শনিবার, এপ্রিল 13, 2024
spot_img

মাহের আলী রুশো স্বীকৃত কোনো বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সম্মানসূচক ডক্টরেট পাননি

গত ২৮ এপ্রিল মূল ধারার সংবাদমাধ্যম চ্যানেল আই “বিজ্ঞানে বিশ্বের সবচেয়ে কম বয়সী সম্মানসূচক ড. বাংলাদেশের রুশো” শীর্ষক শিরোনামে একটি প্রতিবেদনে দাবি করে, “বিশ্বে সবচেয়ে কম বয়সে বিজ্ঞানে সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি অর্জন করলো বাংলাদেশের মাহির আলী রুশো। যুক্তরাষ্ট্রের আমেরিকান ইউনির্ভার্সিটি অব বিজনেস অ্যান্ড স্যোশ্যাল সায়েন্স তাকে এই ডিগ্রি দিয়েছে।”

একইদিন চ্যানেল আই এর ইউটিউব চ্যানেলও এ বিষয়ে একটি ভিডিও প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। দেখুন এখানে (আর্কাইভ)।

গত ১০ মে আরেক সংবাদমাধ্যম বাংলাভিশনও বিজ্ঞানে বিশ্বের সবচেয়ে কম বয়সে ডক্টরেট ডিগ্রি পেলেন বাংলাদেশের রুশো শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে দাবি করে, বিজ্ঞানে বিশ্বের সবচেয়ে কম বয়সে ডক্টরেট ডিগ্রি প্রাপ্তির গৌরব এখন বাংলাদেশের হাতে। মাত্র ১৪ বছর ১০ মাস বয়সেই সেই সম্মান অর্জন করেছেন বাংলাদেশের মাহের আলী রুশো, অর্থাৎ দশম শ্রেণী পড়ুয়া রুশো এখন ড.মাহের আলী রুশো। ডিসটেন্টস লার্নিং ও জিনিয়াস অলিম্পিয়াডে গবেষণা পত্রসহ বিভিন্ন কার্যক্রমের জন্য অ্যামেরিকান ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস অ্যান্ড সোস্যাল সায়েন্স রুশোকে প্রদান করেন সম্মানসূচক এই ডক্টরেট ডিগ্রি । ২৫ এপ্রিল আমেরিকান ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস অ্যান্ড সোশ্যাল সায়েন্সেস এক ইমেইলে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। 

একই দাবিতে আরেক সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন দেখুন ডিজি বাংলা।

উক্ত দাবিতে প্রচারিত কিছু ফেসবুক পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ)। 

একই দাবিতে ইউটিউবের ভিডিও দেখুন এখানে (আর্কাইভ)। 

একই দাবিতে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন দেখুন AP, Forbes Mexico। 

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, মাহের আলী রুশো যুক্তরাষ্ট্রের স্বীকৃত কোনো বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সম্মানসূচক ডক্টরেট পাননি বরং ভুয়া ঠিকানা ও ফোন নম্বর ব্যবহার করে হংকং থেকে পরিচালিত নামসর্বস্ব একটি কথিত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থের বিনিময়ে ডক্টরেট ডিগ্রি নিয়েছেন রুশো। 

এ বিষয়ে অনুসন্ধানের শুরুতে মাহের আলী রুশোর ব্যক্তিগত ওয়েবসাইটের গত ০৬ মে এর আর্কাইভ সংস্করণে আলোচিত ডক্টরেট ডিগ্রিটির সার্টিফিকেট এবং এ সংক্রান্ত একটি চিঠি খুঁজে পাওয়া যায়। 

Screenshot collage: Rumor Scanner

সার্টিফিকেটে American University of Business and Social Sciences (AUBSS) নামে একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের এবং International Association for Quality Assurance in Pre-tertiary and Higher Education (QAHE) নামক একটি আন্তর্জাতিক সংগঠনের লোগো রয়েছে যারা যৌথভাবে রুশোকে এই সম্মাননা দিয়েছে। 

সার্টিফিকেটের তথ্যমতে, রুশোকে গত ২৫ এপ্রিল Doctor of Science নামক এই সম্মাননা দেওয়া হয়। QAHE এর পক্ষ থেকে গত ২৯ এপ্রিল লেখা এক চিঠিতে রুশোর এই সম্মাননার বিষয়ে বিস্তারিত উল্লেখ রয়েছে, যেখানে বলা হয়েছে জনস্বাস্থ্য ও সমাজের জন্য অবদান রাখার স্বরূপ রুশোকে ডক্টরেট ডিগ্রি প্রদান করা হয়েছে। 

পরবর্তীতে অনুসন্ধান করে AUBSS এবং  QAHE এর ওয়েবসাইটে এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়। 

AUBSS কি কোনো বিশ্ববিদ্যালয়? 

