রবিবার, জুলাই 21, 2024
spot_img

গাজার ধ্বংসস্তুপের সাম্প্রতিক দৃশ্য দাবিতে পুরোনো ছবি প্রচার

সম্প্রতি, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে কোনো এক ধ্বংসস্তুপের মাঝে মৃত এক ব্যক্তির আঙুলের ফাঁকে খেজুর গাছের চারা ডানা মেলার একটি ছবি প্রচার করে দাবি করা হচ্ছে, চলমান ইসরায়েল ফিলিস্তিন সংকটে গাজার কোনো এক ধ্বংসস্তুপের নিচে চাপা পড়া কারও হাতে একটি খেজুর ছিলো। হয়তো খাওয়ার জন্য তুলে ছিলেন। খেজুরের বীজ থেকে জার্মিনেট হয়ে এমন চারার পর্যায়ে আসতে ৩মাসের মত লাগে। তিন মাসে এই বীজ থেকে চারা রোপিত হয়। তবে দীর্ঘদিন ধ্বংসস্তুপে চাপা থাকার পরেও হাতের আংগুলগুলো স্পষ্ট, চামড়ার রং ঠিক জীবন্ত মানুষের মত। ছবিসহ এই ঘটনাটি সাম্প্রতিক বলে প্রচার করা হয়।

উক্ত দাবিতে ফেসবুকে প্রচারিত এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ), এখানে (আর্কাইভ) এবং এখানে (আর্কাইভ)।

ফ্যাক্টচেক

রিউমর স্ক্যানার টিমের অনুসন্ধানে জানা যায়, কোনো এক ধ্বংসস্তুপে চাপা পড়া মৃত ব্যক্তির আঙুলের ফাঁকে  গজিয়ে উঠা খেজুরের চারা গাছের ছবিটি সাম্প্রতিক ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংকটকে কেন্দ্র করে গাজার ধ্বংসস্তুপের নয়। বরং ছবিটি অন্তত ২০১৫ সাল থেকে সিরিয়া, আফগানিস্তান লেবাননের ধ্বংসস্তূপের দৃশ্য দাবিতে প্রচার হয়ে আসছে।

অনুসন্ধানের শুরুতে রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে Zafer Q নামের একটি এক্স অ্যাকাউন্টে ২০১৫ সালের ২৫ ডিসেম্বর প্রকাশিত পোস্টে একই ছবিটি খুঁজে পাওয়া যায়। উক্ত পোস্টে ছবিকে তৎকালীন সিরিয়ার সরকার বিরোধী বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে হওয়া হত্যাযজ্ঞের ভয়াবহতার দৃশ্য বলে দাবি করা হয়। যেখানে বলা হয়েছে, সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদ পরিচালিত গণহত্যার বিরুদ্ধে নিরব থাকা মুসলমানদের বিরুদ্ধে একদিন এই হাত ই সাক্ষ্য দিবে।

Screenshot comparison : Rumor Scanner

এছাড়া, ২০১৬ সালের ২৮ অক্টোবর একই ছবিটি  د پښتون ږغ (Voice of Pashtoon) নামক ফেসবুক পেজ থেকে প্রচারিত (আর্কাইভ) হয়। যেখানে ছবিটিকে তৎকালীন যুদ্ধ বিধ্বস্ত আফগানিস্তানের দৃশ্য বলে দাবি করা হয়।

পাশাপাশি একই দাবিতে حزب اهتزاز و پیشرو ملی اسلامی افغانستان নামের আফগানী ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে ২০১৭ সালের ২৬ জুন প্রকাশিত পোস্টে (আর্কাইভ) ছবিটি খুঁজে পাওয়া যায়।

একই ছবিটি ২০২০ সালে লেবাননের বৈরুত বিমানবন্দরের বিস্ফোরণের ঘটনায় ধ্বংসযজ্ঞের দৃশ্য দাবিতেও প্রচার করা হয়। সেসময় লেবানন ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আন নাহার বিষয়টি নিয়ে একটি ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন প্রকাশ করে।

ভাইরাল ছবিটির মূল উৎস সম্পর্কে নিশ্চিত কোনো তথ্য পাওয়া না গেলেও এটি নিশ্চিত যে, উক্ত ছবিটি সাম্প্রতিক ইসরায়েল-ফিলিস্তিন যুদ্ধ কেন্দ্রিক নয়।

মূলত, চলমান ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংকটকে কেন্দ্র করে ধ্বংস6স্তুপের নিচে চাপা পড়া মৃত ব্যক্তির আঙুলের ফাঁকের খেজুরের চারা গাছ গজানোর একটি ছবি প্রচার করে এটিকে গাজার ধ্বংসস্তুপের দৃশ্য দাবি করা হচ্ছে। তবে রিউমর স্ক্যানারের অনুসন্ধানে জানা যায়, ছবিটি সাম্প্রতিক সময়ের নয়। অন্তত ২০১৫ সাল থেকে ইন্টারনেটে এই ছবিটির অস্তিত্ব পাওয়া যাচ্ছে। সেসময় থেকে পরবর্তীতে বিভিন্ন সময় ছবিটিকে সিরিয়া, আফগানিস্তান ও লেবাননের দৃশ্য বলে প্রচার করা হয়। 

সুতরাং, চলমান ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংকটকে কেন্দ্র করে গাজার ধ্বংসস্তুপের বর্তমান ছবি দাবিতে পুরোনো ছবি প্রচার করা হচ্ছে; যা বিভ্রান্তিকর।

তথ্যসূত্র

  • Rumor Scanner’s own analysis Reverse image search
  • Reverse image search from facebook 1, 2
  • Reverse image search from
  • Website – Annahar
RS Team
Rumor Scanner Fact-Check Team
- Advertisment -spot_img
spot_img
spot_img