ মেয়ের আশা ত্যাগ করার পর আতিফ আসলামের বর্তমান স্ত্রী সারা ভারওয়ানার সঙ্গে পরিচয় হয় আতিফ আসলামের।

অনুসন্ধানের প্রাথমিক পর্যায়ে কি-ওয়ার্ড অনুসন্ধান করে পাকিস্তানের করাচি থেকে নিয়ন্ত্রিত Daily Jang নামের একটি সংবাদপত্রের ওয়েবসাইটে ২০২১ সালের ১৭ জুলাই তারিখে “Atif Aslam Reveals Why He Gave Up On His First Love” শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

প্রতিবেদনটি থেকে আতিফ আসলামের পুরনো একটি সাক্ষাৎকারের বরাতে জানা যায়, আতিফ আসলামের কলেজ জীবনের পছন্দের মেয়ের সাথে বিয়ে দিতে আতিফের মা মানা করার কারণে আতিফ আসলাম ২-৩ দিন খাবার খাননি। ঐ মেয়েটি আতিফ আসলামের চেয়ে বয়সে বড় ছিল এবং আতিফ আসলামের মা ছেলেকে ঐ মেয়ের সাথে বিয়ে দিতে চাননি৷ আতিফ আসলাম জানান, আতিফের মা তাকে বলেছিলেন, আতিফের বড় তিন ভাই তখনও অবিবাহিত এবং আতিফের বয়স তখন মাত্র ২৩ বছর ছিল। মা তাকে এও বলেছিলেন, আতিফ যেহেতু টাকা আয় করেননা সেক্ষেত্রে আতিফ কীভাবে তার স্ত্রীর ভরণপোষণের দায়িত্ব নেবেন।

উক্ত সূত্র ধরে অধিকতর অনুসন্ধান করলে আতিফ আসলামের সাক্ষাৎকারের মূল ভিডিওটি খুঁজে পায় রিউমর স্ক্যানার টিম। ২০১৮ সালের ১ ডিসেম্বর তারিখে পাকিস্তানি ফিল্ম ও টেলিভিশন অভিনেত্রী সামিনা পীরজাদার সাথে আতিফ আসলামের একটি সাক্ষাৎকারের দ্বিতীয় অংশ ‘Entertainment Daily’ নামের একটি ইউটিউব চ্যানেলে পোস্ট করা হয়। এই সাক্ষাৎকারে আতিফ আসলাম তার নিজের ক্যারিয়ার ও জীবনের নানা বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছেন৷ ভিডিওটির ২৫ মিনিট ২২ সেকেন্ডে তিনি উক্ত মেয়েকে বিয়ে করতে চাওয়ার বিষয়ে এবং তার মায়ের স্বীকৃতি না পাওয়ায় ২-৩ দিন খাবার না খাওয়ার কথাও উল্লেখ করেন। আতিফ আসলাম জানান, সারা’কে (আতিফ আসলামের স্ত্রী) ডেট করার আগে তিনি আরেকটি মেয়েকে বিয়ে করার জন্য তার মাকে জোরাজোরি করেন৷ ঐ মেয়েটি তার কলেজেরই একজন মেয়ে ছিল। তখন তার (আতিফ) বয়স ২৩ বা ২৪ ছিল। তখন মা তাকে বলেন, তার চেয়ে বড় তিনজন ভাই এখনও বিয়ে করেননি। তাছাড়া তখন তার বয়স ২৩ বছর, তিনি কি-ই বা রোজগার করেন। বিয়ে করে স্ত্রীর ভরণপোষণের দায়িত্ব কীভাবে নিবেন। তাছাড়া, উক্ত মেয়ের বয়স আতিফের চেয়ে বেশি ছিল। এসব কারণে মানা করায় আতিফ আসলাম ২-৩ দিন খাবার খাননি। ২-৩ দিন পর আতিফের মা কান্না করে আতিফকে খেতে বললে আতিফ খাবার খান এবং সেই মেয়ের আশা ত্যাগ করেন৷

তাছাড়া আতিফ আসলাম (তার স্ত্রী সারাকে ইঙ্গিত করে) বলেন, তারপর তিনি (আতিফ) নতুন একজনকে (সারাকে) পেয়ে যান এবং তিনি সারাকে নিয়ে খুবই খুশি। 

উল্লেখ্য যে, তিনি একই সাক্ষাৎকারে বলেন, তিনি সারাকে একাধিক জায়গায় একাধিক বার দেখেন এবং তারপর একটি বিয়ের অনুষ্ঠানেও দেখেন। তবে একে অপরের সাথে তাদের আরো বেশ কিছু সময় পর পরিচয় হয়। অর্থাৎ, এ বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যায়, আতিফ আসলামের বর্তমান স্ত্রী সারা ভারওয়ানা এবং কলেজের যে মেয়েকে বিয়ে করতে আতিফ আসলাম ২-৩ দিন খাবার খাননি, দুজনই ভিন্ন দুইজন মেয়ে। 

তাছাড়া, ২০২১ সালে ভারতীয় জনপ্রিয় সংবাদমাধ্যম Republic World এ “Did you know ‘Woh Lamhe’ singer Atif Aslam is married? Here’s who his wife is” শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে স্পষ্টভাবে উল্লেখ করা হয়েছে, সারা ভারওয়ানাকে ইসলামিক রীতিতে বিয়ে করেছিলেন আতিফ আসলাম। অর্থাৎ, ইসলামিক রীতিতে আতিফের বিয়ে করা মেয়ে কলেজের ঐ মেয়ে নয়।

মূলত, ২৩-২৪ বছর বয়সে আতিফ আসলাম তার চেয়ে বড় তার কলেজের একজন মেয়েকে বিয়ে করতে চেয়ে নিজের মাকে জোরাজোরি করেন। কিন্তু, আতিফের মা এই আবদার পূরণ করতে অস্বীকৃতি জানালে আতিফ আসলাম ২-৩ দিন খাবার খাননি। পরবর্তীতে মায়ের কান্না দেখে আতিফ আসলাম নিজের জেদ ভাঙেন এবং উক্ত মেয়ের আশা পরিত্যাগ করেন। পরবর্তীতে সারা ভারওয়ানা নামে আরেকজন মেয়ের সাথে আতিফের পরিচয় হয় যাকে পরবর্তীতে তিনি বিয়ে করেন।

সুতরাং, সারাকে (আতিফের স্ত্রী) বিয়ে করতে আতিফ ২-৩ দিন খাবার খাননি মর্মে প্রচারিত দাবিটি বিভ্রান্তিকর।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img