রুশোকে American University of Business and Social Sciences (AUBSS) নামক যে বিশ্ববিদ্যালয় সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি দিয়েছে তাদের ওয়েবসাইট এর About us পেজ থেকে জানা যাচ্ছে, এটি একটি অনলাইন বিশ্ববিদ্যালয় বলে দাবি করছে তারা, যারা ডিসট্যান্স লার্নিং এর সুযোগ দিয়ে থাকে। 

কীভাবে এই ডিসট্যান্স লার্নিং এর কাজটি চলে তা জানতে এ সংক্রান্ত পেজে গিয়ে কোনো তথ্য মেলেনি। দেখুন এখানে। 

ওয়েবসাইটের একটি পেজে বিশ্ববিদ্যালয়টির উপাচার্য হিসেবে Prof. David Ackah নামে এক ব্যক্তির নাম উল্লেখ রয়েছে। পরবর্তীতে কিওয়ার্ড সার্চ করে একই নামে ঘানার একজন ব্যক্তির খোঁজ পাওয়া যায়, যার লিংকডইন অ্যাকাউন্ট (আর্কাইভ) থেকে জানা যাচ্ছে, তিনি একাধিক প্রতিষ্ঠানে লেকচারার হিসেবে দায়িত্বে আছেন। তবে তার প্রোফাইলে American University of Business and Social Sciences (AUBSS) এর নাম উল্লেখ নেই। একই নামে ভিন্ন কোনো ব্যক্তির খোঁজ না পেয়ে রিউমর স্ক্যানার টিমের পক্ষ থেকে Prof. David Ackah এর সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তার পক্ষ থেকে কোনো উত্তর পাওয়া যায়নি। 

ওয়েবসাইটটির Faculty Members সেকশনে এডুকেটর হিসেবে চার ব্যক্তির নাম উল্লেখ রয়েছে। এরা হলেন Mr. Yeoh Wee Win, Dr. Deborah S. Brockman, Ms. Mykim Tran এবং Dr. Joseph J. LeVesque।

Screenshot source: AUBSS

এর মধ্যে Mr. Yeoh Wee Win এর লিংকডইন অ্যাকাউন্টে এডুকেটর হিসেবে American University of Business and Social Sciences (AUBSS) এর নাম উল্লেখ রয়েছে। তবে Ms. Mykim Tran এর লিংকডইন অ্যাকাউন্ট এবং ব্যক্তিগত ওয়েবসাইটে বিশ্ববিদ্যালয়টির নাম খুঁজে পাওয়া যায়নি। রিউমর স্ক্যানার টিম এ বিষয়ে জানতে Ms. Mykim Tran এর সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেছে। কিন্তু তার পক্ষ থেকেও কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি।

তাছাড়া Dr.Deborah Brockman নামে কোনো ব্যক্তির লিংকডইন বা নির্ভরযোগ্য কোনো সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টের অস্তিত্ব মেলেনি। 

তালিকায় Dr. Joseph J. LeVesque নামে চতুর্থ যে ব্যক্তির বিষয়ে উল্লেখ রয়েছে, তিনি গেল বছরের (২০২২) জানুয়ারিতে মারা (, ) গেছেন। এর পূর্বে তিনি AUBSS এ এডুকেটর হিসেবে দায়িত্বে ছিলেন এমন কোনো প্রমাণ মেলেনি। 

পরবর্তীতে তথাকথিত বিশ্ববিদ্যালয়টির Contact Us সেকশনে গিয়ে একটি ঠিকানা (8 The Green STE A, Dover, DE 19901) ও ফোন নম্বর (302-335-7477) খুঁজে পাওয়া যায়। 

Screenshot source: AUBSS

উক্ত লোকেশন গুগলের স্ট্রিট ভিউয়ের মাধ্যমে অনুসন্ধান করে দেখা যায়, উক্ত ঠিকানাটি The Delaware Company House এর মালিকানাধীন। উক্ত ঠিকানার আশেপাশের স্থাপনায় American University of Business and Social Sciences (AUBSS) নামে কোনো প্রতিষ্ঠানের অস্তিত্ব নেই। 

