২০১১ সালের জাপানের সুনামির ভিডিওকে সিলেটের বন্যার ভিডিও দাবিতে প্রচার

সম্প্রতি, “সিলেটের অবস্থা খুবই খারাপ আল্লাহ যেন হেফাজত করেন।” শীর্ষক শিরোনামে একটি ভিডিও সামাজিক মাধ্যম টিকটকে প্রচার করা হয়েছে।

টিকটকে প্রচারিত পোস্টটি দেখুন এখানে। পোস্টের আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে দেখা যায়, আলোচিত ভিডিওটি সাম্প্রতিক সময়ে হওয়া সিলেটের বন্যার নয় বরং এটি ২০১১ সালের মার্চে জাপানের মিয়াকো শহরে হওয়া সুনামির ভিডিও।

ভিডিওটির কিছু স্থিরচিত্র রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে, আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম “এবিসি নিউজ” এর ইউটিউব চ্যানেলে ২০১৪ সালের ১১ মার্চ “Japan Tsunami Anniversary: 3 Years Later” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত একটি ভিডিও প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

পরবর্তীতে, ভিডিওটির সূত্র ধরে কি-ওয়ার্ড সার্চ পদ্ধতি ব্যবহার করে, আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম “লস এঞ্জেলস টাইমস” এর অনলাইন সংস্করণে ২০১৪ সালের ১৪ মার্চ “Japan rethinks tsunami safety” শীর্ষক শিরোনামে আলোচিত ভিডিওটির একটি স্থিরচিত্র ব্যবহার করে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়।

জাপান
Screenshot from Los Angels Times

এছাড়াও ইংরেজি ভাষার এনসাইক্লোপিডিয়া “ব্রিটানিকা” এর অনলাইন সংস্করণে ২০১১ সালের ১২ মার্চ “Japan earthquake and tsunami of 2011: Media” শীর্ষক শিরোনামে আলোচিত ভিডিওটির একই স্থিরচিত্র ব্যবহার করে প্রকাশিত একটি নিবন্ধ খুঁজে পাওয়া যায় (ছবিভিত্তিক নিবন্ধ দেখুন এখানে)।

মূলত, ২০১১ সালের ১১ মার্চ এশিয়ার দেশ জাপানের মিয়াকো শহরে হওয়া সুনামির একটি ভিডিওকে সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশের সিলেট অঞ্চলে চলমান বন্যার ভিডিও দাবিতে সামাজিক মাধ্যম টিকটকে প্রচার করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশের সিলেট অঞ্চলে গত ১৪ মে থেকে সুরমা ও কুশিয়ারা নদীর পানি বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়া শুরু করে। এর ফলে সিলেট মহানগরসহ জেলার ১৩টি উপজেলায় প্লাবিত হয় হাজার হাজার গ্রাম। পানিবন্দী হয়ে পড়ে হাজার হাজার মানুষ। পার্শ্ববর্তী ভারতের মেঘালয়ের চেরাপুঞ্জিতে প্রায় ২ হাজার ২০০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে। সেখান থেকে নেমে আসা পানির ঢলেই বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। যা গত ১৮ বছরের মধ্যে সিলেটে সবচেয়ে বড় বন্যায় পরিণত হয়েছে। 

সুতরাং, জাপানের মিয়াকো শহরে হওয়া সুনামির ভিডিওকে বাংলাদেশের সিলেট অঞ্চলে চলমান বন্যার ভিডিও দাবিতে টিকটকে প্রচার করা হচ্ছে; যা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

তথ্যসূত্র

RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img