Screenshot collage: Rumor Scanner

পরবর্তীতে ফোন নম্বরটির বিষয়ে অনুসন্ধান করে জানা যায়, এটি যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থিত ShipToBox নামে একটি কুরিয়ার সার্ভিসের ফোন নাম্বার। 

Screenshot source: BBB

আরও অনুসন্ধান করে কথিত এই বিশ্ববিদ্যালয়ের ফেসবুক পেজে (আর্কাইভ) আরেকটি ঠিকানা (444 Alaska Avenue Suite, Los Angeles, CA, United States, 90503) খুঁজে পাওয়া যায়, যার সাথে ওয়েবসাইটে উল্লিখিত ঠিকানার মিল নেই। 

Screenshot source: Facebook 

উক্ত ঠিকানাটি গুগলের স্ট্রিট ভিউয়ের মাধ্যমে অনুসন্ধান করে দেখা যায়, উক্ত ঠিকানাটি Shipito নামে একটি পণ্য পরিবহন কোম্পানির ওয়্যারহাউজ। উক্ত ঠিকানা এবং এর আশেপাশের স্থাপনায় American University of Business and Social Sciences (AUBSS) নামে কোনো প্রতিষ্ঠানের অস্তিত্ব মেলেনি।

Screenshot source: Google Street View  

AUBSS এর ফেসবুক পেজটির Page transparency (আর্কাইভ) সেকশন পর্যবেক্ষণ করে দেখা যায়, ২০১৯ সালে ০২ এপ্রিল চালু করা পেজটি হংকং থেকে এক ব্যক্তি দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে।  

Screenshot source: Facebook 

প্রতিষ্ঠানটির ডোমেইন রেজিষ্ট্রেশন করা হয়েছে ২০১৯ সালের পহেলা এপ্রিল। এর পরদিনই ফেসবুক পেজটি খোলা হয়৷ 

রিউমর স্ক্যানার টিম পরবর্তীতে International Association for Quality Assurance in Pre-tertiary and Higher Education (QAHE) নামক কথিত আন্তর্জাতিক সংগঠনটির ফেসবুক পেজের Page transparency (আর্কাইভ) সেকশনও পর্যবেক্ষণ করে দেখা যায়, ২০১৮ সালে ২৬ ডিসেম্বর চালু করা পেজটি হংকং থেকে তিন ব্যক্তি দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে।  

Screenshot source: Facebook 

কিন্তু সংগঠনটির ওয়েবসাইটে তাদের লোকেশন হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের একটি ঠিকানা (1406 N. Dupont Hwy. Suite # HK0033 New Castle DE 19720) উল্লেখ করা হয়েছে।

উক্ত ঠিকানাটি গুগলের স্ট্রিট ভিউয়ের মাধ্যমে অনুসন্ধান করে দেখা যায়, উক্ত ঠিকানাটি Fedx নামে একটি পণ্য পরিবহন কোম্পানির দোকান। উক্ত ঠিকানার আশেপাশের স্থাপনায় International Association for Quality Assurance in Pre-tertiary and Higher Education (QAHE) নামে কোনো প্রতিষ্ঠানের ঠিকানা নেই। 

Screenshot collage: Rumor Scanner

সংগঠনটি ডেলাওয়ার রাজ্যে রেজিস্ট্রেশন করা বলে দাবি করা হলেও ওয়েবসাইটে দেওয়া ঠিকানায় সংগঠনটির কোনো হদিস মেলেনি।

সংগঠনটির ডোমেইন রেজিষ্ট্রেশন করা হয়েছে ২০১৮ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি। এর পরদিনই ফেসবুক পেজটি খোলা হয়৷ 

AUBSS এর কি যুক্তরাষ্ট্র সরকারের অনুমোদন আছে? 

যুক্তরাষ্ট্রের শিক্ষা বিভাগের ওয়েবসাইটে কোন কোন বিশ্ববিদ্যালয় দেশটিতে অনুমোদিত তা সার্চ করে দেখা যায়। আমরা American University of Business and Social Sciences (AUBSS) নামটি সেখানে সার্চ করে এই নামে কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্তিত্ব খুঁজে পাইনি। 

এ বিষয়ে জানতে রিউমর স্ক্যানার টিম যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত একাধিক বাংলাদেশি শিক্ষার্থী এবং শিক্ষকের সাথে কথা বলেছে। দেশটির ইউনিভার্সিটি অব আলাবামা অ্যাট বার্মিংহামের সহযোগী অধ্যাপক রাগিব হাসান রিউমর স্ক্যানারকে জানিয়েছেন, 

“এই বিশ্ববিদ্যালয়ের .edu ডোমেইনও নেই। এটির ওয়েবসাইট দেখে এটি একটি শতভাগ জাল সাইট বলে মনে হচ্ছে।” 

রুশোকে কি ডক্টরেট ডিগ্রি পেতে অর্থ খরচ করতে হয়েছে?

মাহের আলী রুশোকে AUBSS এর সাথে যৌথভাবে সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি প্রদানকারি আরেক প্রতিষ্ঠান International Association for Quality Assurance in Pre-tertiary and Higher Education (QAHE) এর ওয়েবসাইটে ২০২২ সালের ১১ মে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন থেকে জানা যাচ্ছে, সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি পেতে আবেদনকারিদের ১২০০ ডলার খরচ করতে হবে৷ 

Screenshot collage: Rumor Scanner

একই ওয়েবসাইটের আরেকটি পেজে এই ডিগ্রির জন্য আবেদন করার নিয়মাবলি সম্পর্কে বিস্তারিত বর্ণনা করা হয়েছে। বলা হয়েছে, শুরুতে একটি নমিনেশন ফর্ম পূরণ করতে হবে। এরপর তাদের পক্ষ থেকে বিস্তারিত জানতে চেয়ে যোগাযোগ করা হবে। পরবর্তীতে যোগ্য বিবেচিত হলে আবেদনকারিকে ফি এর রশিদ পাঠানো হবে। পেপালের মাধ্যমে ফি পরিশোধ করার ৭-১০ দিনের মধ্যে ইমেইলে ডিজিটাল অ্যাওয়ার্ড এবং ৪-৬ সপ্তাহের মধ্যে অ্যাওয়ার্ডের হার্ডকপি পাঠিয়ে দেওয়া হবে। 

Screenshot collage: Rumor Scanner

ডক্টরেট ডিগ্রি পেতে রিউমর স্ক্যানার টিমের আবেদন, অতঃপর…

রুশোর ডক্টরেট ডিগ্রির বিষয়টি যাচাই করতে রিউমর স্ক্যানার টিমের একজন সদস্য ছদ্মবেশে গত ২০ জুন “ডক্টরেট ডিগ্রি পেতে চায়” জানিয়ে এর জন্য কী কী প্রক্রিয়া অবলম্বন করতে হবে তা জানতে চেয়ে QAHE কে ইমেইল করে। মেইলে আমরা জানাই, হিরণ নামে ১২ বছর বয়সী একজন সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রিটি পেতে আগ্রহী। একইদিন ফিরতি ইমেইলে তারা হিরণের সিভি পাঠাতে বলে। তবে আমরা পরবর্তীতে আর তাদের সাথে যোগাযোগ করিনি। 

কিন্তু এর দিন ছয়েক পর, গত ২৮ জুন QAHE থেকে রিউমর স্ক্যানার টিমের উক্ত সদস্যকে মেইল করে জানানো হয়, হীরণের বয়স কম হওয়ায় তাকে সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি দেওয়া যাচ্ছে না। তবে সে Young Achiever Award 2023-2024 এর জন্য আবেদন করতে পারে। 

এই বিষয়টি কীভাবে উল্লেখ করা হয়েছে ইমেইলে তা লক্ষ্য করুন, “We suggest that we could apply for our Young Achiever Award 2023-2024.”  

যার বাংলা অনুবাদ করলে দাঁড়ায়, “আমরা পরামর্শ দেই যে আমরা আমাদের ইয়াং অ্যাচিভার অ্যাওয়ার্ড ২০২৩-২০২৪ এর জন্য আবেদন করতে পারি।”  

Screenshot source: Email from QAHE

একই ইমেইলে উক্ত অ্যাওয়ার্ডের ফি ৪০০ মার্কিন ডলার এবং এর সাথে ৫ শতাংশ সার্ভিস চার্জের বিষয়টি উল্লেখ করা হয়েছে। এই ফি পরিশোধ করার পর আমাদেরকে ইমেইলের মাধ্যমে ডিজিটাল অ্যাওয়ার্ড পাঠানো হবে। ওয়েবসাইটে হীরণের নাম এবং খবর প্রকাশ করা হবে। 

বিষয়টি নিশ্চিত করার জন্য আমাদেরকে হীরণের সিভি পাঠাতে বলা হয় এবং এরপর তারা ফি এর রশিদ পাঠাবে বলে জানায়।

তবে আমরা ফিরতি ইমেইলে জানিয়ে দেই, আমাদের ডক্টরেট ডিগ্রিই প্রয়োজন। 

কিন্তু QAHE কর্তৃপক্ষ আমাদের ইমেইলের ভাষা বুঝতে পারেনি বলে প্রতীয়মান হয়েছে। কারণ, তারা পরবর্তীতে যে ইমেইলটি পাঠিয়েছে তাতে শুরুতেই যা লেখা তার বাংলা অনুবাদ করলে দাঁড়াচ্ছে, “আমাদের ইয়াং অ্যাচিভার অ্যাওয়ার্ড ২০২৩-২৪ -এর মনোনয়নের জন্য আপনাকে আমন্ত্রণ জানাতে পেরে আমরা আনন্দিত।” 

এরপর তারা তাদের সংগঠন এবং এই অ্যাওয়ার্ড প্রসঙ্গে বিস্তারিত বর্ণনা দিয়ে শেষ প্যারায় লিখেছে, অতিমারী চলার কারণে এখন সশরীরে কোনো অ্যাওয়ার্ড প্রদান অনুষ্ঠান হবে না।

Screenshot source: Email from QAHE

তবে অতিমারী শেষ হওয়ার ঘোষণা এখনও না এলেও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, বৈশ্বিক যে জরুরি অবস্থা ছিল তার আর নেই এখন। কিন্তু অতিমারীর কারণ দেখিয়ে কোনো অনুষ্ঠান না হওয়ার কথা বলছে QAHE।

এই ইমেইলের জবাবে আমরা QAHE কে আমাদের পাঠানো পূর্বের মেইলটি আবার পড়ার পরামর্শ দিলে তারা জানায়, তাদের একাডেমিক বোর্ড এই নমিনেশন গ্রহণ করতে পারছে না। এরপর আর আমাদের যোগাযোগ হয়নি। 

অর্থাৎ, সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি পেতে QAHE এর কাছে আবেদন করার বিষয়ে জানতে চাইলে তারা আমাদের বয়সের কারণ দেখিয়ে অন্য একটি অ্যাওয়ার্ড এবং তার যাবতীয় ফি সম্পর্কে জানিয়েছে। তবে এই ইমেইল চালাচালিতে তাদের ইমেইলে একাধিক শব্দগত এবং বোঝার ভুল লক্ষ্য করা গেছে। 

সম্মানসূচক ডক্টরেট পেতে কি ফি দিতে হয়?

রাগিব হাসান বলছিলেন, “প্রকৃত মার্কিন বিশ্ববিদ্যালয়গুলো শুধুমাত্র বিখ্যাত ব্যক্তিদের সম্মানসূচক ডক্টরেট প্রদান করে। সত্যিকার বিশ্ববিদ্যালয় সম্মানসূচক ডক্টরেট প্রদান করতে কখনো ফি গ্রহণ করবে না। যদি এই ধরনের কোনো প্রতিষ্ঠান যারা অর্থের বিনিময়ে সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি দেবে বলে আপনার সাথে যোগাযোগ করে, তাহলে এটি শতভাগ প্রতারণা। অর্থের বিনিময়ে অমুক জায়গা থেকে কেউ যদি ‘ডক্টরেট’ পায়, তবে তারা হয় খুব বোকা, নয়তো নিজেরাই প্রতারক বলে বিবেচিত হবে।”

সার্বিক বিষয়ে জানতে রিউমর স্ক্যানার টিম মাহের আলী রুশোর সাথে যোগাযোগ করলে তার এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য নেই বলে তিনি আমাদের জানান।

এপি-ফোর্বসে অর্থের বিনিময়ে রুশোর বিষয়ে প্রতিবেদন?

মার্কিন সংবাদ সংস্থা ‘অ্যাসোসিয়েটেড প্রেস’ (এপি) গত ২৩ মে রুশোর বিষয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে, যেখানে দাবি করা হয়েছে, মাত্র ১৫ বছর বয়সেই রুশো সবচেয়ে কম বয়সে সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি পাওয়ার গৌরব অর্জন করেছে। 

প্রতিবেদনের শুরুতেই এপি’র পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এটি একটি পেইড কন্টেন্ট যা KISSPR নামক সাইট থেকে নেওয়া। এপির নিউজ স্টাফদের এই কন্টেন্টের সাথে সংশ্লিষ্টতা নেই। 

Screenshot source: AP

পরবর্তীতে KISSPR এর ওয়েবসাইটে আলোচিত কন্টেন্টটি খুঁজে পাওয়া যায়।

নিচের স্ক্রিনশটটি লক্ষ্য করুন, কন্টেন্টটি জনাব মাহের আলী রুশোই লিখেছেন বলে দেখা যাচ্ছে।

Screenshot source: KISSPR

ফোর্বস মেক্সিকোতে রুশোর বিষয়ে প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হয়েছে গত ০৪ জুলাই। এই প্রতিবেদনেও রুশোর সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রির বিষয়টি উঠে এসেছে। 

তবে ফোর্বসের এই প্রতিবেদনের লেখক হিসেবে কারো নাম উল্লেখ নেই, লেখকের স্থলে Forbes Content উল্লেখ রয়েছে।  

প্রতিবেদনের শেষে লেখা রয়েছে, কন্টেন্ট হিসেবে যেগুলো উপস্থাপন করা হয় সেগুলোর দায়ভার সংশ্লিষ্ট ব্র্যান্ড ও তাদের মুখপাত্র বা এজেন্টদের এবং ফোর্বস মেক্সিকো-এর অবস্থান এবং সম্পাদকীয় লাইন এ ব্যাপারে স্বাধীন অবস্থান বজায় রাখে।

Screenshot collage: Rumor Scanner

তবে ফোর্বসের স্টাফ বা সংবাদমাধ্যমটির অথোর কর্তৃক প্রকাশিত প্রতিবেদনে উক্ত শেষ প্যারাটি উল্লেখ পাওয়া যায়নি। 

অনুসন্ধানে রিউমর স্ক্যানার টিম দেখেছে, ফোর্বস মেক্সিকো’তে অর্থের বিনিময়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করানো সম্ভব। এমন একটি ওয়েবসাইট পেয়েছি আমরা, যেখানে বলা হচ্ছে, ফোর্বস ম্যাক্সিকোতে অর্থের বিনিময়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করা যাবে। এই ধরনের একাধিক ওয়েবসাইট রয়েছে। 

মূলত, সম্প্রতি দেশের কতিপয় গণমাধ্যমের খবরে দাবি করা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের আমেরিকান ইউনির্ভার্সিটি অব বিজনেস অ্যান্ড স্যোশ্যাল সায়েন্স বাংলাদেশের মাহির আলী রুশো নামক এক শিক্ষার্থীকে সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি দিয়েছে। কিন্তু রিউমর স্ক্যানারের দীর্ঘ অনুসন্ধানে জানা যায়, আলোচিত বিশ্ববিদ্যালয়টি যুক্তরাষ্ট্রের নয় এবং এর কোনো স্বীকৃতি বা অনুমোদন নেই। ভুয়া ঠিকানা ও ফোন নম্বর ওয়েবসাইটে দিয়ে হংকং থেকে সাইটটির ফেসবুক পেজ পরিচালিত হচ্ছে। তাছাড়া, উক্ত কথিত বিশ্ববিদ্যালয়টির সাথে যৌথভাবে QAHE নামক যে সংগঠন এই ডিগ্রি দিয়েছে তারাও সাইটে ভুয়া ঠিকানা ব্যবহার করেছে। সাইটটির দেয়া তথ্যমতে, সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি পেতে ১২০০ ডলার খরচ করতে হয়। কিন্তু স্বীকৃতি কোনো বিশ্ববিদ্যালয় সাধারণত সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি প্রদানে কোনো অর্থ গ্রহণ করে না। 

উল্লেখ্য, পূর্বে মাহের আলী রুশো কলোরাডো ইউনিভার্সিটি বোল্ডারে মাস্টার্সে ৯০ শতাংশ স্কলারশিপ পেয়েছেন শীর্ষক একটি দাবি কতিপয় গণমাধ্যমে প্রচার করা হলে এ বিষয়ে ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন প্রকাশ করে রিউমর স্ক্যানার। 

সুতরাং, অনুমোদনহীন ভুয়া একটি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রাপ্ত সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রিকে মাহের আলী রুশো কর্তৃক যুক্তরাষ্ট্রের একটি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি অর্জন দাবিতে গণমাধ্যমে প্রচার করা হয়েছে; যা সম্পূর্ণ মিথ্যা। 

তথ্যসূত্র

RS Team
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img